শরীফুল রাজ। ছবি: শামছুল হক রিপন, প্রিয়.কম

‘প্রথম আয় ছিল এক প্যাকেট বিরিয়ানি আর এক হাজার টাকা’

জীবনের বাকবদলসহ প্রাসঙ্গিক বিভিন্ন দিক নিয়ে প্রিয়.কমের সঙ্গে কথা বলেছেন মডেল ও অভিনেতা শরীফুল রাজ।

মিঠু হালদার
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৫০
আপডেট: ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:৫১


শরীফুল রাজ। ছবি: শামছুল হক রিপন, প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) তার শুরুর গল্পটা ছিল দিশাহীন পথিকের মতো। কোনো কিছু না ভেবেই শুরু করেছিলেন মডেলিং। সাফল্য-ব্যর্থতার হিসাব করার ছিল না সময়। কিন্তু সময়ের পরিক্রমায় সেই শরীফুল রাজই এখন দেশের শীর্ষ মডেল। দুই বছর আগে ক্যারিয়ারের আরেক পর্যায়ে পা রেখেছেন তিনি। ২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া ‘আইসক্রিম’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক হয়েছিল তার।

জীবনের এই বাকবদলসহ প্রাসঙ্গিক বিভিন্ন দিক নিয়ে প্রিয়.কমের সঙ্গে কথা বলেছেন এই মডেল ও অভিনেতা। ৭ অক্টোবর বিকেলে প্রায় এক ঘণ্টার সেই আলাপে উঠে আসে তার জীবনের বিভিন্ন দিক।

প্রিয়.কম: ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রিতে আপনার প্রায় এক দশকের ক্যারিয়ার। এই দীর্ঘ সময়ের জার্নিটাকে আপনি কীভাবে দেখছেন?

শরীফুল রাজ: এক দশক না, নয় বছর আরকি। এরমধ্যে বেশির ভাগ সময়টা আমি ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছি। এই সময়টাতে আমি বিভিন্ন ধরনের বাস্তবতার সম্মুখীন হয়েছি। এটা একদিক থেকে ভালোই হয়েছে। তা না হলে, হয়তো বুঝতে পারতাম না যে, জীবনের অন্য কোনো মানে আছে? তবে ওভারঅল গুড।

আমার জীবনের প্রথম ফটোশুট করার পর প্রথম আয় ছিল এক প্যাকেট বিরিয়ানি আর এক হাজার টাকা। আর একটা সময় যাওয়ার পর আমি একটি শুটের জন্য মিনিমাম ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ কিংবা কোনো কোনো সময় তারচেয়েও বেশি টাকা পেয়েছি। এটাই আমার জীবন। এ কারণে আমার মধ্যে কোনো ভয় কাজ করে না। কারণ আমি জীবনের দুটো দিকই দেখেছি।

প্রিয়.কম: আচ্ছা, ২০১৬ সালে একটি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। এরপর দীর্ঘ সময় চলে গেলেও আপনাকে কোনো ছবিতে দেখা যায়নি?

শরীফুল রাজ: ‘আইসক্রিম’ ছবির পরপরই মানসিকভাবে ফিল্মের দিকে নিজেকে নিয়োজিত করার চেষ্টা করেছি। এককথায় ভালো ফিল্মে কাজ করার জন্য অপেক্ষা করা বলতে যা বোঝায়। তবে এই সময়টাতে আমি যে ধরনের ছবিতে অভিনয় করতে চাই, সে রকম কাজ পেয়েছি মাত্র একটি। আইসক্রিমের পর আমার জীবনের আরেকটা স্ট্রাগলিং পার্ট শুরু হয়েছে। কারণ আমি ফ্যাশনে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ কমিয়ে দিয়েছি।

প্রিয়.কম: বিষয়টা আরেকটু খোলাসা করা যায়?

