বুধবার রাজধানীর আশকোনায় হজ ক্যাম্পে হজ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

ইসলামের নামে জঙ্গি কার্যক্রম চলবে না: প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনা বলেন, ‘ইসলাম মানুষের শান্তি ও অধিকারের কথা বলে। তাই ইসলামের নামে কোনো ধরনের জঙ্গি কার্যক্রম যেন বৃদ্ধি না পায়, এজন্য আমাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।ইসলাম শান্তিতে বিশ্বাস করে।’

শেখ নোমান
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৮, ১৬:১৮
আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০৯:৩২


বুধবার রাজধানীর আশকোনায় হজ ক্যাম্পে হজ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

(ইউএনবি) ইসলামের নামে কোনো ধরনের জঙ্গি কার্যক্রম চলবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

১১ জুলাই, বুধবার সকালে রাজধানীর আশকোনায় হজ ক্যাম্পে হজ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘ইসলাম মানুষের শান্তি ও অধিকারের কথা বলে। তাই ইসলামের নামে কোনো ধরনের জঙ্গি কার্যক্রম যেন বৃদ্ধি না পায়, এজন্য আমাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।ইসলাম শান্তিতে বিশ্বাস করে। ইসলাম ধর্মে মানুষের জীবনমান উন্নতির কথা বার বার বলেছে। অথচ আমরা মাঝে মাঝে দেখি, এই ধর্মের নাম নিয়ে কেউ কেউ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালায়, জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে। তখন সারা বিশ্বের কাছে আমাদের এই ধর্ম প্রশ্নবিদ্ধ হয়।’

এসব সমস্যার কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্রমণের সময় মুসলিমরা সমস্যার মুখে পড়ে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ধর্ম সবচেয়ে শান্তির ধর্ম। সব ধর্মের মানুষ যার যার নিজ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে। আমাদের মহানবী (সা.) বার বার সে কথা বলে গেছেন। কিন্তু তারপরেও কিছু মানুষের জন্যে সকলেরই সমস্যা হয়। ইসলাম সম্পর্কে কাউকে বিভ্রান্তি ছড়াতে দেওয়া হবে না। এমন ব্যবস্থা গড়ে তুলুন, যাতে মানুষ ইসলামের প্রকৃত অর্থ বুঝতে পারে। এজন্য আমরা ইসলামী ফাউন্ডেশনের তত্ত্বাবধানে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ৫৬০টি মসজিদ নির্মাণের জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছি।’

ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামাল, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বজলুল হক হারুন, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত ধর্মানুরাগী হাজীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

এ বছর হজের প্রথম ফ্লাইট শুরু হবে ১৪ জুলাই ও ফ্লাইট শেষ হবে ১৫ আগস্ট। এরই মধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে আশকোনা হজ ক্যাম্প অফিস।

বাংলাদেশ বিমান ১৮৭টি ফ্লাইটে মোট ৬৪ হাজার ৯৯৭ জন হজযাত্রী পরিবহন করবে। বাকি হজযাত্রীদের পরিবহন করবে সৌদিয়া এয়ারলাইন্স। সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রায় ১৬ হাজার হজযাত্রীর ভিসা সম্পন্ন হয়েছে। এ বছর এক লাখ ২৭ হাজার ৭৯৮ জন হজ করতে সৌদি আরবে যাওয়ার কথা রয়েছে।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট
হজ চুক্তি : বাংলাদেশের কোটা ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮
হজ চুক্তি : বাংলাদেশের কোটা ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮
জাগো নিউজ ২৪ - ৩ দিন, ৯ ঘণ্টা আগে
চীনে কারখানা বন্ধ করছে স্যামসাং
চীনে কারখানা বন্ধ করছে স্যামসাং
https://www.prothomalo.com/ - ৩ দিন, ৯ ঘণ্টা আগে