বিমানবন্দরে মাশরাফি বিন মুর্তজা। ছবি: প্রিয়.কম

এশিয়া জয়ের স্বপ্ন নিয়ে দেশ ছাড়ল মাশরাফিবাহিনী

ভিসা জটিলতার কারণে দলের সঙ্গে যেতে পারেননি ওপেনার তামিম ইকবাল ও পেসার রুবেল হোসেন।

শান্ত মাহমুদ
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৩১ আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:১৪


বিমানবন্দরে মাশরাফি বিন মুর্তজা। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) উইন্ডিজ সফরে টেস্ট সিরিজের দুঃসহ যন্ত্রণা ভুলিয়ে দিতে সময় নেয়নি বাংলাদেশ দল। দুঃস্বপ্নের দুই টেস্টের পর ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে রাজত্ব করেছিল বাংলাদেশই। দুটি সিরিজই ওঠে বাংলাদেশের ঝুলিতে। তৃপ্তির ঢেকুর তুলে দেশে ফেরা বাংলাদেশ এরপর প্রস্তুতি নিয়েছে এশিয়া কাপের। প্রস্তুতির সেই পর্ব শেষ। এবার এশিয়ার ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জয় করার পালা।

এশিয়ার সবচেয়ে জমজমাট এই আসরটিতে অংশ নিতে সন্ধ্যায় দেশ ছেড়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। রবিবার এমিরেটসের সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার সরাসরি ফ্লাইটে উড়াল দিয়েছে বাংলাদেশ দল। বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় আরব আমিরাতে পৌঁছানোর কথা মাশরাফিবাহিনীর।

১৬ সদস্যের দল হলেও ১৩ জন ক্রিকেটার দেশ ছেড়েছেন। ভিসা জটিলতার কারণে দলের সঙ্গে যেতে পারেননি ওপেনার তামিম ইকবাল ও পেসার রুবেল হোসেন। পরিবারের সঙ্গে থাকা সাকিব আল হাসান যুক্তরাষ্ট্র থেকে সরাসরি দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) খেলে দেশে ফেরা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দলের সঙ্গে আরব আমিরাত যাচ্ছেন। 

তামিম ও রুবেলের মতো ভিসা জটিলতার কারণে দলের সঙ্গে যেতে পারছেন না প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও শেষ মুহূর্তে এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পাওয়া খালেদ মাহমুদ সুজন।    

আগের তিন এশিয়া কাপের দুটিতেই ফাইনাল খেলায় এবারও বাংলাদেশকে নিয়ে প্রত্যাশার শেষ নেই। এছাড়া দলও দারুণ ছন্দে। দলের ক্রিকেটাররা বিশ্বাস করেন, এশিয়া কাপ জেতার সামর্থ্য তাদের আছে। তবে এই পথে শঙ্কার তৈরি হয়েছে দলের কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্যের ইনজুরির কারণে।

সাকিব আল হাসানের আঙুলে আগে থেকেই চোট। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডারের দাবি অনুসারে এই মুহূর্তে তিনি ২০-৩০ ভাগ ফিট। তামিম ইকবাল ও নাজমুল হোসেন শান্তরও আঙুলে চোট। প্রথম দিকের ম্যাচে এই তিনজনের খেলা নিয়ে শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। শেষপর্যন্ত এই তিনজন খেলতে না পারলে কঠিন পরীক্ষার মুখোমুখিই হতে হবে বাংলাদেশকে।

এবারের এশিয়া কাপ ভিন্ন ফরম্যাটে অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমবারের মতো ছয় দলের অংশগ্রহণের এই টুর্নামেন্টে দুটি গ্রুপ করা হয়েছে। দুই গ্রুপের সেরা দুই দল সুপার ফোরে। এই রাউন্ডে একটি দল প্রতিটি দলের বিপক্ষে খেলবে। সুপার ফোরের সেরা দুই দল ফাইনালে উঠবে। গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান। উদ্বোধনী ম্যাচে ১৫ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

এশিয়া কাপে বাংলাদেশের স্কোয়াড: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, মোহাম্মদ মিথুন, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহিম, আরিফুল হক, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল হোসেন অপু, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, আবু হায়দার রনিমুমিনুল হক

প্রিয় খেলা/শান্ত মাহমুদ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
‘ডাবল সেঞ্চুরি একা করা যায় না’
মুশাহিদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
‘মিরাজ খুব মজার একটা চরিত্র’
শান্ত মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
যে তালিকায় সবার উপরে মুশফিক
মুশাহিদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
নির্ভীক মুশফিকে বাংলাদেশের শাসন
শান্ত মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
অনবদ্য ডাবলে রেকর্ড চূড়ায় মুশফিক
সৌরভ মাহমুদ ১২ নভেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট