বাবা-মায়ের সঙ্গে মাগুরা জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জায়েদ বিন জামান। ছবি: প্রিয়.কম

শিক্ষকের প্রহারে ছাত্র হাসপাতালে

‘ছেলে মারপিটের বিষয়টি আমাদের কাছে গোপন রাখে। কিন্তু রাতে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে আমরা বিষয়টি বুঝতে পেরে দ্রুত মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করি।’

মো. ইমাম জাফর
কন্ট্রিবিউটর, মাগুরা
প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৫৩ আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৫৩


বাবা-মায়ের সঙ্গে মাগুরা জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জায়েদ বিন জামান। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) মাগুরায় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় উচ্চারণগত ত্রুটি ও তোতলামি করায় ক্ষুব্ধ হয়ে নবম শ্রেণির এক অসুস্থ ছাত্রকে পিটিয়ে আহত করেছেন এক শিক্ষক।

১১ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার মাগুরা সরকারি বালক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্র বর্তমানে মাগুরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

আহত ছাত্রের নাম জায়েদ বিন জামান। জায়েদ মাগুরা শহরের আদর্শপাড়ার মুন্সী কায়েমুজ্জামানের ছেলে। 

মুন্সী কায়েমুজ্জামান বলেন, ‘আমার ছেলে জায়েদ দীর্ঘদিন ধরে টিস্যুজনিত দুর্বলতায় আক্রান্ত। এ কারণে তাকে নিয়মিত ফিজিওথেরাপি দিতে হয়। সঙ্গত কারণে আমি এ বছরের জুলাইয়ে লিখিত দরখাস্তের মাধ্যমে আমার সন্তানকে কোনো কারণেই মারপিট করা থেকে বিরত থাকার আবেদন জানিয়েছিলাম। কিন্তু মঙ্গলবার স্কুলের শিক্ষক মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর প্রশ্নের যথাযথ জবাব দিতে না পারায় আমার ছেলেকে নির্দয়ভাবে মারপিট করেন। ছেলে মারপিটের বিষয়টি আমাদের কাছে গোপন রাখে। কিন্তু রাতে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে আমরা বিষয়টি বুঝতে পেরে দ্রুত মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করি।’ 

মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তিকৃত ছাত্র জায়েদ বিন জামান প্রিয়.কমকে বলে, ‘আমি স্যারের মারের হাত থেকে বাঁচার জন্যে পা জড়িয়ে ধরলেও তিনি আরও মারতে থাকেন আর বলেন, আমি কখন হাসি, কখন রাগী, কারে খুন করে দিতে ইচ্ছা করে তা উপরওয়ালাও জানে না।’

মারপিটের অভিযোগ স্বীকার করে শিক্ষক মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী প্রিয়.কমকে বলেন, ‘ওই ছাত্রের কথাবার্তা আমার কাছে ব্যঙ্গাত্মক বলে মনে হয়েছিল। এ কারণে তাকে শাসন করেছি। তবে সে যে গুরুত্বর অসুস্থ তা আমার জানা ছিল না। এ বিষয়টি আমাকে ব্যথিত করেছে। তাই আমি তাকে (জায়েদ) হাসপাতালে গিয়ে দেখে এসেছি।’

প্রিয় সংবাদ/আজাদ/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
আমলনামার ভিত্তিতেই নির্বাচনে মনোনয়ন: ওবায়দুল
জানিবুল হক হিরা ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
চাকরি স্থায়ী হচ্ছে কারিগরির ৩০০ শিক্ষকের
প্রিয় ডেস্ক ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১০ দিন বয়সী নবজাতকের লাশ পুকুরে
মো. ইমাম জাফর ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার দাবি টিআইবির
জানিবুল হক হিরা ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট