লাল কেল্লা সপ্তদশ শতাব্দীতে মুঘল সম্রাট শাহজাহান নির্মিত একটি দুর্গ। ছবি: সংগৃহীত

দিল্লির লাল কেল্লা দখলের হুমকি পাকিস্তানি মন্ত্রীর!

পাকিস্তানের সংসদবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী আলি মুহাম্মদ খান লিখেছেন, নিজেদের চার প্রদেশের পাশাপাশি আরও অনেক কিছুর ওপর আধিপত্য কায়েম রাখার ক্ষমতা রয়েছে পাকিস্তানের।

আশরাফ ইসলাম
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৩৭ আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৪২
প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৩৭ আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৪২


লাল কেল্লা সপ্তদশ শতাব্দীতে মুঘল সম্রাট শাহজাহান নির্মিত একটি দুর্গ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির ঐতিহাসিক লাল কেল্লা দখলের হুমকি দিয়েছেন পাকিস্তানের সংসদবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী আলি মুহাম্মদ খান।

১৫ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার এক টুইটে পাকিস্তানের ওই প্রতিমন্ত্রী এ কথা লিখেন।

সম্প্রতি কাশ্মীর প্রসঙ্গে পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার শহীদ খান আফ্রিদির মন্তব্যের জবাবে তিনি টুইটে এই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

আলি মুহাম্মদ টুইটে লেখেন, ‘নিজেদের চার প্রদেশের পাশাপাশি আরও অনেক কিছুর ওপর আধিপত্য কায়েম রাখার ক্ষমতা রয়েছে পাকিস্তানের। দিল্লির লাল কেল্লাও একদিন পাকিস্তানের দখলেই থাকবে!’

১৪ নভেম্বর, বুধবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টে একটি আলোচনায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে আফ্রিদি বলেন, ‘পাকিস্তান কাশ্মীর চায় না। আগে নিজের চারটি প্রদেশ সামলাক সরকার।’

আফ্রিদির এই মন্তব্যে অস্বস্তি বোধ করেন পাকিস্তানের কিছু রাজনীতিক। ছবি: সংগৃহীত

আফ্রিদি আরও বলেন, ‘আমি বলছি পাকিস্তান কাশ্মীর চায় না। ভারতকেও দেওয়ার দরকার নেই। কাশ্মীরকে স্বতন্ত্র থাকতে দেওয়া হোক। আর কিছু না হোক মানবতা জীবিত থাকবে, বন্ধ থাকবে মানুষের মৃত্যু। পাকিস্তান কাশ্মীর চায় না। চারটি প্রদেশই তো ভালোভাবে সামলাতে পারে না পাকিস্তান।’

পাকিস্তানি এই সাবেক অলরাউন্ডারের এমন মন্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন পাকিস্তানের নেতা ও মন্ত্রীরা। 

সমালোচনার জেরে আফ্রিদি টুইটারে এক বার্তায় জানান, ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো তার বক্তব্য বিকৃত করেছে। তার দাবি, ভারত জোর করেই ওই রাজ্য দখল করেছে। কাশ্মীর পাকিস্তানেরই।

প্রিয় সংবাদ/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...