শরীফুল রাজ: একটা শুট করলে আমি অনেক টাকা পাই। এখন তো কম কাজ করি। একটি সিনেমাতে অভিনয়ের প্রস্তুতির কারণে এখন আর ওভাবে সময় দিতে পারি না। তবে অনেকের সঙ্গে এই সময়টাতে ফিল্মে কাজ করা নিয়ে মিটিংও হয়েছে।

চূড়ান্ত পর্যায়েও চলে গিয়েছিলাম বেশ কয়েকবার। কিন্তু পরে আর সে কাজগুলো করা হয়নি। তবে বেশ কিছুদিন আগে স্টার সিনেপ্লেক্সের একটি ফিল্মের সঙ্গে যুক্ত হয়েছি। এটি তারা প্রযোজনা করবে। তার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছি।

প্রিয়.কম: নতুন এ ছবিটির বিষয়ে বিস্তারিত জানানো যায়?

শরীফুল রাজ: না, এখনো সময় হয়নি। পুরোপুরি বিষয়টা জানানোর কাজ চলছে। খুব শিগগিরই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে। একটু ওয়েট করতে হবে।

প্রিয়.কম: ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রির টপ মডেলদের একজন হয়েও আরেকটা ইন্ডাস্ট্রিতে নিজেকে নতুন করে প্রতিষ্ঠিত করার ঝুঁকি নিলেন কেন?

শরীফুল রাজ: ঝুঁকি সব জায়গাতেই আছে। যদিও ফিল্মের ঝুঁকিটা ভিন্ন। নতুনরা যদি কাজ না করে, নতুনরা যদি এ মাধ্যমে না আসে, তাহলে কী করে হবে? আমার কাছে মনে হয়, আমি তো সেট একটা ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছিলাম। ফিন্যান্সিয়ালি আমার অবস্থান অনেক ভালো ছিল।

যখন আমি রিস্ক নিলাম, আমি ফিল্ম করব, তখন আমি মেন্টালি সেট যে, আমি এটা করতে চাই। অনেক কিছু সেক্রিফাইস করে হলেও আমি ফাইনালি ফিল্ম করতে চাই। কারণ আমি এটাই করতে চাই। এটা দিয়েই আমি হয়তো কিছু করতে পারব। আমার ডেস্টিনেশন ছিল ফিল্ম করা। মজার মজার চরিত্রে অভিনয় করা।

‘আইসক্রিম’ ছবিতে অভিনয়ের পর রাজের জীবনে আরেকটা স্ট্রাগলিং পার্ট শুরু হয়েছে। ছবি: প্রিয়.কম

প্রিয়.কম: তবে এখন র‌্যাম্পে হাঁটার বিষয়টাতে কি আগের মতো তাগিদ অনুভব করেন?

শরীফুল রাজ: এটা তো আমার ব্লাডে আছে। আমার গ্রো-আপ ওই জায়গাটাতে। আমি নিজেকে ঠিক করেছি ওই জায়গায়। আমি নিজেকে পলিশ করেছি ওই জায়গাটাতে। অনেক কিছু শেখা আমার ওই জায়গাটাতে। ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি অনেক হেল্প করছে এ জায়গাটাতে আসতে।

আমি এতদিনে যে সার্ফ করলাম ফ্যাশনে, প্রত্যেকটা মানুষ আমাকে ইনস্পায়ার করছে। আজরা আপুর (জনপ্রিয় র‌্যাম্প মডেল ও কোরিওগ্রাফার আজরা মাহমুদ) সঙ্গে কাজ করেছি, টুম্পা আপুর (র‌্যাম্প মডেল ও কোরিওগ্রাফার বুলবুল টুম্পা) সঙ্গে কাজ করেছি। ওদের সঙ্গে কাজ করে আমার টেস্ট গ্রো করেছে।

তারা ভিন্ন ভিন্ন ধরনের কাজ করেন। এখানে কাজ করার ফলে আমার মেন্টালি টেস্ট অনেক গ্রো করছে। আমার এখনো মনে হয়, আমি র‌্যাম্পে হাঁটি। ওটা ভিন্ন একটা ব্যাপার। আমি ভবিষ্যতে আরও হাঁটতে চাই। যতদিন আমি ইন্ডাস্ট্রিতে আছি, ততদিন কোনো না কোনোভাবে ফ্যাশনের সঙ্গে রিলেটেড থাকব।

প্রিয়.কম: ফের ফিল্ম প্রসঙ্গ, অভিনয় করার যে আগ্রহ দুই বছর আগে ছিল, এরপর তো অনেকটা সময় চলে গিয়েছে। কী মনে হয় এখন?

