ছবি সংগৃহীত

পাকিস্তান জনগণের কাছে মিথ্যা বলেছিল

আত্মসমর্পণ দলিলে স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যুদয় এবং ঐক্যবদ্ধ পাকিস্তানের অবসান ঘটে...

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৮:৪৯ আপডেট: ১৪ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:০৫
প্রকাশিত: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৮:৪৯ আপডেট: ১৪ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:০৫


ছবি সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) জেনারেল আইয়ুব খানের রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও পরে ইয়াহিয়া খানের নৌমন্ত্রী পাকিস্তানের রাষ্ট্র বিজ্ঞানী ড. গোলাম ওয়াহিদ চৌধুরী তার রচিত ‘লাস্ট ডেইজ অফ ইউনাইটেড পাকিস্তান’ বইয়ে লিখেছেন, ১৯৭১ সালে পতনের শেষ দিনগুলোতে পাকিস্তান সরকার জনগণকে মিথ্যা তথ্য দিয়েছিল।

তার রচিত বই থেকে উদ্ধৃতাংশ: ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তান সেনাবাহিনী ভারতীয় এবং বাংলাদেশী যৌথ বাহিনীর কাছে নিঃশর্তভাবে আত্মসমর্পণ করে। আত্মসমর্পণ দলিলে স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যুদয় এবং ঐক্যবদ্ধ পাকিস্তানের অবসান ঘটে। তবে, পাকিস্তানের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সেন্সরের কারনে মিডিয়া তা অস্বীকার করেছিল।

বাংলাদেশে পাকিস্তানের জেনারেল নিয়াজী আত্মসমর্পণের পর কমান্ডের অধীনে থাকা ৯৩ হাজার সৈন্য এবং আধাসামরিক বাহিনীর বন্দুকগুলো নীরব ও নিপতিত হয়। পরদিন করাচি থেকে প্রকাশিত ডন পত্রিকার ‘বিজয় পর্যন্ত যুদ্ধ চলবে’ বলে ঘোষণা প্রকাশিত হয়। পাকিস্তানের আত্মসমর্পণের খবরে বলা হয়েছিল, ‘ফাইটিং এন্ডস ইন ইস্ট উইং : পিএএফ হিটস্ ইন ওয়েস্ট”।

নিবন্ধে বলা হয়, সর্ব শেষ খবরে জানা যায়, ভারত ও পাকিস্তানের স্থানীয় কমান্ডার পর্যায়ে এক আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পূর্ব পাকিস্তানে যুদ্ধ বিরতি হয়েছে এবং ভারতীয় সৈন্যরা ঢাকায় প্রবেশ করেছে। সারাবিশ্বের খবরের কাগজের শিরোনাম ছিল- পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর আত্মসর্মপন এবং বাংলাদেশের জন্ম।

বাসস

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...