নির্বাচন কমিশন ভবন। ফাইল ছবি

আরও যারা টিকে গেলেন

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন ভবনে এই শুনানি শুরু হয়।

প্রদীপ দাস
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:৫৫
আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:৫৫


নির্বাচন কমিশন ভবন। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র আপিল নিষ্পত্তি করতে শুনানি শুরু হয়েছে। প্রথম ১০০টি আবেদনের মধ্যে ৫৪ জন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। ৪২ জনের প্রার্থিতা বাতিল হয়েছে। দুজন অনুপস্থিত ছিলেন এবং দুজনের নিষ্পত্তি হয়নি।

৬ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন ভবনে এই শুনানি শুরু হয়।

এ প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত (দুপুর তিনটা) যারা প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন, তারা হলেন-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের আবু আসিফ, ঢাকা-১৪ আসনের জাকির হোসেন, পঞ্চগড়-২ আসনের ফরহাদ হোসেন, মানিকগঞ্জ-৩ আসনের আতাউর রহমান, ময়মনসিংহ-৮ আসনের এমএ বাশার, ঢাকা-১৪ আসনের আবু বকর সিদ্দিক, কুড়িগ্রাম-৩ আসনের আব্দুল খালেক, কুড়িগ্রাম-৪ আসনের মাহফুজার রহমান, চট্টগ্রাম-১ আসনের নুরুল আমিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের মুখলেছুর রহমান, লক্ষ্মীপুর-১ আসনের মাহবুব আলম, কুমিল্লা-৫ আসনের মো. ইউনুস, চাঁদপুর-৫ আসনের নেয়ামুল বশির, বরিশাল-২ আসনের মোয়াজ্জেম হোসেন, চট্টগ্রাম-৩ আসনের মোস্তফা কামাল পাশা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের আশরাফ উদ্দিন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

বগুড়া-৭ আসনে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন বিএনপির মোরশেদ উদ্দিন মিল্টন, ঢাকা-২০ আসনে বিএনপির তমিজ উদ্দিন, কিশোরগঞ্জ-২ আসনে বিএনপির অবসরপ্রাপ্ত মেজর আখতারুজ্জামান, পটুয়াখালী-৩ আসনে বিএনপির গোলাম মওলা রনি, ঢাকা-১ আসনে বিএনপির খন্দকার আবু আশফাক, জামালপুর-৪ আসনে বিএনপির ফরিদুল কবির তালুকদার ও সিলেট-৩ আসনে বিএনপির অাবদুল কাইয়ুম চৌধুরী।

ঝিনাইদহ-২ আসনে আবদুল মজিদ, পটুয়াখালী-৩ আসনে মোহাম্মদ শাহজাহান, পটুয়াখালী-১ আসনে সুমন সন্যামত, মাদারীপুর-১ আসনে জহিরুল ইসলাম মিন্টু, জয়পুরহাট-১ আসনে ফজলুর রহমান, পাবনা-৩ আসনে মো. হাসাদুল ইসলাম, মানিকগঞ্জ-২ আসনে মো. আবিদুর রহমান খান প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

সিরাজগঞ্জ-৩ আসনে আইনাল হক, গাজীপুর-২ আসনে মো. মাহবুব আলম, গাজীপুর-২ আসনে জয়নাল আবেদীন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ আসনে জেসমিন নূর বেবী, রংপুর-৪ আসনে মোস্তফা সেলিম, খুলনা-৬ আসনে এস.এম শফিকুল আলম, হবিগঞ্জ-১ আসনে জুবায়ের আহমেদ, ময়মনসিংহ-৭ আসনে জয়নাল আবেদীন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনে আবদুল্লাহ আল হেলাল ও ময়মনসিংহ-২ আসনে মোহাম্মদ আবু বকর ছিদ্দিক।

শেরপুর-২ আসনের একেএম মুখলেছুর রহমান, হবিগঞ্জ-৪ আসনের মুহাম্মদ ছোলাইমান খান রাব্বানী, নাটোর-৪ আসনের আলাউদ্দিন মৃধা, কুড়িগ্রাম-৪ আসনের ইউনুস আলী, বরিশাল-২ আসনের মো. আনিচুজ্জামান, ঢাকা-৫ আসনের মো. সেলিম ভূইয়া, কুমিল্লা-৩ আসনের কেএম মুজিবুল হক, মানিকগঞ্জ-১ আসনের মো. তোজাম্মেল হক, সিলেট-৫ আসনের চুনীর চৌধুরী, ময়মনসিংহ-৩ আসনের আহাম্মদ তায়েবুর রহমান, ঝিনাইদহ-৪ আসনের আবদুল মান্নান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সৈয়দ আনোয়ার আহম্মদ লিটন ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনের মো. মামুনূর রশিদ।

প্রিয় সংবাদ/হাসান

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট

loading ...