রাজধানী ঢাকায় বিকল্প ধারার চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় যুক্তফ্রন্ট-জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক। ছবি: প্রিয়.কম

২৯ সেপ্টেম্বরের পর জাতীয় ঐক্যের কমিটি

‘বর্তমান যে রাজনৈতিক অবস্থা তা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বিএনপির সঙ্গে আমরা অনেক কাছাকাছি এসেছি।’

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:৫৭
আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:৫৭


রাজধানী ঢাকায় বিকল্প ধারার চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় যুক্তফ্রন্ট-জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) আগামী ২৯ সেপ্টেম্বের বিএনপির জনসভার পর বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সম্বনয় কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছে ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে ‍যুক্ত নেতারা।

২৫ সে‌প্টেম্বর, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিকল্প ধারার চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বারিধারার বাসায় যুক্তফ্রন্ট-জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান নেতারা।

বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, ‘দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছি। আর বর্তমান যে রাজনৈতিক অবস্থা তা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বিএনপির সঙ্গে আমরা অনেক কাছাকাছি এসেছি।’

‘মির্জা ফখরুলের প্রতিনিধি জানালেন, ২৯ সেপ্টেম্বর তাদের জনসভা আছে। তাদের অনুরোধের কারণেই তাদের জনসভা পর লিয়াঁজো কমিটি গঠন করা হবে। সেই জনসভার মাধ্যমে আমাদের সঙ্গে ভবিষ্যৎ প্রক্রিয়া কী হবে, তা তারা বলবে। আশাকরি, ভবিষ্যতে আমরা আরও কাছাকাছি হতে পারব।’

বিকল্প ধারার চেয়ারম্যান জানান, বিএনপির প্রস্তাবনা অনুসারে ২৯ সেপ্টেম্বরের পরই লিয়াঁজো কমিটি হবে। এ ব্যাপারে বৈঠকের সবাই একমত হয়েছেন।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি, আমাদের ঐক্য ভারসাম্যের ভিত্তিতে হবে। যারা মুক্তিযুদ্ধের মানচিত্রকে এখনও অস্বীকার করে, তাদের বাদ দিয়ে বাংলাদেশের সবার সঙ্গে ঐক্য কামনা করি।’

বিএনপির সমাবেশে বদরুদ্দোজা চৌধুরী যাবেন কী না, এমন প্রশ্নে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমাকে তো এখনও দাওয়াতই দেওয়া হয়নি। তা ছাড়া জনসভার অনুমতিও তো পায়নি এখনো।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিএনপির প্রতিনিধি দলের ভাইস-চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু সাংবাদিকদের বলেন, ‘স্যার (বি চৌধুরী) সব বলে দিয়েছেন। ২৯ সেপ্টেম্বর আমাদের জনসভা আছে। ওই সমাবেশ থেকে আমাদের দলের পরিকল্পনা জনগণের কাছে তুলে ধরব।’

মাহমুদ টুকু আরও বলেন, ‘গত ২২ সেপ্টেম্বর সমাবেশের মধ্য দিয়ে যে ঐক্য তৈরি হয়েছে, সে ঐক্য প্রক্রিয়া যাতে সফল হয়, সে চেষ্টা আমরা করব।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে জেএসডি আ স ম আবদুর রব বলেন, ‘এখানে জামায়াতের বিষয় না। জামায়াত কি মুক্তিযুদ্ধ করেছে? স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে আমরা ঐক্যে যাব না, আগেই বলেছি।’

এ ছাড়া নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘আমরা স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে ঐক্য করেছি। কোনো স্বাধীনতাবিরোধীদের সাথে ঐক্য করব না।’

মান্না বলেন, ‘আজকে বিএনপির এক জন প্রতিনিধি আসছেন। অবজারভেশন করেছেন। তারা ২৯ তারিখ জনসভা করবেন। এর পর আমরা সমন্বয় কমিটি বলেন, আর লিঁয়াজো কমিটি বলেন তা করে ঐক্য প্রক্রিয়া আরও এগিয়ে নিয়ে যাব।’

তবে শারীরিক অসুস্থতাজনিত কারণে বৈঠকে অংশ নিতে পারেননি ড. কামাল হোসেন।

বৈঠকে অংশ নেন গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না, বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার উমর ফারুক, নাগরিক ঐক্যের ডা. জাহেদ উর রহমান ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমীন, রবের স্ত্রী তানিয়া রব প্রমুখ।

প্রিয় সংবাদ/আজাদ/কামরুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট
টুকু ও দুলুর মনোনয়ন জমা নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ
আমিনুল ইসলাম মল্লিক ১০ ডিসেম্বর ২০১৮
কী কী থাকছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহারে
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮
মান্না লড়‌বেন বগুড়ায়, পাঁচ আস‌নে নাগ‌রিক ঐক্য
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮
৩০ ডিসেম্বর নৌকা ডুবে যাবে: জাফরুল্লাহ
প্রিয় ডেস্ক ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