রোলস-রয়েস ‘সুইপটেইল’ ২০১৮ সালের ২৩ জুলাই পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি গাড়ি ছিল এটি। ছবি: সংগৃহীত

২০১৮ সালের সবচেয়ে দামি ৫টি গাড়ি

কিছু কিছু গাড়ি যা পৃথিবীর মাত্র এক শতাংশ মানুষের জন্য তৈরি করা হয়, সবার কাছে এই গাড়িগুলো বিক্রিও করে না নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো।

আশরাফ ইসলাম
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:২৬ আপডেট: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:২৬
প্রকাশিত: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:২৬ আপডেট: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:২৬


রোলস-রয়েস ‘সুইপটেইল’ ২০১৮ সালের ২৩ জুলাই পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি গাড়ি ছিল এটি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) কিছু কিছু গাড়ি যা পৃথিবীর মাত্র এক শতাংশ মানুষের জন্য তৈরি করা হয়, সবার কাছে এই গাড়িগুলো বিক্রিও করে না নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। এই গাড়িগুলোর কোনো কোনোটির দাম ১০০ কোটি টাকারও বেশি। ২০১৮ সালের এমনই পাঁচটি ব্যয়বহুল ও বিলাসবহুল গাড়ি নিয়েই আজকের আয়োজন।

২০১৮ সালের ২৩ জুলাই পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি গাড়ি ছিল রোলস-রয়েস ‘সুইপটেইল’। এই গাড়িটির দাম ১৩ মিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার দাম ১১০ কোটি টাকা। অনলাইন ম্যাগাজিন বিউটিফুল লাইফ ও আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

পাগানি জোন্ডা এইচপি বারকেতা। ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতি সুইপটেইলকে পেছনে ফেলে দামি গাড়ির খেতাব পায় ইতালিয় স্পোর্টসকার প্রস্তুতকারক সংস্থা পাগানির জোন্ডা এইচপি বারকেতা। গাড়িটির মূল্য ১৭.৫ মিলিয়ন ইউএস ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর দাম ১৪৬ কোটি টাকার বেশি।

ল্যাম্বরগিনি ভেনেনো। ছবি: সংগৃহীত

 ল্যাম্বরগিনি ভেনেনো একটি সুপার স্পোর্টস কার। ২০১৩ সালে এই গাড়িটি বাজারে আসে। গাড়িটি মাত্র ২.৯ সেকেন্ডের মধ্যে ৬০ মাইল প্রতি ঘণ্টা গতি তোলা যায়। ভারতীয় মুদ্রায় গাড়িটির দাম ৬৭ কোটি রুপি। বাংলাদেশি মুদ্রায় গাড়িটির মূল্য ৮০ কোটি টাকারও বেশি।

মার্সিডিজ বেঞ্জ মেব্যাচ এক্সেলেরো। ছবি: সংগৃহীত

মার্সিডিজ বেঞ্জ মেব্যাচ এক্সেলেরো একটি হাই পারফরশ্যান্স স্পোর্টস কার। ২০০৫ সালে এই গাড়িটি প্রথম বাজারে আসে। গাড়িটির সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ৩৫০ কিলোমিটার। ভারতীয় বাজারে গাড়িটির দাম ৫৬ কোটি রুপি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার মূল্য ৬৭ কোটি টাকারও বেশি। 

কোনিগসেগ সিসিএক্সআর ট্রেভিটা। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বের বিরলতম গাড়িগুলোর একটি সুইডেনের গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের তৈরি কোনিগসেগ সিসিএক্সআর ট্রেভিটা। এই গাড়িটিতে মাত্র তিন সেকেন্ডের মধ্যে ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতি তোলা যায়। গাড়িটির দাম ৪.৮ মিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় গাড়িটির মূল্য ৪০ কোটি টাকারও বেশি। 

অ্যাস্টন মার্টিন ভালকাইরে। ছবি: সংগৃহীত

অ্যাস্টন মার্টিন ভালকাইরে এটি একটি হাইব্রিড ইলেকট্রনিক স্পোর্টস কার। গাড়িটির মূল ৩.২ মিলিয়ন ইউএস ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার মূল্য প্রায় ২৭ কোটি টাকা।

প্রিয় প্রযুক্তি/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...