গ্রেফতারকৃত শিক্ষার্থীদের আদালতে নেওয়া হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ ছাত্র কারাগারে

নিরাপদ সড়কের দাবিতে করা আন্দোলনের সময় পুলিশের ওপর হামলা ও ভাঙচুরের দুই মামলায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ ছাত্রকে দুই দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ০৯ আগস্ট ২০১৮, ১৮:৫৭ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৩:০০
প্রকাশিত: ০৯ আগস্ট ২০১৮, ১৮:৫৭ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৩:০০


গ্রেফতারকৃত শিক্ষার্থীদের আদালতে নেওয়া হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের সময় পুলিশের ওপর হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় করা দুই মামলায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ ছাত্রকে দুই দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

৯ আগস্ট, বৃহস্পতিবার ঢাকার মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার কারাগারে পাঠানোর এ আদেশ দেন।

এর আগে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে আলাদা দুই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (আইও) ২২ ছাত্রকে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্ররা বিভিন্ন আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক জামিনের আবেদন খারিজ করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে গত ৭ আগস্ট ঢাকার মহানগর হাকিম আবদুল্লাহ আল মাসুদ ২২ ছাত্রকে দুই মামলায় রিমান্ডে পাঠান।

রিমান্ডে নেওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ইস্ট ওয়েস্ট, নর্থ সাউথ, সাউথ ইস্ট ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রয়েছেন। এর মধ্যে বাড্ডা থানার এক মামলায় ১৪ জন, ভাটারা থানায় আরেক মামলায় আসামি আটজন।

বাড্ডা থানার মামলায় আসামিরা হলেন রিসালাতুল ফেরদৌস, রেদোয়ান আহমেদ, রাশেদুল ইসলাম, বায়েজিদ, মুশফিকুর রহমান, ইফতেখার আহম্মেদ, রেজা রিফাত আখলাক, এ এইচ এম খালিদ রেজা, তারিকুল ইসলাম, নূর মোহাম্মাদ, সীমান্ত সরকার, ইকতিদার হোসেন, জাহিদুল হক ও হাসান।

ভাটারা থানার মামলার আসামিরা হলেন আজিজুল করিম, মাসাদ মরতুজা বিন আহাদ, ফয়েজ আহম্মেদ আদনান, সাবের আহম্মেদ, মেহেদী হাসান, শিহাব শাহরিয়ার, সাখাওয়াত হোসেন ও আমিনুল এহসান।

প্রিয় সংবাদ/নোমান/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...