ব্যান্ডেজ করা হাতে এভাবেই গ্লাভস কেটে তামিম ইকবালকে পরিয়ে দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। ছবি: সংগৃহীত

‘তামিম ইকবাল এখন একটা নাম না, একটা অনুপ্রেরণা’

অদম্য সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে মাঠে নামা তামিম যেন এক মুহূর্তেই বিশ্বের কোটি ক্রিকেটভক্তের মন জয় করে নিলেন।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৬:২২
আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৬:২২


ব্যান্ডেজ করা হাতে এভাবেই গ্লাভস কেটে তামিম ইকবালকে পরিয়ে দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) তামিম ইকবাল। দলের প্রয়োজনে রঙিন জার্সিতে তিনি যতটা বিধ্বংসী, সাদা পেশাকে আবার ততটাই ধৈর্যশীল এই বাঁহাতি ওপেনার। দলের প্রয়োজনটাই শেষ কথা তার কাছে। যার প্রমাণ আরও একবার পাওয়া গেল এশিয়া কাপের ১৪তম আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে।

এশিয়া কাপ শুরুর আগেই আঙুলে চোটের কারণে প্রথম ম্যাচে নামা নিয়ে ছিল শঙ্কা। অবশ্য সব আশঙ্কাকে উড়িয়ে প্রথম ম্যাচেই নামলেন ব্যাটিংয়ে। কিন্তু মাত্র তিন বল খেলেই কবজিতে চোট পেয়ে চলে গেলেন মাঠের বাইরে। স্ক্যান রিপোর্টে জানা গেল, বাঁ হাতের কবজিতে চিড় ধরেছে বাঁহাতি এই ওপেনারের। শুধু ম্যাচই না, অনিশ্চিত এশিয়া কাপও। টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকেও জানানো হয়, এদিন আর মাঠে নামছেন না তামিম।

৪৭তম ওভারে মুস্তাফিজুর রহমান রান আউটের শিকার হন। সে সময় হঠাৎ করেই সাহসী এক সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন তামিম। এক হাতে ব্যান্ডেজ বাঁধা গ্লাভস, আরেক হাতে ব্যাট নিয়ে নেমে এলেন মাঠে। সে সময় মাঠে থাকা মুশফিকের মতোই চমকে যায় ক্রিকেট-বিশ্বও। রচিত হয়ে গেল এক বীরত্বগাঁথা। অদম্য সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে মাঠে নামা তামিম যেন এক মুহূর্তেই বিশ্বের কোটি ক্রিকেটভক্তের মন জয় করে নিলেন।

এমন দৃশ্য ক্রিকেটপ্রেমীদের হৃদয়ে গেঁথে থাকবে আজীবন। ছবি: সংগৃহীত

শুধু মাঠে নামাই নয়, ওই অবস্থায় খেললেন একটি বলও। মুশফিকও যেন তামিমকে পেয়ে পেলেন অনুপ্রেরণা। তুললেন মরুর বুকে ঝড়। সব মিলিয়ে বাংলাদেশের স্কোরকার্ডে ২৬১ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড়ায়। তামিমের এমন সাহসিকতার ম্যাচে অনুপ্রেরণা নিয়েছিলেন বোলাররাও। তাই তো ১২৪ রান করতেই গুটিয়ে যায় লঙ্কানরা। বাংলাদেশ পায় ১৩৭ রানের বড় জয়। ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী ও সংবাদ সম্মেলনে তামিমের ভূয়সী প্রশংসা করেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

বাংলাদেশ অধিনায়কের মতে, নিজের ক্যারিয়ারের ওপর ঝুঁকি নিয়ে দুঃসাহসিক সেই সিদ্ধান্তের কারণে তামিমকে সবাই মনে রাখবে আজীবন। অবশ্য শুধু এতটুকুতেই থামেননি মাশরাফি। ম্যাচের পরদিন ১৬ সেপ্টেম্বর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে একটি পোস্টও করেছেন তিনি। ওই ফেসবুক পোস্টে তামিমকে ‘বড় অনুপ্রেরণার নাম’ হিসেবে আখ্যাও দিয়েছেন মাশরাফি।

ফেসবুক পোস্টে মাশরাফি লিখেছেন, ‘দেশের জন্য তামিমের এমন দৃষ্টান্ত মানুষ কখনো ভুলবে না। তামিম ইকবাল এখন একটা নাম না, তামিম এখন একটা অনুপ্রেরণা। বাংলাদেশ যখন ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে, ঠিক তখনি হাল ধরেন মি. ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম ও মিঠুন। তাদের দুজনের ব্যাটে ভর করে বাংলাদেশ পায় বড় সংগ্রহ। মুশিকে অভিনন্দন ১৪৪ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলার জন্য। বিশেষ ধন্যবাদ জানাই দুবাইয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিদের, যারা আমাদের এত ভালবাসা দিয়েছে, তাদের সমর্থনের মাধ্যমে। আমার দেশের সকলের প্রতি রইল আমাদের অনেক ভালোবাসা। আমরা চেষ্টা করব, আরও ভালো খেলে আপনাদের ভালো কিছু উপহার দিতে।’

প্রিয় খেলা/শান্ত 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে ইউনিসেফ
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
খরুচে রুবেলের পাশে মাশরাফি
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
‘অপুর ফ্লাডলাইটে বল দেখতে সমস্যা হচ্ছিল’
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
খরুচে রুবেলের পাশে মাশরাফি
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
‘অপুর ফ্লাডলাইটে বল দেখতে সমস্যা হচ্ছিল’
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
যে কারণে শেষ ওভারে মাহমুদউল্লাহ
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
মধুর হলো না অনেক উপলক্ষের ম্যাচ
শান্ত মাহমুদ ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
সবাইকে ছাড়িয়ে তামিম-মুশফিক জুটি
মুশাহিদ ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে ইউনিসেফ
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
খরুচে রুবেলের পাশে মাশরাফি
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
‘অপুর ফ্লাডলাইটে বল দেখতে সমস্যা হচ্ছিল’
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
যে কারণে শেষ ওভারে মাহমুদউল্লাহ
সৌরভ মাহমুদ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮
মধুর হলো না অনেক উপলক্ষের ম্যাচ
শান্ত মাহমুদ ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
ক্যাটস আইয়ের শুভেচ্ছাদূত হলেন তামিম ইকবাল
ক্যাটস আইয়ের শুভেচ্ছাদূত হলেন তামিম ইকবাল
বাংলা ট্রিবিউন - ২ সপ্তাহ, ২ দিন আগে
লন্ডনে গেলেন তামিম ইকবাল | খেলাধুলা
লন্ডনে গেলেন তামিম ইকবাল | খেলাধুলা
ইত্তেফাক - ২ মাস, ২ সপ্তাহ আগে