বাংলাদেশ এ দলের হয়ে বর্তমানে আয়ারল্যান্ড সফরে রয়েছেন তাসকিন আহমেদ। ছবি: সংগৃহীত

নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নে দ্রুত সমাধান চান তাসকিন

সাধারণ জনগণের সঙ্গে বিভিন্ন অঙ্গনের তারকারাও সমর্থন জানাচ্ছেন। তালিকা থেকে বাদ যাননি ক্রিকেটাররাও।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৪ আগস্ট ২০১৮, ১২:৪০ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৩:৩২


বাংলাদেশ এ দলের হয়ে বর্তমানে আয়ারল্যান্ড সফরে রয়েছেন তাসকিন আহমেদ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) সারিবদ্ধভাবে চলছে যানবাহন, প্রতিটি মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট। প্রতিটি গাড়ি থামিয়ে যাচাই করা হচ্ছে ড্রাইভিং লাইসেন্স থেকে শুরু করে গাড়ির ফিটনেস। নিশ্চিত করা হচ্ছে মোটরসাইকেল চালকের হেলমেট, প্রাইভেটকার চালকের সিটবেল্ট। তবে এসব কাজ ট্রাফিক পুলিশ কিংবা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নয়, করছেন রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্কুল-কলেজে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যেটা করেনি, সেটাই করে দেখিয়েছেন স্কুল-কলেজগামী ছাত্রছাত্রীরা। গত ছয় দিন ধরে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের এসব কর্মকাণ্ড মুগ্ধতা ছড়িয়েছে দেশব্যাপী। ক্রমেই এই আন্দোলনের ব্যপ্তি বাড়ছে, সমর্থন বাড়ছে। সাধারণ জনগণের সঙ্গে বিভিন্ন অঙ্গনের তারকারাও সমর্থন জানাচ্ছেন। তালিকা থেকে বাদ যাননি ক্রিকেটাররাও।

মুমিনুল হক-সাকিব আল হাসান-সাব্বির রহমানদের পর এই তালিকায় সর্বশেষ নাম তাসকিন আহমেদ। বর্তমানে বাংলাদেশ এ দলের সঙ্গে আয়ারল্যান্ড সফরে রয়েছেন ডানহাতি এই পেসার। সেখান থেকেই সামাজিক যোগাযগেরমাধ্যম ফেসবুকে নিজের অফিশিয়াল পেজে ৯ দফা দাবিতে আন্দোলনরত কোমলমতি শিক্ষার্থীদের সমর্থন জানিয়েছেন তাসকিন।

ফেসবুকে দেওয়া সেই পোস্টে তাসকিন লিখেছেন, ‘আসসালামু আলাইকুম। আশা করি ভালো আছেন সবাই, আমি এখন বাংলাদেশ এ দলের হয়ে আয়ারল্যান্ডে অবস্থান কর।

আমি আমার ইয়াং ফ্যানসদের উদ্দেশ্যে কিছু, বলতে চাই।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাস চাপায় দুই স্কুল শিক্ষার্থী দিয়া ও আবদুল করিম নিহত হওয়ার খবরের ঘটনায় আমি অনেক মর্মাহত ছিলাম। ব্যাপাটি আমার খুব খারাপ লাগে। কিন্তু যখন দেখলাম তার সহপাঠী থেকে শুরু করে সারাদেশের ছাত্রছাত্রীরা দোষীদের শাস্তি দাবি ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেছে, তখন গর্ববোধ করেছি। আমি যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে দেখেছি, তারা কিভাবে আমাদের কিছু ভুল ভ্রান্তি চোখে দেখিয়ে দিয়েছে৷ আমাদের প্রত্যেক নাগরিকের উচিত আইন মেনে চলা। আমি তোমাদের সাধুবাদ জানাই এবং আশা করি নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নে কর্তৃপক্ষ যথাযর্থ পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। এর মাধ্যমে খুব দ্রুত সমাধান হবে।

সুশৃংখল ও সুন্দর বাংলাদেশ কামনা করি। বাংলাদেশের সকলের জন্য রইলো দোয়া ও ভালোবাসা।’

২৯ জুলাই, রবিবার রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট থানা এলাকায় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান শহিদ রমিজ উদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম। আহত হয়েছেন ১২ জন।

এই ঘটনায় জড়িতদের বিচার ও গণপরিবহনের চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স নিশ্চিত করাসহ ৯ দফা দাবিতে গেল কয়েক দিন ধরে ঢাকার বিভিন্ন রাজপথে সোচ্চার শিক্ষার্থীরা।

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
ফিফার বর্ষসেরাও লুকা মদ্রিচ
প্রিয় ডেস্ক ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হাতুরুসিংহের কারণে অবসরে যাচ্ছেন ম্যাথুস!
মুশাহিদ মিশু ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
‘কৃতিত্ব অবশ্যই মুস্তাফিজের প্রাপ্য’
মুশাহিদ মিশু ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় | কালের কণ্ঠ
বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় | কালের কণ্ঠ
কালের কণ্ঠ - ১২ ঘণ্টা আগে
ট্রেন্ডিং