শরীফুল রাজ: ফিল্মের জার্নিটা খুব কষ্টের আমাদের দেশে। বিশেষ করে যারা নতুন ও তরুণ। ওদের স্ট্রাগলিংটা ভিন্ন এখানে। ওদের অ্যাকসেপ্ট করাটাও টাফ এই জায়গায়। কেউ সুযোগ দেবে, সেটাও এখানে ভাবনার বিষয়। তারপরও রিস্ক নিয়েই আসছি; দেখি কী হয়।

নতুনরা চাইলে নাকি সব কিছু চেঞ্জ করতে পারে। অনেক কিছু করতে পারে। দেখি কী হয়। এ ছাড়া আমার কিন্তু অনেক কিছু শেখারও বাকি। আমি তো মাত্র একটা ফিল্ম করেছি। আরও অনেক কিছু করতে হবে। আরও অনেক ড্রিম আছে আমার।

প্রিয়.কম: ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে অভিনয়ে নিয়মিত হতে চান। এ জন্য কোনো প্রশিক্ষণ নিয়েছেন?

শরীফুল রাজ: আমি মঞ্চে কাজ করিনি বা কোথাও থেকে শিখেও আসিনি। তবে আমি যেটা করব, সেটা আমার বেস্টটা দিয়েই করব, করিও। সেটা ফেলও হতে পারে। আবার ভালো কিছুও হতে পারে। জানি না, কী হবে। যেটা করব, সেটা অ্যাপ্রোপ্রিয়েট করেই ট্রাই করব। মানে কোনো দ্বিধা নিয়ে কাজ করি না। ভবিষ্যতে আমার কালার এবং লাইট নিয়ে পড়ার খুব ইচ্ছা। যদি কখনো সুযোগ হয়, আমি পড়ব, জানব।

প্রিয়.কম: আপনার কাছে কাদের অভিনয় ভালো লাগে?

শরীফুল রাজ: সালমান শাহ, হুমায়ূন ফরীদি আমার খুব পছন্দের। আহমেদ রুবেলও। আমার খুব পছন্দের মানুষ। এ ছাড়া জেরার্ড বাটলার, টম হ্যাংকস, টম ক্রুজ, নওয়াজ উদ্দিন সিদ্দিকীর অভিনয়ও আমার কাছে বেশ লাগে।

আর সিয়াম আহমেদ, আমি চাই সে আরও বিন্দাস কাজ করুক। পূজাও। সি ইজ অ্যামেজিং অ্যাকট্রেস। অনেকদিন পর বাংলা সিনেমাতে কোনো নায়িকার অভিনয় দেখে আমার ভালো লেগেছে। যদি আগের কথা বলতে হয়, আমি জয়া আপার ভয়াবহ ফ্যান।

প্রিয়.কম: এমন কোনো অভিনেতা বা অভিনেত্রী আছেন, যার সঙ্গে কাজ করতে চান?

শরীফুল রাজ: আমি জীবনে দুটি মানুষের সঙ্গে অভিনয় করতে চাই। তার মধ্যে একজন হলেন জয়া আহসান, আরেকজন হলেন সিয়াম আহমেদ। যদি কখনো ওভাবে সুযোগ হয়, আমি কাজ করব। আমি সে অপেক্ষাতে আছি। দেখা যাক, কী হয়।

প্রিয়.কম: রাজ এবার স্টারডম (তারকাখ্যাতি) প্রসঙ্গে কথা বলতে চাই, এর জন্য সবচেয়ে বড় ত্যাগ কী করেছেন?

শরীফুল রাজ: স্টারডম বিষয়টার সঙ্গে আমি ওভাবে রিলেটেড না। আমি যখন শুরু করেছি, মিডিয়ার খুব রুট লেভেল থেকে শুরু করেছি। ওই জায়গায় আমার কাছে মনে হয়েছে, মানুষ কাজ করলে চিনবে। আমার আলাদা করে স্টারডম নিয়ে প্ল্যান ছিল না কখনোই।

আমার যখন যে অবস্থান ছিল বেঁচে থাকার, আমি সেভাবেই কাজ করে গেছি। ওটাই আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছে। ওটা আমি এখন পর্যন্ত দেখি নাই। তবে আমি ভালো কাজের জন্য বেশ পরিশ্রমী। শিখতে চাই সবার কাছ থেকেই।

ভবিষ্যতে কালার এবং লাইট নিয়ে পড়ার খুব ইচ্ছে রয়েছে রাজের। ছবি: প্রিয়.কম

প্রিয়.কম: সেটা কেমন?

শরীফুল রাজ: আমি সবসময় দেখে অথবা কিছু একটা করে তারপর শিখি। দেখে শেখার বিষয়টা একটু বেশি। আমার ক্ষেত্রে যেটা হয়েছে, আমি যে কাজটাই করি, সেটা খুব মনোযোগ দিয়ে করি। এর কারণে আমি যখন যে কাজটা করেছি, সে কাজ দিয়ে আরেকটা কাজ পেয়েছি। কারণ আমি খুব একটা ভেবে কোনো কাজ করি না। আমার ভাবনাতেও ছিল না, আমি মডেল হবো, ফিল্মে কাজ করব।

তবে আমার খুব ঘোরার ও দেখার ইচ্ছা। আমি কোনো বাইন্ডিং পছন্দ করি না, এটা মেনে নিতে পারি না। আমি খুব বাউণ্ডুলে, পাগলাটে। আমি খুব ডানপিটে স্বভাবের। তবে আমি যে স্বপ্নটাই দেখি না কেন, সেটা অনেক বড়। এটার কোনো বাউন্ডারি নেই। এটাই আমার জীবন।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভালো কাজের ক্ষুধাটা বেশ প্রবল হয়েছে। যেটা করব, সেটা যেন মিনিমাম ভালো হয়। আমি কাজটা করে শান্তিতে থাকি। আমাকে ফিন্যান্সিয়ালি কেউ হ্যাপি করতে পারবে না। তবে কাজটা ভালো হলে কাজটা আমাকে হ্যাপি করতে পারবে। দ্যাটস এনাফ।

প্রিয়.কম: এবার একটু ভিন্ন প্রসঙ্গে কথা বলতে চাই, আপনার জীবনে কি কোনো অতিপ্রাকৃত কিংবা ভৌতিক কোনো অভিজ্ঞতা আছে?

শরীফুল রাজ: না, নেই। তবে একটা ভিন্নধর্মী ঘটনা আছে। আমি অনেকদিন আগে একবার বঙ্গোপসাগরে গিয়েছিলাম। ঘটনা হলো সেন্টমার্টিনে আমার কিছু পরিচিত জেলে আছে। সেন্টমার্টিন থেকে ট্রলারে করে ওদের (জেলে) সঙ্গে চার দিনের জন্য চলে গিয়েছিলাম।  সেখানে গিয়ে সাগরের মাঝখানে চারদিন ছিলাম।

ওই চার দিন আমার জীবনের সবচেয়ে সুন্দর জিনিসগুলো দেখেছি। আমার কাছে মনে হয়েছে, আমি কিছু না। পৃথিবী হচ্ছে লোনলি (একাকী)। আমার কোনো এগজিস্ট্যান্স নেই। ওই ফিলটা ব্যাখ্যা করলে কেউ বুঝবে না। বিষয়টা আমার কাছে স্পিরিচুয়াল মনে হয়।

প্রিয়.কম: রাজ যখন কোনোকিছু আপনার মনের মতো হয় না, তখন কী করেন?

শরীফুল রাজ: আমার জায়গাটা কতটুকু আমি পারফর্ম করব, কতটুকু অ্যাফোর্ড দেবো, সেটা আমি জানি, যার কারণে প্রতিটা কাজে আমার আলাদা একটা ধরন আছে। সেটা যদি ঠিকঠাকমতো ওয়ার্কআউট হয়, তাহলে তো ভালো।

আমি যদি খারাপ পারফর্ম করি, সেটার দায় আমার। আমি খারাপ অ্যাকটিং করলাম, ওটার দায় আমার। অন্য কিছু ভালো হলো না, ওটার দায় কি আমার? আমি যেহেতু পারফরমার, সেহেতু সবোর্চ্চটা দিয়েই পারফর্ম করি।

প্রিয়.কম: ধরেন, কোনো কাজের জন্য অডিশন দিলেন, আপনাকে নেওয়াটাও চূড়ান্ত। এরপর সে কাজটি থেকে রিজেক্ট করলে কীভাবে সামলান?

