আয়াক্সের ডিফেন্ডারকে লাথি মেরে দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হন মুলার। ছবি : সংগৃহীত

ফিল্মি স্টাইলে লাথি, অতপর শাস্তি...

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর দুই লেগেই খেলতে পারবেন না মুলার। তাতেই আনন্দ বইছে লিভারপুল শিবিরে।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ০৮:৩০ আপডেট: ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:৩৬
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ০৮:৩০ আপডেট: ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:৩৬


আয়াক্সের ডিফেন্ডারকে লাথি মেরে দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হন মুলার। ছবি : সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আয়াক্সের মুখোমুখি হয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখ। সেই ম্যাচে প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডার নিকোলাস তাগলিয়াফিকোকে শূন্যে লাফিয়ে ঘাড়ে লাথি মেরে সরাসরি লাল কার্ড দেখেছিলেন থমাস মুলার। এখানেই অবশ্য সমাপ্তি ঘটেনি সেই ঘটনার। ফিল্মি স্টাইলে লাথি মারার অপরাধে এবার দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হলেন বায়ার্ন মিউনিখের এই জার্মান স্ট্রাইকার।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কোনো খেলোয়াড় সরাসরি লাল কার্ড দেখলে এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হন। তবে মুলারের চ্যালেঞ্জটা ছিল অনেক বেশি ভয়ংকর! যে কারণেই তার নিষেধাজ্ঞার পরিমাণটা আরও বাড়তে পারে বলে সেই সময়েই ধারণা করেছিলেন ফুটবলবোদ্ধারা। অবশেষে শুক্রবার সেটাই বাস্তবে পরিণত হলো।

প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে বাজেভাবে আঘাত করার শাস্তি হিসেবে থমাস মুলারকে দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করেছে উয়েফার নিয়ন্ত্রক, ইথিকস ও ডিসিপ্লিনারি কমিটি। এর ফলে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর দুই লেগেই খেলতে পারবেন না মুলার। তাতেই আনন্দ বইছে লিভারপুল শিবিরে।

কেননা ইউরোপ সেরার এই টুর্নামেন্টের শেষ ষোলোতেই যে বায়ার্ন মিউনিখের প্রতিপক্ষ লিভারপুল। আর দলের সেরা তারকা মুলারকে না পাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে ইংলিশ জায়ান্টরা। তবে মুলার জানিয়েছেন, এই শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করবেন তিনি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১০৭ ম্যাচে ৪২ গোল করেছেন মুলার।

আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি এনফিল্ডে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে মুখোমুখি হবে বায়ার্ন মিউনিখ ও লিভারপুল। দ্বিতীয় লেগের ম্যাচটি হবে মিউনিখে, মার্চের ১৩ তারিখ।

সূত্র : এসআই.কম

প্রিয় খেলা/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...