মানবপাচার চক্রের ‘মূল হোতা’ থাইল্যান্ডে গ্রেফতার

থাইল্যান্ডে সন্দেহভাজন এক মানবপাচার চক্রের নেতাকে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার থেকে মালয়েশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়ায় মানব পাচারে পাচুবান অংচুতিমান নামে ঐ ব্যক্তির সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ১৯ মে ২০১৫, ০৯:৫২ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৮, ০৩:০৭
প্রকাশিত: ১৯ মে ২০১৫, ০৯:৫২ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৮, ০৩:০৭

(প্রিয়.কম) থাইল্যান্ডে সন্দেহভাজন এক মানবপাচার চক্রের নেতাকে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার থেকে মালয়েশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়ায় মানব পাচারে পাচুবান অংচুতিমান নামে ঐ ব্যক্তির সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ। থাইল্যান্ড পুলিশের চিফ জেনারেল সময়ত পুমপানমং জানায়, পাচুবান প্রাদেশিক সরকারের একজন সাবেক কর্মকর্তা। তিনি একটি বিশাল মানবপাচার চক্রের প্রধান নেতা ছিলেন। তিনি বলেন, “সাতুন প্রদেশে সেই সবচেয়ে বড় নেতা। তার অনেক সঙ্গী রয়েছে।” পাচুবান কর তং হিসেবেই পরিচিত। তার বিরুদ্ধে মানবপাচার ও অপহরণসহ অনেক অভিযোগ রয়েছে। তবে এসকল অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে পাচুবান অংচুতিমান। এখন পর্যন্ত মানবপাচারে জড়িত থাকা সন্দেহে ৩০ জনকে গ্রেফতার করেছে থাই পুলিশ। এছাড়া চলমান সঙ্কট নিয়ে ত্রিদেশীয় বৈঠকে বসছে থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া এবং মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রী। অন্যান্য দেশগুলো এই সঙ্কট সৃষ্টির জন্য মিয়ানমারকে দোষারোপ করলেও দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রী ইয়ে তুত জানিয়েছেন, মিয়ানমারকে ঢালাওভাবে দোষারোপ না করে আমাদের সৃষ্ট সমস্যা কিভাবে দূর করা যায় তা বের করা উচিত।