(প্রিয়.কম) বলিউডের অন্যতম আলোচিত অভিনেত্রী ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। রূপ এবং ক্যারিয়ারের কারণে বরাবরই আলোচিত-সমালোচিত এই অভিনেত্রী। হাজারো নয়, লাখো পুরুষের হৃদয়ের রানী তিনি। রূপ, ব্যক্তিত্ব, প্রতিভা সব মিলিয়ে বিধাতার এক অনন্য সৃষ্টি যেন। পর্দায় তাকে সর্বদা গ্ল্যামারাস রূপেই দেখে অভ্যস্ত ভক্ত-দর্শক। ঐশ্বরিয়া তার অভিনয়, সৌন্দর্য আর ব্যক্তিত্ব দিয়ে মাতিয়ে রেখেছেন পুরো বলিউড পাড়া। প্রথমে বিশ্ব সুন্দরী হওয়া, এরপর বলিউডে পা রাখা, প্রেম-বিয়ে-সন্তান জন্মদান সব কিছুতেই তিনি আলোচিত ছিলেন সব সময়। ভক্তদের তাকে নিয়ে আগ্রহের কোনো কমতি নেই আজও।

একজন স্থপতি হবার স্বপ্ন নিয়ে স্থাপত্যশিল্প বিষয়ে পড়াশোনা করতে শুরু করেছিলেন। কিন্তু মডেলিং এর প্রতি আগ্রহ থাকার কারণে এবং বিশ্ব সুন্দরী খেতাব জেতার পর পড়াশোনায় আর সময় দিতে পারেননি তিনি। মডেলিং ও বলিউডের ক্যারিয়ার ব্যস্ততার কারণে ছেড়ে দিয়েছিলেন স্থাপত্যবিদ্যা। ক্যারিয়ারের সফলতা অর্জন করার পর তিনি বিয়ে করেন বলিউডের আরেক জনপ্রিয় নায়ক অভিষেক বচ্চনকে এবং তার ঘরে জন্ম নেয় কন্যা আরাধ্য।

কন্যা সন্তান জন্মের পর ফের বলিউডে এসে চমকে দিয়েছেন সবাইকে। করণ জোহরের নতুন ছবি ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ মুক্তির আগে থেকেই শোরগোল ফেলে দেয়। রণবীরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করা নিয়ে অনেক বিতর্কও সইতে হয়েছে ঐশ্বরিয়াকে। এমনকি বচ্চন পরিবারেও সমালোচনা হয়েছে। ক্যারিয়ারে একাধিক সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন এই সুন্দরী। শুধু তাই নয়, হলিউড সিনেমাতে রেখেছেন দক্ষতার ছাপ। সেই সুবাদে গত ১৫ বছর ধরে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ‘কান ফেস্টিভ্যাল’এর রেড কার্পেট মাতাচ্ছেন। এছাড়াও আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড ‘ল্যাকমে’র অন্যতম প্রিয় মুখ তিনি।

কিন্তু অসাধারণ এই অভিনেত্রী এমন ১০টি সিনেমা ফিরিয়ে দিয়েছিলেন, যা মুক্তির পর সুপারহিট পদবী লাভ করে। চলুন দেখে নেই কোন ১০টি সিনেমার প্রস্তাব গ্রহণ করেননি ঐশ্বরিয়া।

'বাজিরাও মাস্তানি' ছবির মাস্তানি চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ঐশ্বরিয়া। পরে এই চরিত্রে অভনয় করেন দীপিকা পাড়ুকোন, এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কারও লাভ করেন তিনি।

'ভুল ভুলাইয়া' ছবির প্রধান নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিদ্যা বালান। কিন্তু এটি প্রথমে ঐশ্বরিয়াকে অফার করা হয়। কিন্তু ঐশ্বরিয়া ছবিটি করতে আপত্তি জানান।

'দোস্তানা' ছবির নায়িকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। করণ জোহর প্রথমে ছবিটির নায়িকা চরিত্র প্রস্তাব করেন ঐশ্বরিয়াকে। এটিও পরবর্তীতে সুপারহিট সিনেমা হিসেবে বক্স অফিস মাতায়।

শাহরুখ খান ও প্রীতি জিনতা অভিনীত যশ চোপড়া পরিচালিত 'বীর-জারা' ছবিটিতে জারা চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল ঐশ্বরিয়ার। কিন্তু এই লোভনীয় প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিয়েছিলেন সাবেক বিশ্বসুন্দরী।

'কাভি খুশি কাভি গাম' ছবিতে কাজলের চরিত্রটি প্রথমে প্রস্তাব করা হয় ঐশ্বরিয়াকে। এই ছবিটিকেও নাকচ করেন বচ্চন বধূ।

'মুন্না ভাই এমবিবিএস' ছবিতে নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করেছেন গ্রেসি সিং। ছবিটি নায়ক প্রধান বলে এতে অভিনয় করেননি ঐশ্বরিয়া।

'চলতে চলতে' ছবিতে প্রথমে কয়েকদিন শুটিং করেছিলেন ঐশ্বরিয়া। কিন্তু কয়েকদিন পর হুট করে শুটিংয়ে আসা বন্ধ করে দেন তিনি। এরপর ছবিতে শাহরুখের বিপরীতে অংশ নেন রানি মুখার্জী।

'কুছ কুছ হোতা হ্যায়' ছবিটিতে রানি মুখার্জীর চরিত্রটি টুইংকেল খান্নাকে ভেবেই লেখা হয়েছিল। কিন্তু ততদিনে সিনেমা থেকে সরে গিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। পরে এই প্রস্তাব যায় ঐশ্বরিয়ার কাছে। তিনিও ফিরিয়ে দেন। এরপর করণ জোহর রানির দ্বারস্থ হন। ফলাফল- এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ সহঅভিনেত্রীর পুরস্কার পান রানি।

'রাজা হিন্দুস্তানি' ছবিতে নায়িকা ছিলেন কারিশমা কাপুর। কিন্তু প্রথমে এর প্রস্তাব দেয়া হয় ঐশ্বরিয়াকে। অজানা এক কারণে সিনেমাটি প্রত্যাখ্যান করেন তিনি।

'বদলাপুর' ছবিতে নতুন নায়কের বিপরীতে কাজ করতে চান নি ঐশ্বরিয়া। পরে বরুণ ধাওয়ানের বিপরীতে এই সিনেমায় অভিনয় করেন ইয়ামি গৌতম।

সূত্র: জুম টিভি

প্রিয় বিনোদন/সিফাত বিনতে ওয়াহিদ