ইমরান খান (বামে) ও মোহাম্মদ কাইফ। ছবি: সংগৃহীত

‌‘সংখ্যালঘুদের নিয়ে পাকিস্তানের লেকচার দেওয়া সাজে না’

ঘটনার সূত্রপাত বলিউড অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহর একটি সাক্ষাৎকার কেন্দ্র করে।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:১৪ আপডেট: ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:১৪
প্রকাশিত: ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:১৪ আপডেট: ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:১৪


ইমরান খান (বামে) ও মোহাম্মদ কাইফ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) নির্বাচন থেকে শুরু করে শপথগ্রহণ, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের কথা বলেছেন সর্বত্র। এরই ধারাবাহিকতায় নজর রেখেছিলেন দেশটির সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর। জানিয়েছিলেন, ভারতবর্ষের সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ভালো অবস্থায় নেই।

কিন্তু পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের এমন বক্তব্য ভালোভাবে নেননি মোহাম্মদ কাইফ। ভারতের সাবেক এই ক্রিকেটার মনে করেন, সংখ্যালঘু নিয়ে লেকচার দেওয়া সাজে না পাকিস্তানের। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে এক টুইট বার্তায় এমনটা জানান সাবেক এই ভারতীয় অলরাউন্ডার।

ঘটনার সূত্রপাত বলিউড অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহর একটি সাক্ষাৎকার কেন্দ্র করে। সম্প্রতি তিনি বলেছিলেন, এখন ভারতবর্ষের রাজনৈতিক পরিস্থিতির যে অবস্থা, তাতে তার নিজের সন্তানদের জন্য ভয় করে।

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সফল এই বলিউড অভিনেতার বক্তব্যের জেরে ইমরান খান জানিয়েছিলেন, মোদি সরকারকে তিনি দেখিয়ে দেবেন, কীভাবে দেশের সংখ্যালঘু মানুষদের ভালো রাখা যায়।

তিনি বলেন, ‘ভারতেও সংখ্যালঘুরা বলছেন, তারা নিরাপদ নন, তাদের সমঅধিকার নেই। সংখ্যালঘুদের সঙ্গে কেমন ব্যবহার করতে হয়, নরেন্দ্র মোদির সরকারকে সেটা আমরা দেখিয়ে দেব।’

সংখ্যালঘুদের নিয়ে ইমরানের এমন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করে কাইফ বলেন, ‘দেশভাগের সময় পাকিস্তানের ২০ শতাংশ মানুষ ছিলেন সংখ্যালঘু। এখন সংখ্যাটা এসে দাঁড়িয়েছে ২ শতাংশে। পাশাপাশি ভারতবর্ষে ঠিক উল্টো ঘটনাই ঘটেছে। স্বাধীনতা লাভের পর থেকে এদেশে সংখ্যালঘু মানুষের সংখ্যা বেড়েছে। এই ব্যাপার নিয়ে অন্তত পাকিস্তানের অন্য দেশকে ভাষণ দেওয়া সাজে না।’

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...