সুনামির আঘাতে ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপের বহু স্থাপনা। ছবি: সংগৃহীত

ইন্দোনেশিয়ায় মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৪০০

‘সুনামিতে পালু শহরের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ৪টি অঞ্চলে বুধবার পর্যন্ত ১৪০৭ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত ৫১৯ জনকে সমাহিত করা হয়েছে।’

হাসান আদিল
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৩ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:১১ আপডেট: ০৩ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:১১
প্রকাশিত: ০৩ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:১১ আপডেট: ০৩ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:১১


সুনামির আঘাতে ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপের বহু স্থাপনা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপের পালুতে ভয়াবহ ভূমিকম্প ও সুনামিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪০৭ জনে।

৩ অক্টোবর, বুধবার ইন্দোনেশিয়ার জাতীয় দুর্যোগ সংস্থার মুখপাত্র সুতপু পুরও নোওগরো এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বলে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

সুতপু পুরও বলেন, ‘সুনামিতে পালু শহরের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ৪টি অঞ্চলে বুধবার পর্যন্ত ১৪০৭ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত ৫১৯ জনকে সমাহিত করা হয়েছে।’

কর্তৃপক্ষ শুক্রবার পর্যন্ত নিখোঁজদের উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করবে বলে জানান এই মুখপাত্র।

জাতিসংঘের মানবাধিকার দফতর বলছে, বর্তমানে ২ লাখ লোকের জরুরি সাহায্য প্রয়োজন। এদের মধ্যে কয়েক হাজার শিশু রয়েছে।

চলমান সংকট মোকাবিলায় ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সহায়তা সংস্থা ও এনজিওকে জীবনরক্ষাকারী সহায়তা দেওয়ার অনুমোদন দিয়েছেন।

যদিও এ আবেদনে খুব একটা সাড়া মেলেনি। ইন্দোনেশীয় সরকারের আবেদন সত্ত্বেও ত্রাণের ব্যাপারে কম সাড়া পাওয়াতে জাতিসংঘ হতাশা ব্যক্ত করেছে।

পালুতে ২৮ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভূত হয়। এর ফলে সৃষ্ট সুনামি আঘাতে হানে সুলাওয়েসি দ্বীপে।

১ অক্টোবর দেশটির জাতীয় দুর্যোগ সংস্থা জানিয়েছিল, নিহতের সংখ্যা ৮৪৪ জন। সংখ্যাটি বেড়ে এখন দাঁড়িয়েছে ১৪০৭।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত