অসুস্থ নির্মাণ শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। ছবি: সংগৃহীত

দেশে অন্যায় করলে আর ছাড় পাবে না: মেনন

মন্ত্রী বলেন, ‘তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা, বঙ্গবন্ধু-কন্যাকে মেরে ফেলার সকল প্রক্রিয়া ঘটানো হবে, অথচ এটার বিচার হবে না- বিএনপি এটাই আশা করেছিল।’ কিন্তু তাদের সে আশায় গুড়েবালি।’

হাসান আদিল
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১১ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:৩২ আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:৩২
প্রকাশিত: ১১ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:৩২ আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:৩২


অসুস্থ নির্মাণ শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। ছবি: সংগৃহীত

(বাসস) বাংলাদেশে কেউ অন্যায় করলে আর ছাড় পাবে না বলে মন্তব্য করেছেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। 

১১ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের অসুস্থ নির্মাণ শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে মেনন এ মন্তব্য করেন।

আওয়ামী লীগের সমাবেশে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় ১০ অক্টোবর, বুধবার তৎকালীন বিএনপি সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও শিক্ষা উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয় বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক উপদেষ্টা হারিছ চৌধুরীসহ ১৯ জনের।

গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে স্বাগত জানিয়ে মেনন বলেন, ‘এই রায়ের ফলে দেশে আইনের শাসন সুপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এই রায়ের মধ্য দিয়ে খুনিরা বুঝতে পেরেছে, এ দেশে অন্যায় করলে তার বিচার হয়।’

মন্ত্রী বলেন, ‘তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা, বঙ্গবন্ধু-কন্যাকে মেরে ফেলার সকল প্রক্রিয়া ঘটানো হবে, অথচ এটার বিচার হবে না- বিএনপি এটাই আশা করেছিল। কিন্তু তাদের সে আশায় গুড়েবালি। এ দেশে কেউ অন্যায় করে আর ছাড় পাবে না, রায়ে এটাই প্রমাণিত হয়েছে।’

মেনন বলেন, ‘মানুষ জমি বর্গা দেয়, গরু বর্গা দেয়, বাগানবাড়িও বর্গা দেয়। কিন্তু রাজনৈতিক দল ও নেতৃত্ব বর্গা দেওয়ার কথা আগে শুনিনি। অথচ বিএনপির মতো একটি দল এখন ড. কামাল হোসেন ও ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরীর কাছে তাদের রাজনৈতিক দল ও নেতৃত্ব বর্গা দিচ্ছে।’

অনুষ্ঠানে অসুস্থ শ্রমিকদের হাতে সাত লাখ ৬০ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয়।

ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি রবিউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম, ভরসা হাউজিংয়ের চেয়ারম্যান মো. সাহেব আলী, বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম দেলোয়ার হোসেন ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য দীপংকর দীপু।

প্রিয় সংবাদ/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

লাল শাড়িতে ভালোবাসা

প্রিয় ১৭ ঘণ্টা, ৩২ মিনিট আগে

ভাগ্য ফিরল হিজড়াদের

প্রিয় ১৮ ঘণ্টা, ৩৭ মিনিট আগে

loading ...