নির্বাচন কমিশন ভবন। ফাইল ছবি

দ্বিতীয় দিনে বৈধ ৭৮, অবৈধ ৬৫ প্রার্থী

শুনানির দ্বিতীয় দিনে ১৬১ থেকে ৩১০ পর্যন্ত আপিল আবেদনের শুনানির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করে কমিশন। আর তৃতীয় দিন (৮ ডিসেম্বর) ৩১১ থেকে ৫৪৩ নম্বর আবেদন নিষ্পত্তি করা হবে।

প্রদীপ দাস
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১২:৩০
আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:৪০


নির্বাচন কমিশন ভবন। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) মনোনয়নপত্র আপিল আবেদনের দ্বিতীয় দিনের শুনানির পর ৭৮ জনের মনোনয়নপত্র বৈধতা পেয়েছে। বাতিল হয়েছে ৬৫ জনের মনোনয়নপত্র এবং সাতজনের স্থগিত করা হয়েছে।

৭ ডিসেম্বর, শুক্রবার ১০টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন ভবনে এই শুনানি শুরু হয়। এর আগে ৬ ডিসেম্বর প্রথম দিন শুনানি হয় এক থেকে ১৬০টি আপিল আবেদনের। প্রথম দিনের শুনানি শেষে ৮০ প্রার্থী বৈধ আর অবৈধ হয় ৭৬ প্রার্থীর আবেদন এবং স্থগিত করা হয় বাকি চার প্রার্থীর আপিল।

শুনানির দ্বিতীয় দিনে ১৬১ থেকে ৩১০ পর্যন্ত আপিল আবেদনের শুনানির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করে কমিশন। আর তৃতীয় দিন (৮ ডিসেম্বর) ৩১১ থেকে ৫৪৩ নম্বর আবেদন নিষ্পত্তি করা হবে।

জাতীয় নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত তিন হাজার ৬৫টি মনোনয়নপত্র জমা পড়ে। ২ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করে ৭৮৬ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা। এরপর ৩, ৪ ও ৫ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র ফিরে পেতে আপিল আবেদন করেন বাতিল হওয়া প্রার্থীরা।

