এসিসির নবনির্বাচিত সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ও সদ্য বিদায়ী সভাপতি এহসান মানি। ছবি: সংগৃহীত

এশিয়ান ক্রিকেটের দায়িত্ব নিলেন বিসিবি সভাপতি পাপন

পাকিস্তানের লাহোরে এসিসির বার্ষিক সাধারণ সভায় বিদায়ী সভাপতি এহসান মানির কাছ থেকে দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন তিনি।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৫১ আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৫২
প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৫১ আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৫২


এসিসির নবনির্বাচিত সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ও সদ্য বিদায়ী সভাপতি এহসান মানি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) সভাপতি হওয়ার জন্য বাংলাদেশ থেকে একজনকে সুপারিশ করতে বলা হয়েছিল। এরপর চলতি বছরের এপ্রিলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালনা পর্ষদের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে বেছে নেওয়া হয় বিসিবি সপভাতি নাজমুল হাসান পাপনকে। অক্টোবরে আসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

তখন জানা যায়, এশিয়ান ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা এসিসির পরবর্তী সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন বিসিবি সভাপতি। বাকি ছিল কেবল আনুষ্ঠানিকতা। এবার সেটাও হয়ে গেল। ১৭ নভেম্বর, শনিবার এসিসির সভাপতি হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নিয়েছেন নাজমুল হাসান পাপন।

চতুর্থ বাংলাদেশি হিসেবে এশিয়ান ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার সভাপতির চেয়ারে বসলেন পাপন। এদিন পাকিস্তানের লাহোরে এসিসির বার্ষিক সাধারণ সভায় বিদায়ী সভাপতি এহসান মানির কাছ থেকে দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন তিনি। তার মেয়াদ আগামী ২ বছর।

চতুর্থ বাংলাদেশি হিসেবে এসিসির সভাপতির চেয়ারে বসলেন পাপন। ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ থেকে প্রথমবার এসিসির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন আনিসুল ইসলাম মাহামুদ। ১৯৮৯-৯১ মেয়াদে দায়িত্বে ছিলেন তিনি। এরপর ২০০২-২০০৪ মেয়াদে সভাপতি হন তখনকার বিসিবি প্রধান আলি আসগর লবি। ২০১০-২০১২ মেয়াদে এই দায়িত্ব পালন করেন তখনকার বিসিবি সভাপতি ও বর্তমান সরকারের পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল।

প্রিয় খেলা/শান্ত

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...