প্রতীকী ছবি

মিনিটপ্রতি কলচার্জ ১০ পয়সা করার দাবি

‘কলরেট বিষয়ে বিটিআরসির ভাষ্য শুনলে মনে হয়, তারা মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলোর মুনাফা বাণিজ্যের অংশীদার বৈ কিছু নয়।’

রাকিবুল হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৬:৪৮ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২৩:৩২
প্রকাশিত: ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৬:৪৮ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২৩:৩২


প্রতীকী ছবি

(প্রিয়.কম) প্রতি মিনিটে ১০ পয়সা হারে ভয়েস কলচার্জ করার দাবি জানিয়েছে ‘সিটিজেন রাইটস মুভমেন্ট’ নামে একটি সংগঠন। সম্প্রতি বিটিআরসির নির্দেশে মোবাইলের জন্য প্রতি মিনিট সর্বোচ্চ ২ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা ট্যারিফ নির্ধারণের প্রতিবাদের পাশাপাশি এ দাবি জানায় সংগঠনটি।

১৮ আগস্ট, শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে কলচার্জ কমানোসহ আরও ৭টি দাবি উপস্থাপন করেন সংগঠনটির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সমালোচনা করে বলা হয়, দেশের মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোকে ‘মানুষের গলা কেটে’ ব্যবসা করার সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে সিটিজেন রাইটস মুভমেন্টের মহাসচিব তুষার রেহমান বলেন, ‘কলরেট বিষয়ে বিটিআরসির ভাষ্য শুনলে মনে হয়, তারা মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলোর মুনাফা বাণিজ্যের অংশীদার বৈ কিছু নয়।’ 

সংবাদ সম্মেলনে মোবাইল ফোন অপারেটরদের বিরুদ্ধে অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসার অভিযোগ তুলে তা তদন্তের দাবি জানানো হয়। দুই দশকে মোবাইল ফোন অপারেটররা কত টাকা বিদেশে নিয়েছে, তা নিয়ে একটি শ্বেতপত্র প্রকাশেরও দাবি জানানো হয়।

এদিন সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘ভয়েস কলরেট বৃদ্ধির প্রতিবাদে মানববন্ধন’ অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন করে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা।

মানববন্ধনে সংগঠনটির সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন গ্রাহকদের স্বার্থ বিবেচনায় না নিয়ে শুধু অপারেটরদের স্বার্থ বিবেচনা করে ভয়েস কলের ফ্লোর রেটের কলরেট ২৫ পয়সা থেকে বৃদ্ধি করে ৪৫ পয়সা নির্ধারণ করেছে।

আমরা মনে করি, এ ধরনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করার পূর্বে গ্রাহকদের মতামত নেওয়া উচিত ছিল। কারণ বর্তমানের এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের ফলে গ্রাহকদের ব্যয় বৃদ্ধি পাবে বৈ কমবে না। এর জন্য কমিশন প্রয়োজনে গণশুনানি করতে পারত। তা না করে তাদের নেওয়া সিদ্ধান্ত গ্রাহককে মানতে বাধ্য করা একটি অগণতান্ত্রিক ও অনৈতিক সিদ্ধান্ত।’

প্রিয় প্রযুক্তি/শান্ত 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...