সীমান্তের কাঁটাতারে বিএসএফ সদস্যদের প্রহরা। পুরনো ছবি

রাজশাহীতে ‘বিএসএফের গুলিতে’ যুবক নিহত

বিএসএফ ওই যুবককে ধরে নিয়ে গুলি করে বলে দাবি করেছে নিহতের পরিবার।

শেখ নোমান
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৭ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৩৭ আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৩৭
প্রকাশিত: ২৭ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৩৭ আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৩৭


সীমান্তের কাঁটাতারে বিএসএফ সদস্যদের প্রহরা। পুরনো ছবি

(ইউএনবি) রাজশাহীতে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের বিরুদ্ধে এক বাংলাদেশি যুবককে গুলি করে হত্যার পর লাশ পদ্মা নদীতে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

২৭ অক্টোবর, শনিবার দুপুরে পবা উপজেলার গহমাবোনা এলাকার বিপরীতে ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন পদ্মা নদীতে সনি (২২) নামের ওই যুবকের লাশ ভেসে ওঠে। পরে পরিবারের সদস্যরা লাশটি উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যান।

সনি গোদাগাড়ী উপজেলার বিয়ানাবোনা গ্রামের গোলাম রসুল বেনুর ছেলে।

নিহতের পরিবারের দাবি, গত বৃহস্পতিবার রাতে সনিকে গোদাগাড়ীর খরচাকা সীমান্ত এলাকা থেকে বিএসএফ ধরে নিয়ে যায়। তার সাথে রাসেল নামে আরেক যুবক ছিল। তাকেও গুলি করা হয়।

স্থানীয়দের দাবি, সনির মরদেহে তারা গুলির চিহ্ন দেখেছেন। তাদের ধারণা, গুলি করে হত্যার পর লাশ নদীতে ফেলে দেয় বিএসএফ সদস্যরা।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য লিটন হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর রাসেল ও সনি পদ্মা নদী পার হয়ে সীমান্তে গরু আনতে যান। তখন বিএসএফ সনিকে ধরে নিয়ে যায়। আর হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে রাসেল পালিয়ে আসেন।

রাজশাহীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসারত রাসেল একই গ্রামের মো. খোকার ছেলে।

বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তাজ বলেন, ‘পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা শুক্রবার ভারতের দুটি ক্যাম্পের বিএসএফের সাথে পতাকা বৈঠক করেছিলাম। তারা আমাদের বিষয়টি নিশ্চিত করেনি।’

গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। আহত রাসেলের সাথে কথা বলে ঘটনাটি জানার চেষ্টা করবেন।

প্রিয় সংবাদ/আজহার