রাশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া থেকে নৌপথে আমদানি করা কয়লা ভারতের ত্রিপুরায় রপ্তানি করা হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

৬ বছর পর আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে কয়লা রপ্তানি

টনপ্রতি ৮০ ডলারে আমদানি করে তা ১১০ ডলারে রপ্তানি করা হয়। গত কয়েক দিনে তিনটি প্রতিষ্ঠানের কাছে ৭০০ টন কয়লা রপ্তানি করা হয়েছে।

আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:২৯ আপডেট: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:৩০
প্রকাশিত: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:২৯ আপডেট: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:৩০


রাশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া থেকে নৌপথে আমদানি করা কয়লা ভারতের ত্রিপুরায় রপ্তানি করা হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

(ইউএনবি) দীর্ঘ ছয় বছর বন্ধ থাকার পর আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আবার কয়লা রপ্তানি শুরু হয়েছে।

আখাউড়া স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কয়লা রপ্তানিকারক রাজীব উদ্দীন ভূঁইয়া বলেন, ‘রাশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়া থেকে নৌপথে টনপ্রতি ৮০ ডলারে কয়লা আমদানি করে তা টনপ্রতি ১১০ ডলারে রপ্তানি করা হচ্ছে।’

ভারতের ত্রিপুরায় কয়লার ব্যাপক চাহিদা থাকায় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা রাশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া থেকে নৌপথে আশুগঞ্জ নৌবন্দরে কয়লা আমদানি করেন এবং আবার তা ভারতের ত্রিপুরায় রপ্তানি করছেন।

টনপ্রতি ১১০ ডলারে সোয়েব ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল, মোল্লা ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল, বায়জিদ ট্রেড সেন্টার—এ তিনটি প্রতিষ্ঠান কয়লা রপ্তানি করে থাকে।

গত কয়েক দিনে ৭০০ টন কয়লা রপ্তানি হয়েছে বলে জানিয়েছে কাস্টমস কর্মকর্তা শান্তি বরণ চাকমা।

তিনি জানান, ভারতীয় আমদানিকারকরা রাজ্যে ইট ভাটাসহ অন্যান্য কাজে কয়লার ব্যাপক চাহিদা থাকায়  বাংলাদেশ থেকে কয়লা আমদানি করছে।

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী