ছবি সংগৃহীত

নেশার টাকা না পেয়ে শিশুকন্যাকে হত্যা!

জামালপুর সদরের কম্পপুর এলাকায় বিপুল (২৭) নামে এক পাষণ্ড পিতা নেশার টাকা না পেয়ে তার এক বছরের শিশুকন্যাকে হত্যা করেছে।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০১৫, ০৭:৫৬ আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:১৩
প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০১৫, ০৭:৫৬ আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:১৩


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) জামালপুর সদরের কম্পপুর এলাকায় বিপুল (২৭) নামে এক পাষণ্ড পিতা নেশার টাকা না পেয়ে তার এক বছরের শিশুকন্যাকে হত্যা করেছে। রোববার সকালে এ ঘটনা ঘটে। শিশুকে হত্যার পর বিপুল তার মৃত শিশুকন্যাকে নিজের কোলে নিয়ে ভাবলেশহীনভাবে ঠায় বসে থাকে। পরে এলাকার লোকজন বিপুলকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এই ঘটনায় ওই এলাকায় এক শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়। স্থানীয়রা প্রিয়.কমকে জানান, বিপুল তার স্ত্রী সুজেদা বেগমের কাছে রোববার সকালে নেশার জন্য টাকা চান। স্ত্রী টাকা দিতে রাজি না হলে প্রথমে তার স্ত্রীকে চেলা কাঠ দিয়ে মাথার বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেয়। তার পরও টাকা না দিলে সে তার এক বছরের শিশুকন্যা লিপিকে গলা টিপে হত্যা করে। তার স্ত্রীর চিৎকারে এলাকার লোকজন জড়ো হয় এবং তারা দেখেন বিপুল তার মৃত শিশুকন্যাকে কোলে নিয়ে ভাবলেশহীনভাবে বসে আছে। এরপর পুলিশকে খবর দেয়া হলে পুলিশ এসে শিশুটির লাশ মর্গে পাঠায় এবং ঘাতক পিতা বিপুলকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এলাকার লোকজন জানান, বিপুল মাত্র এক সপ্তাহ আগে কম্পপুর ঈদ গাহ মাঠ সংলগ্ন একটি বাড়ি ভাড়া নেয়। সে কোন কাজকর্ম করেনা এবং প্রত্যেক রাতে নেশাকরে বাড়ি ফিরে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হয়। স্ত্রী সুজেদা বেগম বাসায় কাজ করে সংসার চালান। শিশুকন্যাকে হারিয়ে তিনি এখন পাগল প্রায়। এদিকে এই নির্মম ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বাবার হাতে শিশুকন্যা হত্যার ঘটনা শুনে ওই এলাকায় শত শত লোক ভীড় করেন।