আশুলিয়া থানা। ছবি: সংগৃহীত

বাউল শিল্পীকে সংঘবদ্ধ ‘ধর্ষণ’, গ্রেফতার ১

রাজধানীর উপকণ্ঠ সাভারের আশুলিয়ায় এক বাউলশিল্পীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে বাদশা মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে মামলার অপর আসামি সুজন ভূঁইয়া এখনো পলাতক।

আবদুল কাইয়ুম
কন্ট্রিবিউটর, সাভার
প্রকাশিত: ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৯:৫১
আপডেট: ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৯:৫৯


আশুলিয়া থানা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) রাজধানীর উপকণ্ঠ সাভারের আশুলিয়ায় এক বাউলশিল্পীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে বাদশা মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে মামলার অপর আসামি সুজন ভূঁইয়া এখনো পলাতক।

১১ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় নির্যাতিতা বাউল শিল্পী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। 

এর আগে ১০ অক্টোবর, বুধবার দুপুরে আশুলিয়ার গাজীরচট এলাকায় সুজন ভূঁইয়া ও বাদশা ভূঁইয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী শিল্পীর পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, এই বাউল শিল্পী দীর্ঘদিন আশুলিয়ার পলাশবাড়ী এলাকায় থেকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাউল গান করছিলেন। গত বুধবার দুপুরে তিনি পাওনা টাকার জন্য গাজীরচট এলাকায় আবুল কালাম নামের অপর এক বাউল শিল্পীর দোকানে যান। ওই সময় সুজন ভূইয়া এক শিশুকে দিয়ে তাকে নিজের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান। পরে একটি কক্ষে নিয়ে ওই শিল্পীকে আটকে রেখে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। কিছুক্ষণ পর বাদশা ভুইয়াও ভয় দেখিয়ে ওই শিল্পীকে ধর্ষণ করে। ওই সময় বাদশা ও সুজন বাউল শিল্পী কালামকে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে এসে মারধর করে এবং এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুঁমকি দিয়ে তাদের ছেড়ে দেন। পরবর্তী সময়ে ওই নারী বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মামলা করলে পুলিশ বাদশা ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করে। 

আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল হক দিপু জানান, ধর্ষণের শিকার ওই বাউল শিল্পীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। অন্য আসামিকে ধরতে অভিযান চলছে।

প্রিয় সংবাদ/নোমান/কামরুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট