চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। ফাইল ছবি

ক্যাম্পাসছাড়া করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে ছাত্রলীগের হুমকি

ভুক্তভোগী শিক্ষক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক।

আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০১৮, ১৫:৫১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৮:১৬
প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০১৮, ১৫:৫১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৮:১৬


চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) কোটা সংস্কার নিয়ে ফেসবুকে দেওয়া বক্তব্যকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক শিক্ষককে হুমকি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগ।

ওই শিক্ষক তার স্ত্রীকে নিয়ে ক্যাম্পাস ছেড়ে নিরাপদ জায়গায় চলে গেছেন বলে দ্য ডেইলি স্টারের এক প্রতিবেদনে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাইদুল ইসলাম।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রবিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সামাজিক বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি এসএম মনিরুল হাসানের অফিসে আসেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ২৫-৩০ জনের দলটির নেতৃত্বে ছিলেন চবি শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি মনসুর আলম।

সামাজিক বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি জানান, মাইদুলের বিরুদ্ধে কোটা সংস্কার আন্দোলন সমর্থন করে ফেসবুকে সরকারের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়ানো এবং আন্দোলনে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ করেন চবি শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

মনিরুল হাসান আরও জানান, বিভাগের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা না নেওয়া হলে মাইদুলকে ভয়াবহ পরিণতি ভোগ করতে হবে বলেও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হুমকি দেন। বিষয়টি দেখবেন মনিরুল হাসান বলে আশ্বস্ত করার পর তারা চলে যান।

ওই শিক্ষক মাইদুল ইসলাম সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ওপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে ফেসবুকে অল্প কিছু কথা লিখেছিলাম।

এতে কারও (ছাত্রলীগ) বাধা দেওয়ার কোনো অধিকার নেই। কিন্তু ক্যাম্পাসে অনিরাপদ বোধ করায় তিনি স্ত্রীকে নিয়ে নিরাপদ জায়গায় আছেন।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘মাইদুল ইসলামকে ছাত্রলীগের হুমকি বা তার ক্যাম্পাসছাড়া হওয়ার ব্যাপারে আমি কিছু জানি না।’

চবির ছাত্রলীগ নেতা মনসুর আলম বলেন, ‘ওই শিক্ষক ফেসবুকে সরকারকে নিয়ে ‘‘নেতিবাচক স্ট্যাটাস’’ ও ক্যাম্পাস অস্থিতিশীল করতে ছাত্র-শিক্ষকদের উস্কানি দিচ্ছিলেন। শিক্ষকদের দিক থেকে এ ধরনের কোনো কর্মকাণ্ড সহ্য করা হবে না। তাকে প্রতিহত করা ছাত্রলীগের দায়িত্ব।’

এর আগে কোটা সংস্কার নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ায় এক শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

গত ১৫ জুলাই বহিষ্কার হওয়া ওই শিক্ষার্থীর নাম মীর মোহাম্মদ জুনায়েদ। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন বিভাগ এবং মুক্তিযোদ্ধা এমএ হান্নান হলের আবাসিক ছাত্র।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল