ছবি সংগৃহীত

ঢাবি শিক্ষার্থীদের ল্যাপটপ কিনতে সহজ শর্তে ঋণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ল্যাপটপ কেনায় সহজ শর্তে ঋণদানের কথা ভাবছে সরকার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রযুক্তির ছোঁয়ায় উদ্ভাসিত একটি মডেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার সকল চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ০২ নভেম্বর ২০১৪, ০৮:০৯ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৮, ১৩:৪৫
প্রকাশিত: ০২ নভেম্বর ২০১৪, ০৮:০৯ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৮, ১৩:৪৫


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ল্যাপটপ কেনায় সহজ শর্তে ঋণদানের কথা ভাবছে সরকার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রযুক্তির ছোঁয়ায় উদ্ভাসিত একটি মডেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার সকল চেষ্টা চালানো হচ্ছে। পুরো ক্যাম্পাসকে ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের ভেতরে আনা, প্রতিটি আবাসিক হলে উচ্চ গতির ইন্টারনেট সংযোগ পৌঁছে দেয়াসহ বিভিন্ন উদ্যোগ ইতোমধ্যে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় সহজ শর্তে ঋণদান কর্মসূচির উদ্যোগ। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে। প্রথমে ঢাবির ৬০০০ শিক্ষার্থীকে ল্যাপটপ কেনার জন্য স্বল্প সুদে ব্যাংক ঋণ দেয়ার সিদ্ধান্ত মোটামুটি চূড়ান্ত। শিক্ষা প্রকল্পের অধীনে এ ধরনের ঋণ দেয়ার কথা বিবেচনা করছে সরকার। শিক্ষাসচিব মো. নজরুল ইসলাম খান সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ ফ ম আরেফিন সিদ্দিক ও বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আতিউর রহমানের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন। সরকারি সূত্রে বলা হয়, আইসিটি জ্ঞান অর্জনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ৬০০০ শিক্ষার্থীকে ল্যাপটপ কেনার জন্য স্বল্প সুদে ঋণ দিতে একটি ঋণ কর্মসূচি চালু করতে তাঁরা সম্মত হয়েছেন। এ প্রসঙ্গে আ ফ ম আরেফিন সিদ্দিক বলেন, 'শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ প্রশংসনীয়। তিনি শিক্ষা কর্মসূচির অধীনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ধরনের ঋণ চালু করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সহায়তা কামনা করেন। শিক্ষা সচিব নজরুল ইসলাম খান বলেন, 'এ ধরনের একটি ঋণ কর্মসূচি চালু করতে ৩ বছর ধরে চেষ্টা করে আসছি। এ জন্য বিভিন্ন ব্যাংকের এমডিদের সঙ্গে বৈঠকও হয়েছে।' সচিব আরও বলেন, 'আমাদের জন্য এটি একটি ভালো খবর। ট্রাস্ট ব্যাংক ল্যাপটপ ক্রয়ে এই ঋণ দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আমরা ব্যাংকের এমডির সঙ্গে আলোচনা করেছি। তাঁকে বলেছি, প্রয়োজনে আমি ব্যাংক গ্যারান্টার হব।'