তাসকিন আহমেদ। ছবি: এএফপি

তাসকিনের পুরনো ইনজুরির ওপর নতুন আঘাত

তাসকিন জানান, সপ্তাহখানেকের মধ্যে তার হাতের সেলাই খোলা হবে। এরপর আবারও সেই পুনর্বাসন শুরু করবেন।

সামিউল ইসলাম শোভন
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২ আগস্ট ২০১৮, ১৯:০৮ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০০:১৬


তাসকিন আহমেদ। ছবি: এএফপি

(প্রিয়.কম) ইনজুরি কাটিয়ে আয়ারল্যান্ড সফর করেছিলেন বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের ফাস্ট বোলার তাসকিন আহমেদ ফিরলেন সেই সেরে যাওয়া ইনজুরিতে নতুন আঘাত নিয়ে। এমন অবস্থায় নিজের ভাগ্যকে দোষ দিচ্ছেন তিনি।

রবিবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তাসকিন জানান, আইরিশদের বিপক্ষে খেলতে গিয়ে পুরনো জায়গায় নতুন করে চোট পেয়েছেন তিনি।

তাসকিন বলেন, ‘আমার পিঠে মেজর ইনজুরি ছিল। এর মধ্যেই অনুশীলনের মাঝখানে আমার হাত ফেটে গিয়েছিল, তখন সাতটা সেলাই লেগেছিল। হাত শুকানোর পর আয়ারল্যান্ডে যায়। তখন আবার ব্যাক ইনজুরি সমস্যা করছিল। পরে ব্যথা সেরা যাওয়ার পর ফিটনেস টেস্ট দিয়ে চার নম্বর ওয়ানডেটা খেলতে পেরেছিলাম, পাঁচ ওভার বল করেছিলাম। একই ম্যাচে থার্ডম্যানে ফিল্ডিংয়ের সময় বল থ্রো করতে গিয়ে হাতটা আবার ফেটে যায়।’

‘আগেরবার হাতে সাতটা সেলাই লেগেছিল, এবার দুইটি সেলাই। হাতের তালুর দিকটায় বল লেগে ফেটে গিয়েছে। এটা আসলে আমার দুর্ভাগ্য বলা যায়। একই জায়গায় আগে ব্যথা পেয়েছিলাম, এখন আবার সেই জায়গাতেই ফাটল। এটা খুবই দুঃখজনক। আমি সাড়ে পাঁচ-ছয় মাস পর খেলতে নামলাম। এরপর আবার হাতের ইনজুরিতে পড়তে হলো। কিন্তু কিছু করার নেই আসলে। সামনে অনেক খেলা আছে, যদি হাত ঠিক হয় তাহলে সুযোগের অপেক্ষায় থাকব।’

তাসকিন জানান, সপ্তাহখানেকের মধ্যে তার হাতের সেলাই খোলা হবে। এরপর আবারও সেই পুনর্বাসন শুরু করবেন। তবে তাসকিনের মূল সমস্যা ছিল পিঠের ইনজুরি। তরুণ এই ফাস্ট বোলারের দাবি, সেটা প্রায় সেরে উঠেছেন তিনি।

আয়ারল্যান্ডে আনফিট হয়ে যাননি বলেও উল্লেখ করেন তাসকিন।  

দলের ভবিষ্যৎ পেস আক্রমণের অন্যতম নেতা ভাবা হচ্ছিল তাসকিনকে। কিন্তু সেই তাসকিন ইনজুরিতে পড়ে একরকম বিপাকে। নিজের তো আফসোস হচ্ছেই, পাশাপাশি তাকে নিয়ে কাছের মানুষদের আফসোস মানসিকভাবে আরও ভোগাচ্ছে তাকে।

তাসকিন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমার আশেপাশের মানুষদেরই আফসোস হচ্ছে। আমার কথা না হয় বাদ দিলাম। পরিবারের সদস্য থেকে শুরু করে বন্ধুরা; সবাই আফসোস করছে। আমার কেমন অনুভব হচ্ছে, সেটা আমি ভালো জানি। তবে এসব জীবনের অংশ। আর আহামরি কিছু তো হয়ে যাইনি। বয়স আছে সামনে ভালো করার। তবে বলতে চাই না সামনে আমার অনেক সময় আছে। পেস বোলার হিসেবে আমাদের প্রতিটা মাস গুরুত্বপূর্ণ। এই সময়টা চলে গেলে আর ফিরে পাওয়া যায় না। আমি চাই সব সময় খেলার মধ্যে থাকতে, ভালো করতে। কিন্তু শেষ এক বছর ধরে ইনজুরি নিয়ে খেলে যাচ্ছি, সব মিলিয়ে একটু খারাপ গেল। এখন ভালো সময়ের অপেক্ষায় আছি।’

প্রিয় খেলা/শান্ত  

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
ফিফার বর্ষসেরাও লুকা মদ্রিচ
প্রিয় ডেস্ক ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হাতুরুসিংহের কারণে অবসরে যাচ্ছেন ম্যাথুস!
মুশাহিদ মিশু ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
‘কৃতিত্ব অবশ্যই মুস্তাফিজের প্রাপ্য’
মুশাহিদ মিশু ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
২৫ সেপ্টেম্বর: আজকের খেলা
২৫ সেপ্টেম্বর: আজকের খেলা
যুগান্তর - ২৪ মিনিট আগে
বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় | কালের কণ্ঠ
বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় | কালের কণ্ঠ
কালের কণ্ঠ - ১২ ঘণ্টা আগে
ট্রেন্ডিং