বৈধতা পেলেন যারা

দ্বিতীয় দিন মনোনয়নের বৈধতা পেলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ আসনের মোহাম্মদ জিয়া উদ্দিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ মো. মুসলিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম-৮-এর হাসান মাহমুদ চৌধুরী, চট্টগ্রাম-৭ এর মো. আবু আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ এর মো. গিয়াস উদ্দিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ এর আবদুল খালেক, কুমিল্লা-১০ এর মো. শাহজাহান মজুমদার, চাঁদপুর-৫ এর খোরশেদ আলম খুশু, বরিশাল-২ এর একে ফাইয়াজুল হক, পটুয়াখালী-১ এর মো. আবদুর রশিদ, বরিশাল-১ এর মো. বাদশা মিয়া, বরগুনা-১ এর মো. মতিয়ার রহমান তালুকদার, ভোলা-১ এর গোলাম নবী আলমগীর, বরিশাল-২ এর মাসুদ পারভেজ, ঝালকাঠি-১ এর বজলুল হক হারুণ (তার মনোনয়ন বাতিল করতে আপিল করা হয়, শুনানিতে সেই আপিল খারিজ হয়ে যায়), পটুয়াখালী-২ এর মো. শহিদুল আলম তালুকদার, বরিশাল-২ এর সৈয়দ রুবিনা আক্তার, ভোলা-৪ এর নাজিম উদ্দিন আলম, বরিশাল-৪ এর মাহাবুবুল আলম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ এর মো. ছাইফুল্লাহ (হুমায়ুন মিয়া), ঢাকা-১৬ এর আলহ্বাজ এ কে এম মোয়াজ্জেম হোসেন, ঢাকা-৩ এর মোহাম্মদ সুলতান আহম্মদ খান, কিশোরগঞ্জ-২ এর মোহাম্মদ সালাউদ্দিন (রুবেল), কিশোরগঞ্জ-৬ এর মোহাম্মদ মুছা খান, টাঙ্গাইল-৮ এর মোহাম্মদ আ. লতিফ মিয়া, নরসিংদী-২ এর জাইদুল কবীর, কিশোরগঞ্জ-১ এর খালেদ সাইফুল্লাহ সোহেন খান, গাজীপুর-৩ এর মোহাম্মদ জহিরুল হক মন্ডল বাচ্চু, মানিকগঞ্জ-২ এর মঈনুল ইসলাম খান, শরিয়তপুর-৩ এর সুশান্ত ভাওয়াল, কিশোরগঞ্জ-২ এর নুরুল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জ-১ এর মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, কিশোরগঞ্জ-৩ এর ডা. এনামুল হক (ইদ্রিছ), নারায়ণগঞ্জ-৪ এর মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, টাঙ্গাইল-৬ এর মোহাম্মদ আবুল কাসেম, টাঙ্গাইল-৭ এর সৈয়দ মজিবর রহমান, শরীয়তপুর-২ এর মোহাম্মদ বাদল কাজী, মাদারীপুর-১ এর মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ, নারায়ণগঞ্জ-৪ এর মোহাম্মদ ছালাউদ্দিন খোকা, টাঙ্গাইল-৬ এর ব্যারিস্টার এম আাশরাফুল ইসলাম, টাঙ্গাইল-৬ এর মামুনুর রহমান, টাঙ্গাইল-৩ এর এস এম চান মিয়া, মাদারীপুর-২ এর আল আমীন মোল্লা, ঢাকা-৮ এর এস এম সরওয়ার, মাদারীপুর-১ এর নাদিরা আাক্তার, ঢাকা-১ এর ফাহিমা হুসাইন জুবলী, কিশোরগঞ্জ-১ মোহাম্মদ আব্দুর রহমান, কিশোরগঞ্জ-৩ সাইফুল ইসলাম সুমন, ঢাকা-৮ মাহমুদা রহমান মুন্নি, ঢাকা-১৬ মোহাম্মদ আমানত হোসেন, সিলেট-৫ এম এ মতিন চৌধুরী, সিলেট-৫ সেলিম উদ্দিন, মৌলভীবাজার-১ এবাদুর রহমান চৌধুরী, সুনামগঞ্জ-৪ মোহাম্মদ দিলোয়ার, সুনামগঞ্জ-৪ দেওয়ান জয়নুল জাকেরীন, হবিগঞ্জ-১ রেজা কিবরিয়া, সুনামগঞ্জ-৪ মোহাম্মদ আজিজুল হক, হবিগঞ্জ-১ অধ্যাপক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান, কিশোরগঞ্জ-৫ সেলিনা সুলতানা, টাঙ্গাইল-৬ নূর মোহাম্মদ খান, কিশোরগঞ্জ-২ এরশাদ হোসাইন, ঢাকা-১৮ সাইফুদ্দিন আহমেদ খান, টাঙ্গাইল-৩ মোহাম্মদ আতাউর রহমান খান, টাঙ্গাইল-৬ সুলতানা মাহমুদ, ঢাকা-১৮ শহীদ উদ্দিন মাহমুদ, ঢাকা-১ শামসুদ্দিন আহমেদ, মানিকগঞ্জ-২ এস এম আব্দুল মান্নান, ঢাকা-২ সুকান্ত শফি চৌধুরী, ফরিদপুর-৪ আতাউর রহমান, শরীয়তপুর-১ সবদার এ কে এম নাসির উদ্দিন, কুড়িগ্রাম-৪ মোহাম্মদ জাকির হোসেন, রংপুর-২ শ্রী কুমারেশ চন্দ্র রায়, ময়মনসিংহ-৮ মাহমুদ হাসান সুমন, জামালপুর-১ এম. রমিদুজ্জামান মিল্লাত, ময়মনসিংহ-১ মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ, ময়মনসিংহ-১১ মোহাম্মদ আমান উল্লাহ সরকার, নেত্রকোনা-১ মোহাম্মদ এম এ করিম আব্বাসী ও ময়মনসিংহ-৫ জহিরুল ইসলাম।

