হয়রানিমূলক মামলার ক্ষেত্রে পুলিশকে নির্দেশের বিষয়টি জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম। ছবি: প্রিয়.কম

হয়রানিমূলক মামলা না করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হবে: রফিকুল

হয়রানিমূলক মামলায় নির্বাচনি পরিবেশ কিছুটা হলেও বিনষ্ট হবে বলে উল্লেখ করেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম।

প্রদীপ দাস
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:৪৭
আপডেট: ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:৪৮


হয়রানিমূলক মামলার ক্ষেত্রে পুলিশকে নির্দেশের বিষয়টি জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজনৈতিক বিবেচনা ও হয়রানিমূলকভাবে গ্রেফতার হয়ে থাকলে, তা থেকে বিরত থাকতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম

১৮ নভেম্বর, রবিবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে সকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) কাছে তফসিল ঘোষণার পর গ্রেফতার হওয়া নেতাকর্মীদের তালিকা জমা দেয় বিএনপি। তালিকা অনুযায়ী, তফসিল ঘোষণার পর থেকে এখন পর্যন্ত বিএনপির ৭৭৩ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘তালিকাটা আমি ব্যক্তিগতভাবে এখনো দেখিনি। সত্যিকার অর্থে যদি কোনো হয়রানিমূলক মামলা হয়ে থাকে এবং সেটা রাজনৈতিক হয়, তাহলে আমরা অবশ্যই প্রশাসনকে নির্দেশনা দেবো, যেন হয়রানিমূলক মামলা না করে। কারণ হয়রানিমূলক মামলা হলে নির্বাচনি পরিবেশ কিছুটা হলেও বিনষ্ট হবে।’

বিএনপি বলছে, তফসিলের পর ৭৭৩ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং এর আগে তফসিলের পর বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলাও হয়েছে।

বিএনপি নেতার্মীদের গ্রেফতার ও মামলার মাধ্যমে পুলিশ যে ধরনের ভূমিকা পালন করছে, এতে নির্বাচনি পরিবেশ নষ্টের দিকে যাচ্ছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদেরকে দেখতে দেন। কমিশনকে তালিকা দিয়ে গেছে বিএনপি। হয়রানিমূলক কিছু হয়ে থাকলে কমিশন অবশ্যই পুলিশকে দিক নির্দেশনা দিবে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দলের মনোনয়নপত্রে তালিকা যাচাই-বাছাই করছেন। একজন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি এটা করতে পারেন কি না, সে বিষয়ে রফিকুল বলেন, ‘আপনারা বলেছেন, আমরা শুনেছি। আমাদের কাছে এখন পর্যন্ত এই ধরনের কোনো কিছুকে মনিটরিং করার নিজস্ব ক্যাপাসিটি নাই।’

‘যদি কেউ তথ্য-প্রমাণসহ আমাদের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন, তাহলে পরে আমরা আইনের মধ্যে থেকে যদি কিছু থাকে, তাহলে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষকে বলব। আর যদি আইনের ভেতর কিছু না থাকে, তাহলে আমরা নিজেরা কমিশন বসে কী করতে পারি, সেটা পর্যালোচনা করে দেখে তারপরে সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব।’

তারেক রহমান দেশে থাকলে ভিডিও কনফারেন্স করতে পারতেন কি না জানতে চাইলে রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘যদি কোনো দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হন, তাহলে অবশ্যই তার জেলে বা পলাতক থাকার কথা। কেউ জেলে থাকলে এই ধরনের কাজ করার কথা না। জেল থেকে যদি উনি জামিনে আসতেন, তাহলে করলে কোনো অসুবিধা ছিল না। কিন্তু এ ক্ষেত্রটা সম্পূর্ণ ভিন্ন। আইনের কাভারেজ কতটুকু কী আছে এগুলো দেখে আমরা একটি সিদ্ধান্ত নিতে পারব।’

৮ নভেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। পুনঃতফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর ও ভোট গ্রহণ ৩০ ডিসেম্বর।

প্রিয় সংবাদ/শিরিন/আজহার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট
রুয়েটের নতুন ভিসি ড. মো. রফিকুল ইসলাম শেখ
রুয়েটের নতুন ভিসি ড. মো. রফিকুল ইসলাম শেখ
বাংলা ট্রিবিউন - ৪ মাস, ৩ সপ্তাহ আগে

loading ...