ছবি সংগৃহীত

অপহৃত নয়, ইয়াবাসহ আটক হয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আরমান (অডিও)

সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পরদিন রাতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা দক্ষিণের সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কে এম আরমান ‘অপহৃত’ হয়েছেন বলে মিডিয়ায় তোলপাড় হয়। তবে ‘অপহৃত’ হননি তিনি। জানা গেলো, আদতে ইয়াবাসহ আটক হয়ে কারাগারে আছেন আরমান।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ০১ মে ২০১৫, ১৫:২৪ আপডেট: ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৫৫
প্রকাশিত: ০১ মে ২০১৫, ১৫:২৪ আপডেট: ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৫৫


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পরদিন রাতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা দক্ষিণের সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কে এম আরমান ‘অপহৃত’ হয়েছেন বলে মিডিয়ায় তোলপাড় হয়। তবে ‘অপহৃত’ হননি তিনি। জানা গেলো, আদতে ইয়াবাসহ আটক হয়ে কারাগারে আছেন আরমান। কে এম আরমান (৪০)-এর স্ত্রী নিগার সুলতানা বৃহস্পতিবার অভিযোগ করেন, বুধবার রাতে কয়েকজন লোক দৈনিক বাংলা মোড় এলাকা থেকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে আরমানকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। স্বামীকে পাওয়া যাচ্ছে না জানিয়ে রাতেই মতিঝিল থানায় একটি জিডি করেছেন নিগার সুলতানা। আর এনিয়ে সংবাদ মাধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়। আরমানের স্ত্রী তখন অভিযোগ করেন, ‘তিনমাস আগে মোবাইলে এসএমএসে আরমানকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। এছাড়া সিটি নির্বাচনে আরামবাগ এলাকায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী মোমিনুল হক সাঈদের পক্ষে ব্যাপক কাজ করেছিল আরমান।’ এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ‘প্রতিপক্ষের লোকজন’ সাঈদকে ‘তুলে নিয়ে গিয়ে থাকতে পারে’ বলে সন্দেহ করছেন নিগার সুলতানা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অনুসন্ধানে জানা যায় আরমানকে কেউ অপহরণ করেনি। তিনি ইয়াবাসহ আটক হয়ে এখন কারাগারে আছেন। যাত্রাবাড়ি থানার সাব ইন্সপেক্টর এবং ডিউটি অফিসার রাজু মন্ডল প্রিয়.কমকে জানান, ‘আরমানকে র‌্যাব ১৫০ পিস ইয়াবাসহ আটকের পর থানায় সোপর্দ করে। তাঁর বিরুদ্ধে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে। মামলার পর তাঁকে আদালতে পাঠান হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। তিনি এখন কারাগারেই আছেন। তাঁর স্ত্রী নিগার সুলাতানা শুক্রবারপ্রিয়.কমের কাছে দাবী করেন,‘ আমার স্বামী ইয়াবা খানও না ব্যবসাও করেন না। তিনি ঠিাকাদারী ,পাবলিক টয়লেটের ব্যবসা ও রাজনীতি করেন। কেন সে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হল বুঝে উঠতে পারছিনা।’ এখানে শুনুন নিগার সুলতানার অডিও সাক্ষাৎকার- [Video:https://www.youtube.com/watch?v=IEtsrghH9pQ&feature=youtu.be]