জাতীয় প্রেসক্লাবে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে বিএনপির আলোচনা সভায় ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ছবি: প্রিয়.কম

ক্ষমতায় গেলে সরকারের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হবে: মওদুদ

‘কারো ঘরে চুরি হলেও তো বাড়ির দারোয়ানকে পুলিশ আটক করে। অথচ বাংলাদেশ ব্যাংকে এত বড় চুরি হয়ে গেল, কিন্তু কখনো কাউকে গ্রেফতার, বিচারের মুখোমুখি করা হয়নি।’

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২ মার্চ ২০১৮, ১৪:৩০ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৬:১৬
প্রকাশিত: ০২ মার্চ ২০১৮, ১৪:৩০ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৬:১৬


জাতীয় প্রেসক্লাবে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে বিএনপির আলোচনা সভায় ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ছবি: প্রিয়.কম

(‌প্রিয়.কম) বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, তার দল ক্ষমতায় গেলে বর্তমান সরকারের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হবে।

২ মার্চ, শুক্রবার দুপু‌রে জাতীয় প্রেসক্লাবে ২০-দলীয় জোটনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আয়োজিত এক আ‌লোচনা সভায় প্রধান অ‌তি‌থির বক্ত‌ব্যে মওদুদ এ কথা ব‌লেন। 

ন্যাশনাল পিপলস পা‌র্টি (এনপিপি) আলোচনা সভাটির আ‌য়োজন ক‌রে‌। এতে মওদুদ বলেন, ‘বর্তমান সরকার তো আজীবন ক্ষমতায় থাকবে না। একদিন তাদের বিদায় নিতে হবে। আমরা রাষ্ট্র প‌রিচালনায় গে‌লে তাদের গত ১০ বছরের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হবে।’

‘বর্তমান সরকার শেষ সরকার নয়। এ সরকারের আমলে কোন মন্ত্রী, কোন এমপি, কোন ব্যাবসায়ী তাদের মদদপুষ্ট, এমনকি জেলা পর্যায়ের নেতারা কত টাকা দুর্নীতি করেছেন, তার হিসাব হবে। সবার দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করে তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে। তা‌দের সবকিছুর জবাব দিতে হবে।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি নিয়ে বিএনপির জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, ‘কারো ঘরে চুরি হলেও তো বাড়ির দারোয়ানকে পুলিশ আটক করে। অথচ বাংলাদেশ ব্যাংকে এত বড় চুরি হয়ে গেল, কিন্তু কখনো কাউকে গ্রেফতার, বিচারের মুখোমুখি করা হয়নি। কেন্দ্রীয় ব্যংকের রিজার্ভ চুরি‌তে কারা জড়িত, সেটা কেউ জানল না। কিন্তু বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীদের সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে।’ 

বর্তমান সরকারের আমলে গত ১০ বছরে যে দুর্নীতি হয়েছে, তার কোনো হিসাব নেই দাবি করে মওদুদ বলেন, ‘বিশ্বব্যাংক এখন আর কোনো অর্থায়ন করে না। কারণ তারা অর্থায়ন করলে সবকিছু মনিটরিং করে। আর সে জন্য সরকার বলে নিজস্ব অর্থায়নে প্রকল্প বাস্তবায়ন করার কথা। আপনারা নিজস্ব অর্থায়নের কথা বলছেন? এর মানে বোঝেন? নিজস্ব অর্থায়ন মানে এর কোনো মনিটরিং বা জবাবদিহিতা নেই। তার মানে যত বড় বড় প্রকল্প, তত বড় বড় দুর্নীতি, ঘুষ, কমিশন।’

‘সরকার আজ উন্নয়নের কৃতিত্ব দাবি করেন। কিন্তু দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে, তার কৃতিত্ব সরকারের নয়, দেশের মানুষের। দেশের অর্থনীতি মূলত যে তিনটি সেক্টরের ওপর বেশি নির্ভর করে, সেগুলো হলো কৃষি, বিদেশি রেমিট্যান্স ও পোশাক শিল্প। এ তিনটি খাত প্রতিষ্ঠা ও সম্প্রসারণ করেছে বিএনপি। এগুলোতে আওয়ামী সরকা‌রের কোনো অবদান নেই।’ 

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, ‘যত ষড়যন্ত্র করেন না কেন, খালেদা জিয়া মুক্তি পাবে। তাকে আটকে রাখা যাবে না। আর যেদিন তিনি মুক্তি পাবেন, সেদিন দেখবেন তার জনপ্রিয়তা জেলে যাওয়ার আগের চেয়ে তিন গুণ বেশি বেড়ে গেছে।’

‘আপনারা দেশের মানুষকে বোকা মনে করেন?  কিন্তু তারা বোকা না, সব জানে বুঝে। যেদিন তারা ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবে, সেদিন আপনাদের কঠিন জবাব দিবে ব্যালটের মাধ্যমে।’

নির্বাচন কমিশনের সমা‌লোচনা ক‌রে এই  অাইনজীবী ব‌লেন, ‘আমরা সরকারি দলের প্রচারণার বিষয়ে চিঠি দিয়েছি। কিন্তু পত্রিকায় দেখলাম, তারা জবাব দিয়েছে তফসিল ঘোষণার পর এ‌ বিষ‌য়ে তারা দায়িত্ব গ্রহণ করে। কিন্তু আমাদের দেশে তফসিল ঘোষণা হয় দেড় মাসে আগে। কিন্তু এ অল্প সময়ে কি প্রশাসনকে ঢেলে সাজানো যায়?'

আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা জামাল হায়দার, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ-ভাসানী) মহাস‌চিব গোলাম মোস্তফা, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ প্রমুখ।  

প্রিয় সংবাদ/ইতি/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...