প্রতীকী ছবি

মৌলভীবাজারে বেড়েছে বেওয়ারিশ কুকুর, আতঙ্কে পথচারীরা

মৌলভীবাজার শহরে বেওয়ারিশ কুকুরের সংখ্যা অস্বাভাবিক হারে বেড়ে চলছে।

শেখ নোমান
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৩৫ আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৩৫
প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৩৫ আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৩৫


প্রতীকী ছবি

(ইউএনবি) মৌলভীবাজার শহরে বেওয়ারিশ কুকুরের সংখ্যা অস্বাভাবিক হারে বেড়ে চলছে। এসব কুকুরের উৎপাতে আতঙ্কে দিন কাটছে স্কুলগামী শিশু ও পথচারীদের। শহরের প্রায় সব জায়গাতেই ১০টিরও বেশি কুকুরকে দলবদ্ধভাবে দেখা যায়। এতে সাধারণ মানুষ, এমনকি যানবাহন চলাচলেও বিঘ্ন ঘটছে।

শিশুদের অভিভাবকরা অভিযোগ করছেন, তাদের স্কুলগামী কোমলমতি শিশুরা এই বেওয়ারিশ কুকুরগুলোকে দেখে ভয় পায়। শিশুদের জন্য স্কুলে আসা-যাওয়া কষ্টকর হয়ে গেছে।

মৌলভীবাজার শহরের বাসিন্দা ডা. শফিক উদ্দিন আহমদ জানান, একসময় এই কুকুরগুলোকে পৌরসভার তত্ত্বাবধানে নির্মূল করা হতো। কিন্তু গত কয়েক বছর থেকে এই ধরনের কোনো উদ্যোগ চোখে পড়ছে না। 

শামসুল আরেফিন নামের এক পথচারী অভিযোগ করেন, শহরে হাঁটা এখন দায় হয়ে পড়েছে। সংঘবদ্ধ কুকুরের পদচারণা ও তাদের উৎপাতে তটস্থ হয়ে থাকতে হয়। মাঝে মাঝে বাজার থেকে মাছ-মাংস নিয়ে যাতায়াতের সময় কুকুরের হামলার শিকার হতে হয়।

এদিকে মসজিদে ফজরের নামাজ পড়তে ভয় পাচ্ছেন মুসল্লিরা। ফজরের নামাজ পড়তে মসজিদে যাওয়ার সময় কুকুরগুলোর মুখোমুখি হতে হয়। কুকুরগুলো ঘেউ ঘেউ চিৎকার করে ঘিরে ধরে। ভয়ে-আতঙ্কে দ্রুত মসজিদে প্রবেশ করতে হয়।

কোনো কোনো মুসল্লি বলেছেন, ভোরে কুকুরের আক্রমণের ভয়ে ফজরের নামাজ পড়তে মসজিদে যাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন।

জনস্বার্থে শহরের স্বাভাবিকতা রক্ষার্থে বেওয়ারিশ কুকুর নির্মূল করতে এখনই কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে মৌলভীবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান বলেন, ‘কুকুর নিধন বিষয়ে ও এগুলোর উপদ্রব যাতে কমে আসে, সে জন্য শিগগিরই পৌরসভার পক্ষ থেকে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এ বিষয়ে অভিযানের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।’

প্রিয় সংবাদ/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...