প্রতীকী ছবি

কর্ণাটকে ভোটার তালিকায় ১৫ লাখ মুসলিমের নাম উধাও

‘সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পলিসি (সিআরডিডিপি)’ নামের একটি বেসরকারি সংস্থার প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে ক্যারাভেন ডেইলি।

নাঈম আহমাদ
কবি ও সাংবাদিক
প্রকাশিত: ৩১ মার্চ ২০১৮, ১৬:৩১ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১২:১৬
প্রকাশিত: ৩১ মার্চ ২০১৮, ১৬:৩১ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১২:১৬


প্রতীকী ছবি

(প্রিয়.কম) চলতি বছরের মে মাসে কর্ণাটকে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বিধানসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটার তালিকা থেকে ‘উধাও’ হয়েছে সেখানকার ১৫ লাখ মুসলিম ভোটারের নাম। ‘সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পলিসি (সিআরডিডিপি)’ নামের একটি বেসরকারি সংস্থার প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে ক্যারাভেন ডেইলি।

ক্যারাভেন ডেইলিতে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, রাজ্য সংখ্যালঘু কমিশন, ভারতীয় নির্বাচন কমিশন ও রাজনৈতিক দলগুলোর দৃষ্টি আকর্ষণ করার পর এখন ‘সিআরডিডিপি’র পক্ষ থেকে ভোটারদের তালিকাভুক্তির কাজ করা হচ্ছে।

এই সংস্থাটির প্রধান ডক্টর আবু সালেহ শরীফ, যিনি একজন সামজিক আন্দোলনের কর্মী ও ভোটার তালিকা প্রণয়নের স্বেচ্ছাসেবী।

কীভাবে ‘সিআরডিডিপি’ এই পরিসংখ্যান বের করল–এমন প্রশ্নের জবাবে আবু সালেহ শরীফ বলেন, ‘প্রথমত আমরা ২০১১ সালের ভোটার তালিকা দেখি এবং মুসলিম ভোটারদের একটি আলাদা তালিকা তৈরি করি। এরপর ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি কর্ণাটকের নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রকাশিত তালিকা থেকে মুসলিম ভোটারদের একটি আলাদা তালিকা তৈরি করি। এতে দুই তালিকার মধ্যে ব্যাপক ব্যাবধান দেখতে পাই এবং অনেক মুসলিম ভোটার বাদ পড়ার তথ্য দেখতে পাই।’

১৬টি বিধানসভা কেন্দ্রে বাদ পরা মুসলিমের সংখ্যা এক লাখ ২৮ হাজার। ছবি: সংগৃহীত

২৪ মার্চের তালিকায় বিধানসভা নির্বাচনের ১৬টি কেন্দ্রে বাদ পড়া মুসলিমের সংখ্যা এক লাখ ২৮ হাজার। ছবি: সংগৃহীত

তিনি জানান, ২৪ মার্চ একটি তালিকা তৈরি করা হয়, যেখানে দেখা যায় মাত্র ১৬টি বিধানসভা কেন্দ্রে বাদ পড়া মুসলমানের সংখ্যাই ১ লাখ ২৮ হাজারের অধিক।

এমন অবস্থায় সংস্থাটি নির্বাচন ও ভোটার তালিকা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন গ্রুপের সঙ্গে বিষয়টি সমাধানের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। দ্রুত এই সমস্যার সমাধান হবে বলে তাদের বিশ্বাস।

সূত্র: ক্যারাভেন ডেইলি

প্রিয় সংবাদ/ সৌরভ/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...