আল-কোরানের মুজিঝা

কেরানীগঞ্জে হাফপ্যান্ট পার্টি আতংক - দৈনিক যুগান্তর

বাবা-মায়ের সামনে মেয়েকে, স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণের মতো ঘটনাও ঘটেছে। এই বাহিনীর লুটতরাজের কারণে সর্বস্ব খুইয়েছেন এমন পরিবারের সংখ্যাও কম নয়।

প্রিয় ডেস্ক ১৫ মার্চ ২০১৭, ০৯:০৪

শ্রবণেন্দ্রীয় ও দর্শনেন্দ্রীয় সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে যা বলা হয়েছে!

এতদসত্ত্বেও কোরান মাজিদ শ্রবণেন্দ্রীয়ের ক্ষেত্রে একবচন এবং দর্শনেন্দ্রীয়ের ক্ষেত্রে বহুবচনের শব্দ ব্যবহার করেছে। কেবল আল্লাহ তাআলাই জানেন এধরনের শব্দ চয়নের রহস্য। আমরা আমাদের কর্ণ ও চক্ষুর ব্যবহারের ভিন্নতার ভিত্তিতে এই বিষয়টি ব্যাখ্যা করতে পারি।

priyo.Islam ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০৩:৩১

মেরু অঞ্চলে দিনের দৈর্ঘ্য সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে যা বলা হয়েছে!

সূর্য সর্বদা নিম্নে উদিত হওয়ার অবস্থায় থাকে, যেমনটি কোরান মাজিদে বর্ণিত হয়েছে। না মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আর না কোনো আরবি ব্যক্তির এই সূর্যোদয়ের অবস্থা সম্পর্কে সামান্যতম ধারণা ছিল। আল্লাহ তাআলা ব্যতীত আর কে, কোরান মাজিদে এই তথ্য সন্নিবেশিত করতে পারেন?

priyo.Islam ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০১:১৮

ফসলহীন উপত্যকা সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে কী বলা হয়েছে?

আরব উপদ্বীপের ভূভাগে বহু পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। যে কেউ এখন দেখতে পাবে কিছু পানির ড্যাম, পানি সেচের জন্য প্রচুর পানির কূপ এবং বহু চারণভূমি ও খামারবাড়ি। এটি লক্ষণীয় বিষয়, এই চার হাজার বছরের দীর্ঘ সময়েও এই উপত্যকার ভূমিতে তার চারপাশে কোনো পরিবর্তন আসে নি। মক্কা এখনও অনাবাদী ভূমি হিসেবে রয়ে গেছে।

priyo.Islam ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০৩:২৩

বৃষ্টির চক্রাবর্তন সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে যা বলা হয়েছে!

এভাবে আকাশ পৃথিবীকে সেই পানি ফিরিয়ে দেয় যা একটি নিত্য চক্রাবর্তে তার কাছে উঠে। এই বিষয়টি বর্ণনার পর কোরান মাজিদ মানব জাতিকে পৃথিবী বিদীর্ণ হওয়ার প্রতি মনোনিবেশ করার দাওয়াত দেয়। যেমন, ‘বৃষ্টির ফলে জীবনের উদ্ভব।

priyo.Islam ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০১:৩৬

কাবা শরিফে আল্লাহ তাআলার নিদর্শন, কীভাবে?

কাবা শরিফ মক্কায় অবস্থিত, যা খুব শুষ্ক। এর চারপাশে রয়েছে তরু-লতাহীন পাথুরে পর্বতমালা। মক্কা মরুভূমি হওয়ার কারণে তাতে পুরো বছর উল্লেখ করার মত তেমন কোনো বৃষ্টিপাতও হয় না। অধিকন্তু মক্কার ভেতরে কিংবা বাইরে কোনো পুকুর কিংবা হ্রদও নেই।

priyo.Islam ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০১:০১

মহাশূন্যের বিভিন্ন কক্ষপথ সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে যা বলা হয়েছে!

এই মহাবিশ্বে প্রায় ২০০ বিলিয়ন ছায়াপথ রয়েছে, যার প্রত্যেকটি ধারণ করে আছে প্রায় ২০০ বিলিয়ন নক্ষত্র। অধিকন্তু এসব নক্ষত্রের অধিকাংশেরই রয়েছে গ্রহপুঞ্জ। আর এই গ্রহপুঞ্জের অধিকাংশেরই রয়েছে উপগ্রহ। এসব মহাকাশীয় বস্ত্তর প্রতিটিই রয়েছে একটি নিত্য-গতিময় অবস্থায়।

priyo.Islam ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০১:২৭

কোরআনে যেভাবে বর্ণিত হয়েছে অন্ধকার ও আলোর আলোচনা!

কোরান মাজিদ যখন অন্ধকারের (যুলমাত)- বর্ণনা দেয় তখন তা একবচন ও বহুবচন উভয় ধরনের শব্দ ব্যবহার করে। পক্ষান্তরে, তা যখন আলো (নুর)-এর বর্ণনা দেয় তখন তা সর্বদা একবচনের শব্দই ব্যবহার করে। বস্ত্তত, কোরান মাজিদে এমন একটি আয়াতও পাওয়া যায় না যেখানে নুর শব্দটি বহুবচনে ব্যবহৃত হয়েছে।

priyo.Islam ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০৩:৩৮

সময়ের আপেক্ষিকতা সম্পর্কে কোরআনে যা আলোচিত হয়েছে!

একজন সাধারণ পাঠক এই আয়াতগুলিকে কোরান মাজিদের একটি অসঙ্গতি বলে ধরে নিতে পারে। বর্তমানে আপেক্ষিক তত্ত্ব (The theory of relativity) প্রমাণ করেছে যে, সময় হল একটি আপেক্ষিক ধারণা। আর তাই তা পরিবেশ ও অবস্থা অনুসারে পরিবর্তিত হতে পারে।

priyo.Islam ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০১:৫৮

কেন এবং কীভাবে সৃষ্টি করা হলো পৃথিবীর চারপাশের এই সুরক্ষিত ছাদ!

পৃথিবীর চারপাশে যে ওজোন-স্তর আছে তা মহাশূন্য থেকে আগত আলোকরশ্মিসমূহের জন্যে ছাকনির কাজ করে। তা কেবল ক্ষতিকর নয় এমন এবং উপকারী রশ্মিসমূহকেই মহাশূন্য থেকে প্রবেশের অনুমতি দেয়। বায়ুমন্ডল পৃথিবীকে মহাশূন্যের জমানো ঠান্ডা থেকেও রক্ষা করে, যা আনুমানিক মাইনাস ২৭০. সেল্টিগ্রেড।

priyo.Islam ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০২:৫৪

loading ...