ছবি সংগৃহীত

২০১৫ সাল হবে ‘ই-কমার্স বর্ষ’

কাজ করতে গিয়ে নানা ধরনের সমস্যায় পড়তে হয় উদ্যোক্তাদের। এসব সমস্যার সমাধান দিতে দেশে প্রথমবারের চালু হলো ই-কমার্স সেবা কেন্দ্র। ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) এই সেবাকেন্দ্রটি চালু করেছে।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪, ১১:৪১ আপডেট: ১৮ আগস্ট ২০১৮, ২২:১৬
প্রকাশিত: ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪, ১১:৪১ আপডেট: ১৮ আগস্ট ২০১৮, ২২:১৬


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) কাজ করতে গিয়ে নানা ধরনের সমস্যায় পড়তে হয় উদ্যোক্তাদের। এসব সমস্যার সমাধান দিতে দেশে প্রথমবারের চালু হলো ই-কমার্স সেবা কেন্দ্র। ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) এই সেবাকেন্দ্রটি চালু করেছে। দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে উদ্যোক্তারা বিনামূল্যে ০৯৬১৩ ২২২ ৩৩৩ –এই নাম্বারে ফোন করে সেবা নিতে পারবেন। এছাড়া এই ওয়েবসাইট থেকেও সেবা পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে ই-ক্যাব। অনুষ্ঠানে ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ: আব্দুল ওয়াহেদ তমাল, কোষাধ্যক্ষ আব্দুল হক অনু, ডিরেক্টর (গভর্নমেন্ট অ্যাফেয়ার্স) রেজওয়ানুল হক জামী এবং ই-ক্যাবের স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান সারাহ জিতা উপস্থিত ছিলেন। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ই-ক্যাবের এক অনুষ্ঠানে এই সেবাকেন্দ্রের উদ্বোধন করেন বিসিএসের সাবেক সভাপতি ও তথ্য প্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোস্তাফা জব্বার বলেন, অগোছালো ই-কমার্স খাতকে সামনে এগিয়ে নিতে এ ধরনের একটি সেবা কেন্দ্রের দরকার ছিলো। একটা সময় আসবে যখন কমার্স বলতে কিছু থাকবে না। সবকিছুই ইন্টারনেটের হাতে চলে যাবে। অনুষ্ঠানে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারস অ্যাসোসিয়েশনের (আইএসপিএবি) প্রেসিডেন্ট আখতারুজ্জামান মঞ্জু বলেন, দেশের গ্রামে-গঞ্জে ইন্টারনেট সংযোগ ছড়িয়ে দিতে আইএসপিএবি কাজ করে যাচ্ছে। বিভিন্ন সময় ইন্টারনেট সেবা বিঘ্নিত হওয়ার জন্য বিটিআরসি ও বিদ্যুৎ বিভাগের তার কেটে দেওয়াকে দায়ী করেন তিনি। ই-ক্যাবের সভাপতি রাজিব আহমেদ বলেন, ই-কমার্স খাতকে দেশজুড়ে ছড়িয়ে দিতে ২০১৫ সালকে ‘ই-কমার্স বর্ষ’ হিসেবে ঘোষণা করছে ই-ক্যাব। এ খাতকে গণ-মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে প্রতিষ্ঠানটি বছরজুড়ে বিভিন্ন কার্যক্রম চালাবে বলেও জানান তিনি।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...