(প্রিয়.কম) বিয়ের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ফুটে উঠে সে দেশের সংস্কৃতি। বিয়ের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো কনের পোশাক। অধিকাংশ দেশে কনের পোশাকে ফুটে উঠে সে দেশের ঐতিহ্য। বিভিন্ন দেশে বিয়ের অনুষ্ঠানে যেমন পার্থক্য রয়েছে তেমনি বিয়ের পোশাকেও রয়েছে পার্থক্য। বিভিন্ন দেশের বিয়ের পোশাক নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন দেখে নিন এক নজরে।

১। তুরস্কের কনেরা বাবার বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানের স্থানে যাওয়ার সময় তার ভাই বা চাচারা কনের কোমরে লাল রং-এর বেল্ট বেঁধে দেয়। লাল রং-কে ভাগ্য, খুশির প্রতীক হিসেবে দেখা হয়।

turkish bride  

২। বুলগেরিয়ায় কনের মুখ সাদা রং দিয়ে পেইন্ট করা হয় এবং নানা রঙের ঐতিহ্যবাহী গয়না পরিধান করা হয়। দুইদিন ধরে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান চলে।

bulgaria_bride

৩। শ্রীলংকার কনেরা পূর্ব এবং পশ্চিম উভয় সংস্কৃতির সমন্বয়ে পোশাক পরিধান করে থাকেন। কনের সম্পূর্ণ শরীর সোনার গয়না দিয়ে মোড়ানো থাকে। তাদের গয়নায় বেজোড় সংখ্যক পাথর বসানো থাকে।

sri-lankan bride  

৪। তাজিকিস্থানের কনেরা সাদা রঙের গাউনের মতো পোশাক পরিধান করে থাকেন।

tajikistan-bride

৫। নুবিয়াতে কনেরা তিনটি ওড়না পরেন। প্রথম অংশ তার মাথায় থাকে, আরেকটি অংশ দিয়ে মুখ ঢাকা থাকে এবং আরেকটি অংশ দিয়ে সম্পূর্ণ মাথা ঢাকা থাকে।

nubia bride

৬। চাইনিজদের ঐতিহ্যবাহী বিয়ের পোশাক সাধারণত লাল হয়।

chinese bride

৭। জর্ডান কনেরা ওই দেশের ঐতিহ্যবাহী বিয়ের পোশাক সাথে সোনার অথবা রুপার গয়না পরিধান করে থাকেন। অনেক সময়ে সবুজ রঙের স্কার্ফ দিয়ে মাথাটি পেঁচানো থাকে।

jordan bride

৮। শুভ্রতার প্রতীক সাদা জাপানিজদের ঐতিহ্যবাহী বিয়ের পোশাক হিসেবে পরিধান করা হয়।

japanese wedding

৯। নাইজেরিয়ান কনেরা উজ্জ্বল রঙয়ের পোশাক পরিধান করে থাকেন। সাধারণত ইন্ডিয়ান কাপড় দিয়ে তাদের পোশাক তৈরি করা হয়।

১০। ইরিত্রিয়ায় গাঢ় রঙের ভেলভেট এবং বেগুনি এবং সোনালী রঙের ফিতা দিয়ে মুকুট বর কনে উভয় মাথায় পরিধান করে থাকে।

eritrean bride

১১। মরোক্কোর কনেরা সম্পূর্ণ বিয়ের অনুষ্ঠানে তিনবার পোশাক পরিবর্তন করে থাকেন। এর মধ্যে একটি থাকে সাদা রঙের পোশাক।

moroccan bride

১২। ঘানার বর কনেরা তাদের দেশের ঐতিহ্য অনুযায়ী পোশাক পরিধান করে থাকেন।

সূত্র: বিজনেস ইন্সাইডার এবং ইন্ডিয়াটাইমস

সম্পাদনা: কে এন দেয়া