চোট পেয়ে মাঠ ছাড়ছেন সাকিব আল হাসান। ছবি: প্রিয়.কম

এশিয়া কাপে খেলছেন সাকিব, অস্ত্রোপচার অক্টোবরে

দেশে ফিরে মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চলমান জাতীয় দলের প্রস্তুতি ক্যাম্পে যোগ দেবেন সাকিব।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৯ আগস্ট ২০১৮, ২০:০৯ আপডেট: ২৯ আগস্ট ২০১৮, ২০:১০


চোট পেয়ে মাঠ ছাড়ছেন সাকিব আল হাসান। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে বাংলাদেশ দল ফিরেছে গেল ৯ আগস্ট। দেশে ফেরার পরই অনিশ্চয়তা দেখা দেয় এশিয়া কাপে সাকিব আল হাসানের খেলা নিয়ে। সম্ভব হলে এশিয়া কাপের আগেই বাম হাতের কনিষ্ঠ আঙুলের অস্ত্রোপচার করানোর কথা জানান বিশ্বের অন্যতম সেরা এ অলরাউন্ডার। আর সেটা হলে সাকিবকে ছাড়াই এশিয়া কাপে খেলতে হতো বাংলাদেশকে।

এদিকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানিয়েছে, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হতে যাওয়া এশিয়া কাপে অংশ নিচ্ছেন সাকিব। তার আঙুলের অস্ত্রোপচার করানো হচ্ছে এশিয়া কাপের পর। চলতি বছরের অক্টোবরে সাকিবের অস্ত্রোপচার করানোর কথা জানানো হয়েছে বিসিবির পক্ষ থেকে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফেরার তিন দিন পর পবিত্র হজ পালন করতে সৌদি আরব যান সাকিব। আজই (২৯ আগস্ট, বুধবার) বাংলাদেশ সময় বেলা ২টায় দেশে ফেরার কথা ছিল তার। কিন্তু ফ্লাইট বিড়ম্বনায় সময়মতো ঢাকায় আসা হয়নি সাকিবের।

জানা গেছে, রাত ৯টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। বিসিবি জানিয়েছে, দেশে ফিরে মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চলমান জাতীয় দলের প্রস্তুতি ক্যাম্পে যোগ দেবেন সাকিব।

এর আগে সাকিবকে রেখেই ৩১ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াড ঘোষণা করে বিসিবি। কিন্তু সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে ছাড়াই গেল ২৭ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে প্রস্তুতি ক্যাম্প। হজ পালন করতে সৌদি আরব অবস্থান করায় ক্যাম্পের শুরুতে যোগ দিতে পারেননি সাকিব। অন্যদিকে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) খেলতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ থাকায় চলমান ক্যাম্পে নেই মাহমুদউল্লাহ।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত ত্রি‌দেশীয় সিরিজের ফাইনালে ফিল্ডিংয়ের সময় বাম হাতের কনিষ্ঠ আঙুলে ব্যথা পান সাকিব। ইনজুরিতে প্রায় এক মাস মাঠের বাইরে ছিলেন বাংলাদেশের বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার। সেই ইনজুরির কারণে ঘরের মাঠে লঙ্কানদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজটা খেলা হয়নি। শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফির প্রথম তিনটি ম্যাচেও খেলতে পারেননি বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার।

প্রায় ছয় মাস আগে পাওয়া বাম হাতের কনিষ্ঠ আঙুলের ইনজুরি এখনো ভোগাচ্ছে সাকিবকে। চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরলেও পুরনো ব্যথা ফিরে এসেছে আবার। বোলিংটা ঠিকঠাক করতে পারলেও সমস্যা হচ্ছে ব্যাটিংয়ে। ক্যারিবীয়দের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে তাকে খেলতে হয়েছে ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়ে।

ইনজুরি কাটিয়ে উঠতে অস্ত্রোপচার ছাড়া গতি নেই। এ ধরনের অস্ত্রোপচারের পর মাঠে ফিরতে সাধারণত ছয় সপ্তাহ সময় লাগে। যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরে সাকিব জানিয়েছিলেন, যত দ্রুত সম্ভব অস্ত্রোপচার করিয়ে ফেলতে চান। সম্ভব হলে সেটা এশিয়া কাপের আগেই। কিন্তু এশিয়া কাপের আগে অস্ত্রোপচার করানোর পক্ষে ছিলেন না বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এশিয়া কাপ শেষ করে তবেই অস্ত্রোপচার করাতে চাইছিলেন তিনি।

প্রিয় খেলা/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
‘ডাবল সেঞ্চুরি একা করা যায় না’
মুশাহিদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
‘মিরাজ খুব মজার একটা চরিত্র’
শান্ত মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
যে তালিকায় সবার উপরে মুশফিক
মুশাহিদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
নির্ভীক মুশফিকে বাংলাদেশের শাসন
শান্ত মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
অনবদ্য ডাবলে রেকর্ড চূড়ায় মুশফিক
সৌরভ মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট