ছবি সংগৃহীত

সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধে সম্প্রচার নীতিমালা করেছে : খন্দকার মাহবুব

বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধে সম্প্রচার নীতিমালা করেছে। মানুষের বাক স্বাধীনতার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইন করেছে।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৪, ১১:৪৮ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৮, ০৯:৩৫
প্রকাশিত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৪, ১১:৪৮ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৮, ০৯:৩৫


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) অভিশংসন আইন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন মন্তব্য করেন, সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধে সম্প্রচার নীতিমালা করেছে। তিনি আরো বলেন, মানুষের বাক স্বাধীনতার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইন করেছে। তাদের (সরকার) বিরুদ্ধে কেউ কথা বললেই ব্যবস্থা নেওয়া হয়। সোমবার দুপুরে রিপোটার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) গোলটেবিল মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম- ৭১ এর আলোচনা সভায় তিনি এসব বলেন। খন্দকার মাহবুব বলেন, আমার মনে হয় তারা (সরকার) ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছেন। এজন্য এ ‘অবৈধ সরকার’ আইনের পর আইন করে পুরো দেশেকে নিজেদের শৃঙ্খলে আবদ্ধ করতে চায়। বর্তমান সরকার ভারসাম্য হারিয়ে একের পর এক আইন করে পুরো দেশকে নিজেদের শৃঙ্খলে নিতে চায় বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন। বিএনপির আন্দোলনের বিষয়ে খন্দকার মাহবুব বলেন, খালেদা জিয়া তিন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। তিনি তার সময় মতো আমাদের ডাকবেন। তার ডাকে সাড়া দিয়ে গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে এ সরকারের পতন ঘাটাতে হবে। এ সরকারের সব অবৈধ কার্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্মকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সংগঠনের সভাপতি ঢালি আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে গোলটেবিল আলোচনায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সহ আইন সম্পাদক অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, সাবেক এমপি শাম্মী আকতার, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু প্রমুখ।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...