বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। ছবি: সংগৃহীত

নির্বাচনে সব পক্ষকে সহিংসতা পরিহার করতে হবে: রবার্ট মিলার

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘সহিংসতামুক্ত নির্বাচন করার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। তারা সেই ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৫০ আপডেট: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৫১
প্রকাশিত: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৫০ আপডেট: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৫১


বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) নির্বাচনি প্রক্রিয়া ঠিক রাখতে হলে সব পক্ষকে সহিংসতা পরিহার করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

১৯ ডিসেম্বর, বুধবার রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রদূত এ মন্তব্য করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘সহিংসতামুক্ত নির্বাচন করার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। তারা সেই ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’ 

নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান কী, এমন প্রশ্নের জবাবে মিলার বলেন, ‘মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) বিএনপির সঙ্গে বৈঠকের পর যে বক্তব্য দিয়েছিলাম, আজকেও একই বক্তব্য আমাদের।’

এর আগে মঙ্গলবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দলটির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন আর্ল রবার্ট মিলার। ওই বৈঠক শেষে তিনি বলেছিলেন, আমরা (যুক্তরাষ্ট্র) চাই বাংলাদেশে একটি অবাধ, সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য, অংশগ্রহণমূলক এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হোক। নির্বাচনে সহিংসতার বিষয়ে যেসব রিপোর্ট দেখছি, তাতে আমরা উদ্বিগ্ন।এ ব্যাপারে আমাদের অবস্থান হলো—এটা নিশ্চিত করা দরকার যে ভায়োলেন্সকে (সহিংসতা) পরিহার করা এবং এটাকে নিন্দা জানানো।’

ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সঙ্গে মিলারের বৈঠকের পর বিএনপির আন্তর্জাতিক সম্পর্কবিষয়ক বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজকে (বুধবার) মূলত সে রকম আনুষ্ঠানিক বৈঠক ছিল না। আমরা এবার নির্বাচনে যাচ্ছি, তার জন্য ইশতেহার ঘোষণা করেছি, সেটা ছিল বাংলায়। আজ বিদেশি কূটনীতিকদের ইংরেজিতে আমাদের ইশতেহার দিয়েছি।’

বিএনপি নেতা রিপন বলেন, ‘ইশতেহারের মূল বিষয় আমরা কী করতে চাই, তা তাদের (কূটনীতিকদের) জানিয়েছি। এ ছাড়া আমরা কীভাবে বাধার মুখোমুখি হচ্ছি; হামলা, মামলা ও গ্রেফতারের শিকার হচ্ছি; তাও জানিয়েছি।’

‘আপনারা জানেন, তারা (বিদেশি কূটনীতিক) নারীর ক্ষমতায়ন বিষয়ে খুব সিরিয়াস। আর আমাদের যে কয়েকজন নারী প্রার্থী ছিলেন, তারা সবাই সম্প্রতি আক্রমণের শিকার হয়েছেন। এসব বিষয়ে আমরা তাদের অবহিত করেছি।’

বৈঠকে কূটনীতিকরা কী বলেছেন জানতে চাইলে রিপন বলেন, ‘বিদেশি কূটনীতিকরা সাধারণত শোনেন, বুঝেন কিন্তু তারা কোনো মন্তব্য করেন না।’

বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলারসহ যুক্তরাজ্য, চীন, জাপান, কানাডা, ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নসহ ৩৫টি দেশের প্রতিনিধি অংশ নেন।

প্রিয় সংবাদ/নোমান/কামরুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...