একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ছবি: সংগৃহীত

হাইকোর্টে রিট, কপাল খুলল ১১ প্রার্থীর

ময়মনসিংহ-১ আসনে বিএনপির আলী আজগরের বিরুদ্ধে রিট করেছে ফারমার্স ব্যাংক। এ রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট তার মনোনয়নপত্র স্থগিত করে রুল জারি করেছেন।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৩২ আপডেট: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৩৫
প্রকাশিত: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৩২ আপডেট: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৩৫


একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট করে কপাল খুলেছে ১১ প্রার্থীর। তাদের মধ্যে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বেশি, রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীও। একই সঙ্গে মনোনয়ন বাতিলে নির্বাচন কমিশনের আদেশ স্থগিত করে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

৯ ডিসেম্বর, রবিবার প্রার্থীদের রিটের শুনানি নিয়ে বিচারপতি তারিক-উল-হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর হাইকোর্ট বেঞ্চ দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়ে রুল জারি করে তাদের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দেয়।

বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ ৯ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলে ইসির সিদ্ধান্ত স্থগিত করে আদেশ দেয়।

প্রার্থীরা হলেন, নীলফামারী-৪ আসনের বিএনপির প্রার্থী সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র আমজাদ হোসেন সরকার, দিনাজপুর-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী ও দিনাজপুর সদরের মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, নীলফামারী-৩ (জলঢাকা) আসনে পৌর মেয়র ফাহমিদ ফয়সাল চৌধুরী, নওগাঁ-৫ আসনে নওগাঁ পৌরসভার মেয়র নাজমুল হক, পঞ্চগড়-১ আসনে পঞ্চগড় সদরের মেয়র তৌহিদুল ইসলাম, বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনে শাহজাহান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরকার বাদল, বগুড়া-৩ আসনে আব্দুল মুহিত তালুকদার, কুড়িগ্রাম-৪ (রাজিবপুর, রৌমারী ও চিলমারী উপজেলা) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার, টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী কাজী আশরাফ সিদ্দিকী, নওগাঁ-৪ আসনে স্বতস্ত্র প্রার্থী আফজাল হোসেন (স্বতন্ত্র) এবং একেএম মাহফুজুর রহমান।

আর ময়মনসিংহ-১ আসনে বিএনপির আলী আজগরের বিরুদ্ধে রিট করেছে ফারমার্স ব্যাংক। এ রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট তার মনোনয়নপত্র স্থগিত করে রুল জারি করেছেন।

চারজন প্রার্থীর আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছে আদালত।

তারা হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা ও আখাউড়া) আসনের বিএনপির প্রার্থী শফিকুর রহমান, মো. আক্তার হোসেন, ফেনী-৩ (সোনাগাজী-দাগনভূঞা) আসনে বিএনপির প্রার্থী আবদুল লতিফ জনি ও সৈয়দ শহিদুল হক জামাল।

আগামীকাল সোমবার যাদের বিষয়ে আদেশ দেওয়া হবে, তারা হলেন-বিএনপি নেতা ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, রুহুল কুদ্দুস তালকদার দুলু ও আব্দুল ওয়াদুদ ভুইয়া।

চারজনের বিষয়ে সোমবার শুনানি হবে। তারা হলেন- বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলম, মমতাজ হোসাইন, এস এম মুজিবুর রহমান, রশিদুল ইসলাম, এ জেড এম জাহিদ।

দুইজনের আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তারা হলেন- সামির কাদের চৌধুরী ও আবুল হাশেম।

প্রিয় সংবাদ/হিরা/শান্ত

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...