শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উদ্ধার হওয়া সিগারেট। ছবি: সংগৃহীত

শাহজালালে বিপুল বিদেশি সিগারেট উদ্ধার

‘পরবর্তীতে কাস্টমস হলে রাত ৩টার দিকে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে দুটি লাগেজ খুলে ২০৬ কার্টনে ৪১ হাজার ২০০ শলাকা আমদানি নিষিদ্ধ বিদেশি সিগারেট আটক করে।’

আবু আজাদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:১৮ আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:১৮
প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:১৮ আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:১৮


শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উদ্ধার হওয়া সিগারেট। ছবি: সংগৃহীত

(ইউএনবি) রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অভিযান চালিয়ে আমদানি নিষিদ্ধ ৪১ হাজার ২০০ শলাকা বিদেশি সিগারেট উদ্ধার করেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা।

২৫ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে এ সিগারেট উদ্ধার করা হয়। এগুলো ২০৬টি কার্টনে পাওয়া যায়।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘কুয়েত থেকে ছেড়ে আসা কেইউ ২৮৩ ফ্লাইটটি মঙ্গলবার রাত ২টা ২০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। গোপন সংবাদে শুল্ক গোয়েন্দা দল জানতে পারে, উক্ত ফ্লাইটের মাধ্যমে সিগারেট আসছে; যার ভিত্তিতে শুল্ক গোয়েন্দারা ব্যাগেজ বেল্টসহ গ্রিন চ্যানেলে বিশেষ নজরদারি বজায় রাখে।’

‘পরে ২ নম্বর ব্যাগেজ বেল্ট থেকে লাগেজ সংগ্রহ করে সকল যাত্রী চলে যাবার পর দুটি লাগেজ ব্যাগেজ বেল্ট থেকে মালিকবিহীন পরিত্যক্ত অবস্থায় শুল্ক গোয়েন্দা আটক করে। পরবর্তীতে কাস্টমস হলে রাত ৩টার দিকে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে দুটি লাগেজ খুলে ২০৬ কার্টনে ৪১ হাজার ২০০ শলাকা আমদানি নিষিদ্ধ বিদেশি সিগারেট আটক করে।’

শহিদুল ইসলাম জানান, আটককৃত সিগারেট ডানহিল ও ৩০৩ ব্র্যান্ডের। সিগারেটের প্যাকেটের গায়ে বাংলায় ধূমপানবিরোধী সতর্কীকরণ লেখা ব্যতীত বিদেশি সিগারেট আমদানি করা যায় না। সিগারেটের ওপর উচ্চ শুল্ক (প্রায় ৪৫০ শতাংশ) পরিহারের জন্যই এসব সিগারেট আনা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শুল্ক গোয়েন্দা সূত্রে জানা যায়, শুল্কসহ উদ্ধার হওয়া পণ্যের বাজারমূল্য প্রায় ১২ লাখ ৩৬ হাজার টাকা। এ বিষয়ে শুল্ক আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

প্রিয় সংবাদ/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...