গণভবনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় ফিরলে দেশ খেয়ে ফেলবে: প্রধানমন্ত্রী

বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় আসলে দেশকে খেয়ে ফেলবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেখ নোমান
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৭ জুলাই ২০১৮, ১৭:১৪ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২১:১৬
প্রকাশিত: ২৭ জুলাই ২০১৮, ১৭:১৪ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২১:১৬


গণভবনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

(ইউএনবি) বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় আসলে দেশকে খেয়ে ফেলবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

২৭ জুলাই, শুক্রবার গণভবনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

‘তারা যদি আবার ক্ষমতায় ফিরে আসে, তাহলে অতীতের মতো লুটপাট ও দুর্নীতির মাধ্যমে দেশকে খেয়ে ফেলবে; মানুষের ভাগ্যের কোনো পরিবর্তন হবে না। খালেদা জিয়া এতিমদের অর্থ আত্মসাৎ থেকে নিজেকে বিরত রাখতে পারেননি। ক্ষমতায় ফিরে আসলে তারা জনগণকে কিছু দিতে পারবে না, তারা কেবল লুটপাট ও দুর্নীতি করবে’, বলেন শেখ হাসিনা।

বিএনপির সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি-নেত্রী এখন এতিমদের অর্থ আত্মসাতের কারণে কারাগারে রয়েছেন। বিএনপি-জামায়াত শাসনামলের দুর্নীতি ও অর্থপাচারের বিষয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও প্রমাণিত হয়েছে। দেশের জনগণের বিএনপি-জামায়াত জোটের ওপর বিশ্বাস ও আস্থা নেই। এটি প্রমাণিত হয়েছে। ২০০৮ সালের নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় ফেরার পর আওয়ামী লীগ সরকারের ওপর জনগণের আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনে।

আমরা রাজনৈতিক কারণে তাকে (খালেদা জিয়া) কারাগারে রাখিনি। আমরা যদি তা করতে চাইতাম, তাহলে ২০১৩, ২০১৪ সালেই তা করতে পারতাম।’

ব্যক্তিগত লাভের আশায় রাজনীতি করেন না উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যদি কেউ ব্যক্তিগত লাভের জন্য রাজনীতি করে, সেই রাজনীতি দেশকে কিছু দিতে পারে না। সেই ব্যক্তি নিজের জন্য সব কিছু করে। ইতিহাস তাকে ক্ষমা করে না। যদি জনগণের কল্যাণে রাজনীতি করা হয়, তাহলে রাজনীতিবিদরা দেশকে কিছু দিতে পারেন এবং আমরা তা করছি।

আওয়ামী লীগের মূল লক্ষ্য হচ্ছে জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন করা, তার নিজের ভাগ্য নয়। আমি নিজের ভাগ্য গড়তে রাজনীতিতে আসিনি। আমি শুধু এক জিনিস চাই- মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে। সরকার ইতোমধ্যে দেশে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে এবং এটিকে দারিদ্র্যমুক্ত দেশ হিসেবে গড়ে করতে চায়। আমরা সেই লক্ষ্যে কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছি।’

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা আবু কাওসার, সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথ প্রমুখ।

প্রিয় সংবাদ/আজহার