ইউনিলিভার ও যুক্তরাজ্যের ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি)-এর যৌথ উদ্যোগে গঠিত ট্রান্সফর্ম।

ট্রান্সফর্মের মাধ্যমে পাঁচ সামাজিক উদ্যোক্তার সহযোগিতায় ইউনিলিভার

এখন পর্যন্ত ট্রান্সফর্ম বিশ্বের ১০টি দেশের ৩২টি প্রকল্পে অনুদান দিয়েছে। এর মাধ্যমে পাঁচ লাখের বেশি মানুষ উপকৃত হয়েছে।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১১:১২
আপডেট: ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১১:১২


ইউনিলিভার ও যুক্তরাজ্যের ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি)-এর যৌথ উদ্যোগে গঠিত ট্রান্সফর্ম।

(প্রিয়.কম) বাংলাদেশের পাঁচটি সামাজিক উদ্যোগকে সহযোগিতা করবে ইউনিলিভার ও যুক্তরাজ্যের ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি)-এর যৌথ উদ্যোগে গঠিত ট্রান্সফর্ম।

বেসরকারিভাবে সৃজনশীল ও বাণিজ্যিক পরিসরে বৈশ্বিক উন্নয়নের চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলার লক্ষ্যে ডিএফআইডি এবং ইউনিলিভার যৌথভাবে ২০১৫ সালে ট্রান্সফর্ম প্রতিষ্ঠা করে। ট্রান্সফর্ম আর্থিক ও ব্যবসায়িক সহায়তার মাধ্যমে স্বল্প আয়ের পরিবারের চাহিদা পূরণে বাজারভিত্তিক সমাধানে কাজ করা সামাজিক উদ্যোগগুলোকে সহায়তা করে।

এখন পর্যন্ত ট্রান্সফর্ম বিশ্বের ১০টি দেশের ৩২টি প্রকল্পে অনুদান দিয়েছে। এর মাধ্যমে পাঁচ লাখের বেশি মানুষ উপকৃত হয়েছে।

আগামী ২০৩০ সাল নাগাদ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনের মাধ্যমে বিশ্বকে আরও বেশি অর্ন্তভুক্তিমূলক, কার্বণ নিঃসরণ কমানো এবং বৈষম্যহীন অর্থনীতির দিকে নিয়ে যেতে ট্রান্সফর্ম প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

১৩ নভেম্বর, মঙ্গলবার রাজধানীর স্পেক্ট্রা কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে ইউনিলিভার বাংলাদেশ ও অনুদানপ্রাপ্ত পাঁচ উদ্যোক্তা ট্রান্সফর্ম, অংশীদারিত্বমূলক উদ্যোগ এবং পিরামিড কাঠামোর ভিত্তিতে বাংলাদেশে এর কার্যক্রমে মানুষের ওপর প্রভাব সম্পর্কে বলেছেন।

বাংলাদেশের হ্যাপিট্যাপ, সবার জন্য পানি, সুইপ, ড্রিংকওয়েল ও ফোলিয়া ওয়াটার- এই পাঁচটি প্রকল্প শর্ত অনুযায়ী স্বল্প আয়ের পরিবারগুলোর চাহিদা পূরণে টেকসই ও উদ্ভাবনী কাজের জন্য ট্রান্সফর্মের এই অনুদান পেয়েছে।

হ্যাপিট্যাপ একটি বহনযোগ্য হ্যান্ডওয়াশ যা স্বল্প আয়ের মানুষদের মধ্যে হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তুলবে। এটি উৎপাদন, বিতরন এবং বিপণনে সহায়তা করবে ট্রান্সফরম। এক কথায় অভ্যাস পরিবর্তনের জন্য ডিভাইসটিকে ব্যবহার করবে তারা।
‘সবার জন্য পানি’ একটি সামাজিক সংগঠন যারা ঢাকার ভাষানটেক বস্তিতে কাজ করে। বিপণন ও অভ্যাস পরিবর্তনকে প্রাধান্য দিয়ে ট্রান্সফরম সেখানে স্যানিটেশন নিয়ে কাজ করবে।
সুইপ একটি বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সেবা। ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া গ্রামীন দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে পানি ও স্যানিটেশন সেবার জন্য কাজ করছে। চট্টগ্রামে অল্প আয়ের মানুষদের মাঝে সুইপ সেবার চাহিদা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিপণন ও বিক্রয় কার্যক্রম পরিচালনা করবে ট্রান্সফরম।

ড্রিংকওয়েল পুরো দক্ষিণ এশিয়ার পানির স্বল্পতার চেহারাটাই পাল্টে দিয়েছে এবং ব্যক্তি উদ্যোগে নিরাপদ পানি সরবরাহের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করেছে। ট্রান্সফরম প্রকল্পের মাধ্যমে নতুন কনটেন্ট প্ল্যাটফরম ও টেকনোলজি পরীক্ষা করা হবে যার মাধ্যমে নিরাপদ খাবার পানি সেবা গ্রহনের সামগ্রিক চিত্র পরিমাপ করা যাবে।

ফোলিয়া ওয়াটার বিশ্বে প্রথম টাকার পরিবর্তে পয়সা দিয়ে ফিল্টার পানি পাওয়ার ব্যবস্থা করেছে। ফলে খুব কম খরচে স্বল্প আয়ের মানুষের ফিল্টারের পানি পাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। ট্রান্সফরম কোনো উদ্যোগের বিতরণ ও বিপনন দিকটির প্রতি জোর দিয়ে থাকে।

আগ্রহীরা www.transform.global এই লিংকের মাধ্যমে বিস্তারিত তথ্য জানতে এবং আগামীতে এই অনুদান পাওয়ার লক্ষ্যে নিবন্ধন করতে পারবে।

প্রিয় ব্যবসা/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট
মালদ্বীপকে ১৪০ কোটি ডলার সহযোগিতা দেবে ভারত
মালদ্বীপকে ১৪০ কোটি ডলার সহযোগিতা দেবে ভারত
বাংলা ট্রিবিউন - ২ দিন, ৫ ঘণ্টা আগে
সহযোগিতা চাইলেন নৌকার প্রার্থী
সহযোগিতা চাইলেন নৌকার প্রার্থী
মানবজমিন - ৬ দিন, ১৯ ঘণ্টা আগে
আর্থিক খাতের উন্নয়ন প্রচারে এমডিরা
আর্থিক খাতের উন্নয়ন প্রচারে এমডিরা
নয়া দিগন্ত - ৬ দিন, ২০ ঘণ্টা আগে

loading ...