কাজী নওশাবা আহমেদ। ছবি: সংগৃহীত

আবার রিমান্ডে অভিনেত্রী নওশাবা

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

শেখ নোমান
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১০ আগস্ট ২০১৮, ১৯:০১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১১:৪৮


কাজী নওশাবা আহমেদ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

১০ আগস্ট, শুক্রবার শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আমিরুল হায়দার তার জামিন নামঞ্জুর করে দুই দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

চার দিনের রিমান্ড শেষে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের ইন্সপেক্টর ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম শুক্রবার নওশাবাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছাত্রদের ওপর হামলার গুজব ছড়ানোয় গত ৪ আগস্ট রাতে উত্তরা থেকে নওশাবাকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) একটি দল।

ফেসবুক লাইভে এসে নওশাবা দাবি করেন, ‘আমি কাজী নওশাবা আহমেদ, আপনাদের জানাতে চাই। একটু আগে জিগাতলায় আমাদেরই ছোট ভাইদের একজনের চোখ তুলে ফেলা হয়েছে এবং দুইজনকে মেরে ফেলা হয়েছে। আপনারা সবাই একসঙ্গে হোন প্লিজ। ওদেরকে প্রোটেকশন দেন, বাচ্চাগুলো আনসেভ অবস্থায় আছে, প্লিজ। আপনারা রাস্তায় নামেন, প্লিজ রাস্তায় নামেন, প্লিজ রাস্তায় নামেন এবং ওদেরকে প্রোটেকশন দেন।

সরকার প্রোটেকশন দিতে না পারলে আপনারা মা-বাবা, ভাই-বোন হয়ে বাচ্চাগুলোকে প্রোটেকশন দেন, এটা আমার রিকোয়েস্ট। এ দেশের মানুষ—নাগরিক হিসেবে আপনাদের কাছে রিকোয়েস্ট করছি যে, জিগাতলায় একটি স্কুলে একটি ছাত্রের চোখ তুলে ফেলা হয়েছে এবং দুইজনকে মেরে ফেলা হয়েছে এবং ওদের অ্যাটাক করা হয়েছে। ছাত্রলীগের ছেলেরা সেটা করেছে। প্লিজ ওদের বাঁচান, প্লিজ। তারা জিগাতলায় আছে।’

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট