রাজধানীর শাহবাগে বারডেম মিলনায়তনে থ্রম্বোসিস দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: সংগৃহীত

বারডেমে বিশ্ব থ্রোম্বোসিস দিবস পালিত

শাহবাগের বারডেম মিলনায়তনে বিশ্ব থ্রোম্বোসিস দিবসের অালোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা জানান।

মোস্তফা ইমরুল কায়েস
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৫৫ আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৫৫


রাজধানীর শাহবাগে বারডেম মিলনায়তনে থ্রম্বোসিস দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) থ্রোম্বোসিসের জটিলতায় বিশ্বে প্রতি চারজনের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়। বাংলাদেশেও কেউ না কেউ প্রতিদিনই থ্রোম্বোসিসজনিত রোগ বা এর জটিলতায় আক্রান্ত হয়ে অকালে প্রাণ হারাচ্ছেন, পঙ্গুত্ব বরণ করছেন। 

১৩ অক্টোবর, শনিবার দুপুরে রাজধানীর শাহবাগের ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট (বারডেম) মিলনায়তনে বিশ্ব থ্রোম্বোসিস দিবসের অালোচনা অনুষ্ঠানে একাধিক বক্তা এসব কথা জানান।

শরীরের রক্তনালিতে রক্ত জমাট বাঁধাকে থ্রোম্বোসিস বলে। বিশ্বে প্রতি বছর ১৩ অক্টোবরকে থ্রোম্বোসিস দিবস হিসেবে পালন করা হয়। তারই অংশ হিসেবে ৯০টি দেশ ও এক হাজার ১০০টি সংগঠনের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালের ভাসকুলার সার্জারি বিভাগ দিবসটি পালন করছে।

অালোচনা অনুষ্ঠানে থ্রোম্বোসিসের কারণ সম্পর্কে একাধিক বক্তা জানান, বিমান বা দূরপাল্লার যানবাহনে দীর্ঘক্ষণ বসে থাকা, হাত-পা নড়াচড়া না করা, পচনশীল খাবার খাওয়া, মুটিয়ে যাওয়া, কম হাঁটা, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন, পায়ে প্লাস্টার লাগানো, বড় অস্ত্রোপচার, গর্ভবতী মায়ের কম নড়াচড়া করা, দীর্ঘসময় শুয়ে ও বসে থাকার কারণে রক্তনালিতে রক্ত জমাট বেঁধে থ্রোম্বোসিস রোগের সৃষ্টি হয়। প্রথমে হাত-পায়ে ব্যথা অনুভব, পরে রক্তনালির রক্ত সঞ্চালন বন্ধ হয়ে গিয়ে হাত-পায়ে পচন ধরে পঙ্গুত্ব বরণ করতে হয়।

হার্টবিট অনিয়মিত থাকলে, হার্টের ভালভে সমস্যা থাকলে, হার্টে কৃত্রিম ভালভ লাগানো থাকলে, ব্লকজনিত কারণে হার্টের ওয়াল দুর্বল থাকলে হার্টের মধ্যে রক্ত জমাট বাঁধতে পারে। সে রক্ত ঝুঁকি তৈরি করে ব্রেইনে অগ্রসর হলে স্ট্রোক করতে পারে। পরে সে রক্তের দলা হাত-পায়ে অগ্রসর হলে পায়ে তীব্র ব্যথা হয়, যা ওষুধ খেলেও কমে না। অাস্তে অাস্তে হাত বা পা ঠান্ডা হয়ে যায়। একসময় লালচে কালো হয়ে পা অনুভূতিহীন হয়ে পড়ে ও অকোজো হয়ে যায়। তখন এটিকে একিউট লিম্ব ইসকেমিয়া বলে। এমন অবস্থা হলে রোগীকে ৬ থেকে ৮ ঘণ্টার মধ্যে ভাসকুলার চিকিৎসক দেখাতে হয়। অন্যথায় তাকে পঙ্গুত্ব বরণ করতে হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর মাহমুদুর রহমান, একই হাসপাতালের ভাসকুলার সোসাইটির সভাপতি প্রফেসর নরেন চন্দ্র মণ্ডল, প্রফেসর বজলুল করিম ভূঁইয়া, প্রফেসর জিএম মকবুল প্রমুখ।

প্রিয় সংবাদ/নোমান/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
খাসোগি হত্যায় প্রকাশ্যে এলো নতুন তথ্য
আশরাফ ইসলাম ২২ অক্টোবর ২০১৮
‘আইন মেনে চলব, নিরাপদ সড়ক গড়ব’
আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন ২২ অক্টোবর ২০১৮
১৯ মাস পর ঘোড়াশালে ইউরিয়া উৎপাদন শুরু
আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন ২২ অক্টোবর ২০১৮
ট্রাকচাপায় বাবার পর আহত ছেলের মৃত্যু
কাঞ্চন কুমার ২২ অক্টোবর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
ট্রেন্ডিং