হাইকোর্টে শহীদুল আলম জামিন পাওয়ার তিন দিন পরে আপিল করলো রাষ্ট্রপক্ষ। ফাইল ছবি

শহিদুলের জামিন স্থগিতের আবেদন রাষ্ট্রপক্ষের

ফেসবুক ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও শিক্ষার্থীদের আন্দোলন নিয়ে মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে তার বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা করা হয়।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:১৭
আপডেট: ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:১৯


হাইকোর্টে শহীদুল আলম জামিন পাওয়ার তিন দিন পরে আপিল করলো রাষ্ট্রপক্ষ। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় আলোকচিত্রী ড. শহিদুল আলমকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

১৮ নভেম্বর, রবিবার সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদনটি করেন অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড সুফিয়া খাতুন। আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালতে আবেদনটির ওপর শুনানি হতে পারে।

এর আগে চলতি মাসের ১৫ তারিখে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে জামিন দেয় হাইকোর্ট।

সহপাঠী নিহতের ঘটনায় বিচার দাবি ও নিরাপদ সড়ক চেয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের বিষয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরায় বক্তব্য দিয়েছিলেন শহিদুল আলম। সেই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে গত ৫ আগস্ট রাতে রাজধানীর ধানমন্ডির বাসা থেকে শহিদুলকে আটক করে ডিবি পুলিশ।

পরে ফেসবুক ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সরকারের বিরুদ্ধে ‘অপপ্রচার ও শিক্ষার্থীদের আন্দোলন নিয়ে মিথ্যা তথ্য’ দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা করা হয়।

এ মামলায় একটি জামিন আবেদন নিম্ন আদালতে বিচারাধীন থাকাবস্থায় ২৮ আগস্ট হাইকোর্টে প্রথম দফায় জামিন আবেদন করেন শহিদুল আলম। গত ১০ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট এই আবেদনের শুনানি করে ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিচারিক আদালতকে শহিদুল আলমের আবেদন নিষ্পত্তির আদেশ দেয়।

পরে ১১ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে। ১৭ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় দফায় হাইকোর্টে তিনি জামিনের আবেদন করেন। সেই আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে গত ৭ অক্টোবর রুল জারি করে হাইকোর্ট। তবে গত ৬ নভেম্বর হাইকোর্টে সম্পূরক জামিন আবেদন করেন শহিদুল ইসলাম।

প্রিয় সংবাদ/শিরিন/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট