সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খান। ছবি: সংগৃহীত

মোরশেদ খান ও তার স্ত্রীকে দুদকে তলব

গত বছরের ২৮ জুন এবি ব্যাংকের ৩৮৩ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এম মোরশেদ খানসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে দুদক।

সফিউল আলম রাজা
প্রধান প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৪৩ আপডেট: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৪৫
প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৪৩ আপডেট: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৪৫


সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খান। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খান ও তার স্ত্রী নাছরিন খানকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)

১৩ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার দুদক থেকে পাঠানো এক নোটিশে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর তাদেরকে দুদক কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানান, দুদকের উপ-পরিচালক শামসুল আলম স্বাক্ষরিত চিঠিতে মোরশেদ খান ও তার স্ত্রীকে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর দুদক কার্যালয়ে তলব করা হয়েছে।

এর আগে গত বছরের ২৮ জুন এবি ব্যাংকের ৩৮৩ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে বিএনপি নেতা ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খানসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে দুদক। উপ-পরিচালক শেখ আবদুস ছালাম বাদী হয়ে বনানী থানায় এই মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেন, এম মোরশেদ খানের প্রতিষ্ঠান প্যাসিফিক টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেড (পিবিটিএল) কোনো নিয়ম-কানুন ছাড়াই এবং অসৎ উদ্দেশ্যে এবি ব্যাংকের চারটি বোর্ড সভায় জামানত ছাড়াই ব্যাংক গ্যারান্টি পায়। এর সঙ্গে এবি ব্যাংকের কর্মকর্তারাও জড়িত ছিল। এই গ্যারান্টি ব্যবহার করে পিবিটিএল আটটি ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে সহায়ক জামানত দেখিয়ে ঋণ নিয়েছে।

উল্লিখিত ঘটনার সার্বিক বিশ্লেষণে এটাই প্রমাণিত হয় যে, এম মোরশেদ খান অন্যায়ভাবে আর্থিক লাভের জন্য প্রতারণা, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার ও অপরাধজনক বিশ্বাস ভঙ্গের মাধ্যমে প্যাসিফিক টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ব্যাংক গ্যারান্টির আবেদন করলেও তা কোনো প্রকার যাচাই-বাছাই করা হয়নি।

প্রিয় সংবাদ/হাসান/শান্ত 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...