কাঙালিনী সুফিয়া। ছবি: প্রিয়.কম

ছাড়পত্র পেয়েছেন কাঙালিনী, ভুগছেন অর্থকষ্টে

শনিবার বিকেলে প্রিয়.কমের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান কাঙালিনী সুফিয়া।

মিঠু হালদার
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:০৩ আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:২২
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:০৩ আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:২২


কাঙালিনী সুফিয়া। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসাধীন থাকা লোকসংগীতের জনপ্রিয় শিল্পী কাঙালিনী সুফিয়া গত ৬ জানুয়ারি ছাড়পত্র পেয়েছেন। এখন তিনি তার সাভারের বাসায় আছেন। তবে এই শিল্পী বর্তমানে ভুগছেন ‘অর্থকষ্টে’।

১২ জানুয়ারি, শনিবার বিকেলে প্রিয়.কমের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান কাঙালিনী সুফিয়া।

তিনি বলেন, ‘ছাড়পত্র দেওয়ার পরই বাসায় চলে আসছি। ডাক্তার যেভাবে বলেছেন সেভাবেই এখন খাবার খাচ্ছি। আর হাসপাতাল থেকে যে ঔষধ দিয়েছে সেগুলোই খাচ্ছি। কিন্তু সেগুলো শেষ হয়ে গেলে, কিনে খাওয়ানোর মতো সামর্থ আমার এখন নাই। কেমন করে বাঁচি কন?’

‘প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতায় এই পর্যন্ত আসছি। ডাক্তার বলেছে ছয় মাস বিশ্রাম নিতে। এই ছয় মাস আমি খাব কী? ফ্যামিলি কীভাবে চলবে? ঠিক মতো ঔষধপাতি খেলে আবার সুস্থ হতে পারব। আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে পারব। কিন্তু অর্থের অভাবে আমি এখন ক্লান্ত।’

প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে প্রতি মাসে ১০ হাজার টাকা অর্থ সাহায্য পান কাঙালিনী। তবে বর্তমান সংকটের তুলনায় এ সাহায্য অত্যন্ত অপ্রতুল। এ বিষয়ে তার ভাষ্য, ‘নুন আনতে পান্তা ফুরায়’।

এই শিল্পী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার প্রতি প্রথম যখন অসুস্থ হই তখন থেকেই আমার পাশে দাঁড়িয়েছেন। আমি তার প্রতি চিরকৃতজ্ঞ। তার এই ভালোবাসার প্রতিদান আমি কখনো দিতে পারব না। কিন্তু আমি এই সাময়িক সংকট থেকে মুক্তি চাই।’

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত অসুস্থতায় ঢাকার সাভারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ‘অর্থ সংকটে’ থাকা কাঙালিনী সুফিয়ার চিকিৎসা চলছিল।

এরপর এ বিষয়ে প্রিয়.কমসহ কয়েকটি গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। তারপরের দিন ভোরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই হাসপাতাল থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের হাসপাতালে ভর্তি করা হয় কাঙালিনীকে।

সাভারের জামসিং এলাকায় তিন শতাংশ জমির ওপর একটি টিনশেড ঘরে মেয়ে পুষ্প ও নাতনিকে নিয়ে থাকেন শিল্পী কাঙালিনী। বার্ধ্যকের কারণে গান গাওয়ার জন্য বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এখন আগের মতো তার আর ডাক পড়ে না।

প্রিয় বিনোদন/গোরা

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...