অবৈধ যাদের মনোনয়নপত্র

আপিলের পরও অবৈধ হওয়া প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন কুমিল্লা-১ এর মো. আলতাফ হোসাইন, চট্টগ্রাম-৬ এর সামির কাদের চৌধুরী, ফেনী-৩ এর মো. আবদুল লতিফজান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ এর মো. শাহজাহান, কুমিল্লা-২ এর মো. আব্দুল মজিদ, বরিশাল-৬ এর ওসমান হোসেইন, পিরোজপুর-৩ এর ডা. সুধীর রঞ্জন বিশ্বাস, ঝালকাঠি-১ এর মো. মনিরুজ্জামান, পটুয়াখালী-১ এর এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, পটুয়াখালী-২ এর মোহাম্মদ মিজানুর রহমান খান, ভোলা-৪ এর এম এ মান্নান হাওলাদার, ঝালকাঠী-১ এর মোহাম্মদ শাহজালাল শামীম, পিরোজপুর-১ এর মনিমোহন বিশ্বাস, বরিশাল-৬ এর নাসরিন জাহান রতনা, বরিশাল-৪ এর মো. মেজবা উদ্দীন ফরহাদ, ঝালকাঠী-১ এর ইয়াসমিন আক্তার পপি, পিরোজপুর-৩ মো. রুস্তম আলী ফারাজী, পটুয়াখালী-২ এর মো. শফিকুল ইসলাম, ভোলা-২ এর হুমায়ন কবির, নরসিংদী-২ এর আলতামাশ কবীর (অনুপস্থিত), কিশোরগঞ্জ-৪ এর সুরঞ্জন ঘোষ, কিশোরগঞ্জ-৩ এর মোহাম্মদ আম্মান খান, মানিকগঞ্জ-১ এর মোহাম্মদ আাতোয়ার হোসেন, ঢাকা-৮ এর আরিফুর রহমান, কিশোরগঞ্জ-২ এর মোহাম্মদ আানিসুজ্জামান, ঢাকা-১৭ এর মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান খোকন, ঢাকা-৮ এর অবসরপ্রাপ্ত মেজর মামুনুর রশিদ, গোপালগঞ্জ-১ এর শামসুল আলম খান চৌধুরী, কিশোরগঞ্জ-৩ এর মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান নয়ন, নারায়ণগঞ্জ-১ এর মোহাম্মদ রেহান আফজাল, শরীয়তপুর-১ এর মো. আালমগীর হোসেনের আপিল আাবেদন, গোপালগঞ্জ-৩ এ জেড আপু শেখ, মুন্সিগঞ্জ-২ মোহাম্মদ নোমান মিয়া, কিশোরগঞ্জ-২ মোহাম্মদ লুৎফুর রহমান, ঢাকা-২০ জামাল উদ্দিন আহমেদ, গাজীপুর-১ মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির, নারায়ণগঞ্জ-৩ মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন, নারায়ণগঞ্জ-৩ অনন্যা হোসাইন মৌসুমী, নারায়ণগঞ্জ-৪ মোহাম্মদ মামুন মাহমুদ, মৌলভীবাজার-৩ আব্দুল মোসাব্বির, হবিগঞ্জ-৩ মোহাম্মদ আ. কাদির, হবিগঞ্জ-৩ মওলানা আতাউর রহমান, সিলেট-২ অধ্যক্ষ এনামুল হক সর্দার, সিলেট-৬ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন মিয়া, সুনামগঞ্জ-১ কামরুজ্জামান কামরুল, সিলেট-২ মহিবুর রহমান, সুনামগঞ্জ-৫ রঞ্জিত কুমার দে, হবিগঞ্জ-১ মোহাম্মদ বদরুর রেজা, হবিগঞ্জ-৪ মোহাম্মদ আব্দুল মমিন, সিলেট-৩ আব্দুল ওদুদ, টাঙ্গাইল-৮ কাজী আশরাফ সিদ্দিকী, নরসিংদী-২ আলহ্বাজ ইঞ্জিনিয়ার মুহসীন আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ-৩ মোশারফ হোসেন, গাজীপুর-৪ মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন, ঢাকা-১৫ মোহাম্মদ ছলীম উদ্দিন, রংপুর-৩ হাবিবুল হক সরকার, ঠাকুরগাঁও-৩ গোপাল চন্দ্র রায়, গাইবান্ধা-৩ তফিকুল ফামিন মন্ডল, কুড়িগ্রাম-৪ ইমরান এইচ সরকার, কুড়িগ্রাম-৪ এস এম জাহাঙ্গীর, নীলফামারী-৩ মোহাম্মদ আনসার আলী, ময়মনসিংহ-৪ আবু জাফর জাহিদ হোসেন, ময়মনসিংহ-৫ মোহাম্মদ হোসেল মিয়া, শেরপুর-৩ মোহাম্মদ আবু বক্কর সিদ্দিকী ও মানিকগঞ্জ-২ মঈনুল ইসলাম খান।

স্থগিত সাত আপিলগুলো হলো ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ এর মো. মেহেদী হাসান, সুনামগঞ্জ-৩ সৈয়দ শাহ মুবাশ্বির আলী, ঢাকা-২ আমান উল্লাহ আমান, ঢাকা-৯ আফরোজা আব্বাস, ঢাকা-২০ সুলতানা আহমেদ, রংপুর-১ আলহ্বাজ সি এম সাদিক ও গাইবান্ধা-১ আফরুজা বারী সাহাবাজ।

শুনানিতে উপস্থিত রয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

শুনানিতে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

প্রিয় সংবাদ/হাসান/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট
খালেদা জিয়ার প্রার্থিতার বিষয়ে শুনানি মঙ্গলবার
খালেদা জিয়ার প্রার্থিতার বিষয়ে শুনানি মঙ্গলবার
বাংলা ট্রিবিউন - ২ দিন, ২ ঘণ্টা আগে
অবৈধ বিদেশি কর্মীদের বৈধ করবে না মালয়েশিয়া
অবৈধ বিদেশি কর্মীদের বৈধ করবে না মালয়েশিয়া
জাগো নিউজ ২৪ - ৫ দিন, ১১ ঘণ্টা আগে
অবৈধ গ্যাস ব্যবহারকারীরা বৈধ হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন
অবৈধ গ্যাস ব্যবহারকারীরা বৈধ হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন
বাংলা ট্রিবিউন - ৫ দিন, ২১ ঘণ্টা আগে

loading ...