বাংলাদেশি অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ছবি:সংগৃহীত

রিয়াদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সেন্ট কিটসের বড় জয়

গত ম্যাচের অবহেলার জবাব দিতে সময় নেননি বাংলাদেশি এই অলরাউন্ডার।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:২৬ আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:২৬


বাংলাদেশি অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ছবি:সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) এই তো আগের ম্যাচেই ব্যাটিংয়ে যেন উপেক্ষাই করা হচ্ছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে। ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ২০০ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে একের পর এক উইকেটের পতন ঘটতে থাকলেও ব্যাটিংয়ে দেখা মিলছিল না তার। শেষ পর্যন্ত ১৯তম ওভারে সপ্তম উইকেটের পতনের পরে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে এসেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। গত ম্যাচের এমন অবহেলার জবাব দিতে যেন সময় নেননি বাংলাদেশি এই অলরাউন্ডার।

৩ সেপ্টেম্বর, সোমবার ভোরে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) নিজেদের নবম ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেতেই সেই অবহেলার দাঁতভাঙা জবাব দিলেন রিয়াদ। ব্যাট হাতে তুললেন ঝড়। মাত্র ১১ বলে দুই ছক্কা ও সমান সংখ্যক চারের মারে রিয়াদ খেলেন ২৮ রানের এক হার না মানা ঝড়ো ইনিংস। ডুসেনের সঙ্গে গড়েন ৪৭ রানের জুটিও। ফলাফল, জ্যামাইকা তালাওয়াশের বিপক্ষে বৃষ্টি আইনে সাত উইকেটে জয় তুলে নিয়েছে সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস।

এদিন সেইন্ট কিটসের বাসসেতেরেতে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ২০৬ রান সংগ্রহ দাঁড় করায় জ্যামাইকা তালাওয়াশ। দলের পক্ষে ৪০ বল খেলে সর্বোচ্চ ৮৪ রান করেন রভম্যান পাওয়েল। ২৯ বল খেলে ৪০ রান করেন গ্লেন ফিলিপস আর ২০ বল খেলে ৩২ রান করেন ডেভিড মিলার। সেন্ট কিটসের বোলারদের মধ্যে বেন কাটিং ২টি ও অ্যালেন-ব্র্যাথওয়েট-আলজারি যোসেফ নেন একটি করে উইকেট।

২০৭ রানের জবাবে খেলতে নেমে শুরুতে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার এভিন লুইস। তবে আরেক ওপেনার ক্রিস গেইল দলের রানের চাকা ঘুরাতে থাকেন। অবশ্য ৬.৩ ওভার খেলা হওয়ার পর বৃষ্টি নামে। বৃষ্টির পর খেলা শুরু হলে প্যাট্রিয়টসদের নতুন লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১১ ওভারে ১১৮ রান। ক্রিস গেইল-ভ্যান ডের ডুসেনের ব্যাটে জয়ের পথেই হাঁটছিল সেন্ট কিটস। কিন্ত সপ্তম ওভারে ঘটে ছন্দপতন। ৪১ রানে সাজঘরে ফেরেন গেইল।

পরের ওভারের প্রথম বলে জাম্পার শিকারে পরিণত হন চার নম্বরে নামা বেন কাটিংও। এরপর ক্রিজে আসেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। জুটি গড়েন ডুসেনের সঙ্গে। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং উপহার দিতে থাকেন রিয়াদ। অপর প্রান্তে ঝড় তোলেন ডুসেনও। মাত্র ১৮ বলে ৪৭ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যায় এই জুটি। ২৪ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় ৪৫ রানে ডুসেন ও ১১ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ২৮ রান করে অপরাজিত থেকেই মাঠ ছাড়েন রিয়াদ। 

ম্যাচ সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতে নেন ডুসেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

জ্যামাইকা তালাওয়াশ: ২০৬/৬ (২০ ওভার); রভম্যান পাওয়েল ৮৪, ফিলিপস ৪০, মিলার ৩২, বেন কাটিং ২/২৯।

সেইন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস: ১১৮/৩ (১০.১ ওভার); গেইল ৪১, ডুসেন ৪৫, রিয়াদ ২৮, জাম্পা ১/১৮।

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
‘ডাবল সেঞ্চুরি একা করা যায় না’
মুশাহিদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
‘মিরাজ খুব মজার একটা চরিত্র’
শান্ত মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
যে তালিকায় সবার উপরে মুশফিক
মুশাহিদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
নির্ভীক মুশফিকে বাংলাদেশের শাসন
শান্ত মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
অনবদ্য ডাবলে রেকর্ড চূড়ায় মুশফিক
সৌরভ মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
ম্যাচ সেরা হলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
ম্যাচ সেরা হলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
সময় টিভি - ১ মাস, ২ সপ্তাহ আগে
ম্যাচ সেরা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
ম্যাচ সেরা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
জাগো নিউজ ২৪ - ১ মাস, ২ সপ্তাহ আগে