ব্যাটিং কোচ নেইল ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। ছবি: সংগৃহীত

সাকিব-তামিমের প্রত্যাবর্তন, মাশরাফির স্বস্তি

দেশসেরা দুই ক্রিকেটারকে দলে পাওয়ায় রীতিমতো স্বস্তি ফিরেছে বাংলাদেশ শিবিরে।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৩৬ আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৪৩
প্রকাশিত: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৩৬ আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৪৩


ব্যাটিং কোচ নেইল ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ইনজুরির মিছিল শুরু হয়েছিল মূলত এশিয়া কাপের আগেই। ইনজুরির কারণে জিম্বাবুয়ে সিরিজটি খেলতে হয় সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালকে ছাড়াই। উইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ দিয়ে সাকিব মাঠে ফিরলেও ফেরা হয়নি তামিমের। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে অবশ্য জানানো হয়েছিল, ওয়ানডে সিরিজের শুরু থেকেই পাওয়া যাবে বাঁহাতি এই ওপেনারকে।

অবশ্য ওয়ানডে সিরিজের আগেই মাঠে ফেরেন তামিম। বিসিবি একাদশের হয়ে খেলছেন একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচটি। এবার তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে মাঠে নামার অপেক্ষায় দেশসেরা এই ওপেনার। এই ম্যাচটি দিয়ে টেস্টের পর ওয়ানডেতে ফিরতে যাচ্ছেন সাকিব।

সেরা দুই ক্রিকেটারকে দলে পাওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে বাংলাদেশ শিবিরে। ৮ ডিসেম্বর, শনিবার মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে সেই স্বস্তির কথা জানান জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দলে সাকিব-তামিম থাকা মানে বিরাট সুবিধা। প্রস্তুতি ম্যাচেও তামিম দারুণ খেলেছে- এটা তামিমের জন্য স্বস্তি, আমাদের জন্যও স্বস্তি। ওরা দুজন থাকা আমাদের জন্য, প্রত্যেক খেলোয়াড়ের জন্য স্বস্তিদায়ক ব্যাপার।’

গেল বৃহস্পতিবার ইনজুরি কাটিয়ে প্রায় তিন মাস পর মাঠে ফেরেন তামিম। ফিরেই ঝড় তোলেন ব্যাট হাতে। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে বাঁহাতি এই ওপেনার তুলে নেন দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি। মাত্র ৭০ বলে ১৩টি চার ও তিনটি ছক্কায় সেঞ্চুরি তুলে নেন দেশসেরা এই ওপেনার।

অবশ্য মাশরাফি মনে করছেন, প্রস্তুতি ম্যাচে অসাধারণ ইনিংসের পরও পুরোপুরি ছন্দে ফিরতে কিছুটা সময় লাগবে তামিমের। তার ভাষ্য, ‘ইনজুরি থেকে আসা এবং এসে পারফর্ম করা কিছুটা সময়ের ব্যাপার। তামিম আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছে বলে প্রত্যাশা করতে পারেন না যে, পরের ম্যাচে নেমেও অসাধারণ ইনিংস খেলে ফেলবে। এর থেকে ভালো খেলতে পারে, আবার খারাপও হতে পারে।’

এর আগে আঙুলের ইনজুরি কাটিয়ে লম্বা সময় মাঠে ফিরেই আলো ছড়িয়েছেন সাকিব। চট্টগ্রাম টেস্টে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হওয়ার পাশপাশি জিতেছেন সিরিজ সেরার পুরস্কার। মাশরাফির বিশ্বাস, দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি খেলে নিজেকে মানিয়ে নিয়েছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার।

আর তাদের ফেরাটাই স্বস্তিদায়ক জানিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘চোট থেকে ফিরে মানিয়ে নিতে কিছুদিন সময় লাগবে। সাকিব হয়তো টেস্টে কিছু...দুইটা টেস্ট ম্যাচ খেলে কিছুটা মানিয়ে নিয়েছে। তামিমের হয়ত কিছুটা সময় লাগতে পারে। কিন্তু ওরা দুইজন থাকা আমাদের জন্য, প্রত্যেক খেলোয়াড়ের জন্য স্বস্তিদায়ক ব্যাপার।’

প্রিয় খেলা/শান্ত

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...