শরীফুল রাজ: ও রকম কিছু হয়নি। তবে একটা কাজের কথা বলতে পারি, ওই কাজটা মার্কেটে পরে বেশ হিটও হয়েছে। হয়তো বা কাজটা করতে পারতাম। ওই লেভেলের কমিউনিকেশন হয়নি বলে কাজটা আর হয়নি। হয়তো বা আমি কিংবা যাদের সঙ্গে কাজ করব, তাদের পক্ষ থেকে কিংবা আমার পক্ষ থেকে। ওখানে আমারই ভাই ও বন্ধু আছে। ওটা নিয়ে এর বেশি কথা বলা ঠিক হবে না।

প্রিয়.কম: দীর্ঘ সময়ের ক্যারিয়ার। কোনো ধরনের চাওয়া-পাওয়ার হিসাব-নিকেশ আছে, লক্ষ্য আছে?

শরীফুল রাজ: আমার গোল আছে। কিন্তু এটা ক্রিয়েট হতে সময় লাগছে। আমি তো জানতাম না, আমি এ মাধ্যমে কাজ করব। এখনকার গোলটা হলো, আমি আসলে অ্যাক্টর হতে চাই। অভিনয় করতে চাই। আমি জানি না, কী করব, এর পরের প্রজেক্ট কী হবে। তবে আমার কাছে আমার ভিশন ক্লিয়ার। কারণ আমার আর কোনো যোগ্যতা নাই।

প্রিয়.কম: অবসর সময়ে কী করেন?

শরীফুল রাজ: প্রচুর আড্ডা মারি। প্রচুর সিনেমা দেখি। সব টাইপের সিনেমা দেখি। মালায়ালম, স্প্যানিশ, ইন্দোনেশিয়ান, টার্কিশ, আমেরিকান, আমার কোন বাছ-বিচার নাই। আমার সিনেমা দেখতে ভালো লাগে। আরেকটা বিষয়, আমি যে মাধ্যমে কাজ করি, সেখানে আমি খারাপ থাকলেও মানুষ মনে করে, আমি ভালো আছি। এটা ভালো লাগে না। কাউকে বোঝাতেও পারি না।

প্রিয় বিনোদন/গোরা 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
দীর্ঘদিনের প্রেমিকার সঙ্গে সিয়ামের বিয়ে
তাশফিন ত্রপা ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮
গল্পের প্রসঙ্গ অফিসে যৌন হয়রানি
নিজস্ব প্রতিবেদক ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮
উর্মিলা-শ্যামলের ‘একদিন ভালো থাকি’
তাশফিন ত্রপা ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮
মাহাদীর কণ্ঠে ‘বিজয়ের গল্প’
তাশফিন ত্রপা ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
ঈশা অম্বানীর বিয়েতে তারকা মেলা
ঈশা অম্বানীর বিয়েতে তারকা মেলা
ইনকিলাব - ২ দিন, ৩ ঘণ্টা আগে
নৌকার নির্বাচনী প্রচারে মাঠে তারকারা
নৌকার নির্বাচনী প্রচারে মাঠে তারকারা
সময় টিভি - ২ দিন, ৩ ঘণ্টা আগে
বিজয়ের গল্প নিয়ে ক্লোজআপ তারকা মাহাদী
বিজয়ের গল্প নিয়ে ক্লোজআপ তারকা মাহাদী
যুগান্তর - ২ দিন, ১১ ঘণ্টা আগে
নৌকার প্রচারণায় মাঠে নেমেছেন তারকারা
নৌকার প্রচারণায় মাঠে নেমেছেন তারকারা
জাগো নিউজ ২৪ - ২ দিন, ১১ ঘণ্টা আগে
ঈশা আম্বানির বিয়েতে তারকাদের সাজ
ঈশা আম্বানির বিয়েতে তারকাদের সাজ
বাংলা ট্রিবিউন - ২ দিন, ১২ ঘণ্টা আগে
নৌকার পক্ষে রাজপথে তারকামেলা
নৌকার পক্ষে রাজপথে তারকামেলা
বিডি নিউজ ২৪ - ২ দিন, ১২ ঘণ্টা আগে